ভূমিমন্ত্রীর ছেলের নেতৃত্বে সাংবাদিকদের ওপর হামলা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০২:০৩ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৭

পাবনার ঈশ্বরদীতে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলুর ছেলে শিরহান শরীফ তমাল ও তার ক্যাডার বাহিনী চার সাংবাদিককে পিটিয়ে আহত করেছে। বুধবার বিকেলে রূপপুর পরমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রকল্পের সাইট অফিসের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় তারা সাংবাদিকদের ল্যাপটপ ও ক্যামেরা ভাঙচুর করে এবং তিনটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়।

আহতরা হলেন- সময় টিভি ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের পাবনা প্রতিনিধি সৈকত আফরোজ আসাদ, এটিএন নিউজের পাবনা প্রতিনিধি রিজভী রাইসুল ইসলাম জয়, ডিবিসি নিউজের পাবনা প্রতিনিধি পার্থ হাসান ও ক্যামেরা পার্সন মিলন হোসেন।

আহতদের পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার প্রতিবাদে বিকেলে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন পাবনায় কর্মরত সাংবাদিকরা।

আহত সাংবাদিকরা জানান, বিকেলে রূপপুর পরমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রকল্পের সাইট অফিসের সামনে সাবেক ছাত্রনেতা ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট রবিউল আলম বুদুর প্রচার গাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করে ভূমিমন্ত্রীর ছেলে তমাল ও তার অনুসারী যুবলীগের ক্যাডার বাহিনী। এ সময় ভাঙচুর ও হামলার দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ করার সময় তারা সাংবাদিকদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। পরে স্থানীয়রা ছুটে এসে তাদের উদ্ধার করে আহতাবস্থায় পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

ঈশ্বরদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনাটি লোকমুখে শুনেছি। তবে অভিযোগ পাইনি।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে হাসপাতালে আহত সাংবাদিকদের দেখতে যান পাবনায় কর্মরত সাংবাদিকরা। পরে হাসপাতাল চত্বর থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন সাংবাদিকরা। বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে শহরের প্রধান আব্দুল হামিদ সড়ক অবরোধ করে ট্রাফিক মোড়ে প্রতিবাদ সভা করা হয়। এ সময় জড়িতদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়ে বক্তব্য দেন পাবনা প্রেসক্লাবের সভাপতি অধ্যাপক শিবজিত নাগ, সহ-সভাপতি কামাল সিদ্দিকী, সম্পাদক আঁখিনূর ইসলাম রেমন, সাবেক সম্পাদক উৎপল মির্জা, এবিএম ফজলুর রহমান, বিটিভি প্রতিনিধি আব্দুল মতীন খান প্রমুখ।

সমাবেশ থেকে সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে তিনদিন কালো ব্যাজ ধারণ ও ভূমিমন্ত্রীর সকল সংবাদ বয়কটের ঘোষণা দেন সাংবাদিক নেতারা।

সন্ধ্যায় পাবনার পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির পিপিএম হাসপাতালে সাংবাদিকদের দেখতে যান। এ সময় তিনি দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন। পরে ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলু ফোনে পাবনা প্রেস ক্লাবের সভাপতির সঙ্গে কথা বলেন এবং সান্ত্বনা দেন।

একে জামান/আরএআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :