বাড়িতে মায়ের মরদেহ, তবুও পরীক্ষা দিল রিম্বী

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি কুমিল্লা
প্রকাশিত: ০৯:০৭ এএম, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার রামপুর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে সোমবার ইভানা হান্নান রিম্বী নামে এক শিক্ষার্থী মায়ের মরদেহ বাড়িতে রেখেই ইংরেজী ১ম পত্র পরীক্ষা দিয়েছে। রোববার রাতে সড়ক দুর্ঘটনায় তার মা তাছলিমা বেগম নিহত হন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার গলিয়ারা উত্তর ইউনিয়নের মুগদুধ গ্রামের আবদুল হান্নানের মেয়ে ইভানা হান্নান রিম্বী বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি শাহদৌলতপুর এলাকায় নানার বাড়িতে থেকে লেখাপড়া করে আসছে। সে নাজিরা বাজার দ্যা হলি কেয়ার ইন্টারন্যাশনাল স্কুল থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে। রোববার রাতে রিম্বীর মা তাছিলিমা বেগম (৩৫) কালাকচুয়া মৈশান বাড়ির মিজানুর রহমান নয়ন নামে ভাগ্নের বিয়ের কেনাকাটা শেষ করে কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট থেকে বাবার বাড়িতে যাওয়ার পথে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বুড়িচং উপজেলার কালাকচুয়ায় রাস্তা পারাপারের সময় অজ্ঞাত একটি অ্যাম্বুলেন্সের চাপায় ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

রাতেই মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় নিহতের বাবার বাড়ি ময়নামতির শাহদৌলতপুর গ্রামে। মৃত্যুর খবরে পরিবারের সদস্যদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। মায়ের মৃত্যুর খবর শুনে কান্নায় ভেঙে পড়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী রিম্বী। সোমবার সকাল ১০টায় রিম্বীর মামার বাড়ি শাহদৌলতপুর গ্রামে প্রথম তার মায়ের জানাজা হয়। পরে মরদেহ পাঠানো হয় নিহতের স্বামীর বাড়িতে। মায়ের মরদেহ বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়ে রামপুর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষা দিতে আসে রিম্বী।

রামপুর উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি শাহপরান আজাদ বলেন, রিম্বীর মা সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যাওয়ার বিষয়টি দুঃখজনক। আমরা তার কাছে গিয়ে তাকে সমবেদনা জানিয়েছে। পরীক্ষা শেষে রিম্বী মায়ের দাফন সম্পন্ন করার জন্য বাবার বাড়িতে গেছে।

কামাল উদ্দিন/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :