স্ত্রীকে ন্যাড়া করে স্বামী বললেন মাথায় খুসকি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি বগুড়া
প্রকাশিত: ০৬:১৯ পিএম, ১৭ এপ্রিল ২০১৮ | আপডেট: ০৬:২৩ পিএম, ১৭ এপ্রিল ২০১৮
স্ত্রীকে ন্যাড়া করে স্বামী বললেন মাথায় খুসকি

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় আসমা খাতুন (২৬) নামের এক গৃহবধূকে নির্যাতনের পর মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছে মাদকাসক্ত স্বামী বকুল হোসেন (৩৫)। উপজেলার ভান্ডারবাড়ী ইউনিয়নের মাধবডাঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে গৃহবধূ বাদী হয়ে স্বামী ও ভাসুরের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছে। অভিযুক্ত স্বামী পলাতক থাকলেও তার বড় ভাই শাহ আলমকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে সোমবার রাতে স্থানীয়দের সহযোগিতায় স্বামীর বাড়িতে থেকে ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে তার স্বজনরা।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ভান্ডারবাড়ি ইউনিয়নের মাধবডাঙ্গা গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে বকুল হোসেনের সঙ্গে ধুনট সদরপাড়া এলাকার ইসমাইল হোসেনের মেয়ে আসমা খাতুনের প্রায় আট বছর আগে বিয়ে হয়। এ দম্পতির দুটি সন্তান রয়েছে। কিন্তু এক বছর ধরে পারিবারিক নানা বিষয় নিয়ে আসমাকে প্রায় নির্যাতন করতো স্বামী । এ বিষয়ে একাধিকবার সালিশ বৈঠক হলেও স্বামী বকুল সংশোধন হয়নি।

গৃহবধূ আসমা খাতুনের অভিযোগ, স্বামীর বহু বিবাহ, মাদক সেবনসহ নানা বিষয়ে প্রতিবাদ করায় কারণে-অকারণে দীর্ঘদিন ধরে স্বামী তাকে নির্যাতন করে আসছে। এছাড়া সাতদিন আগে নির্যাতনের পর জোরপূর্বক তার মাথার চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয় সে।

গৃহবধূ আসমার বাবা ইসমাইল হোসেন বলেন, স্থানীয়দের সহযোগিতায় মেয়েকে উদ্ধার করে ধুনট হাসপাতালে ভর্তি করেছি। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

তবে বিষয়টি অস্বীকার করে বকুল হোসেন বলেন, স্ত্রী আসমা খাতুনের খুসকি হওয়ায় তার সম্মতিতেই মাথার চুল কেটে ন্যাড়া করে দেয়া হয়েছে। তাকে ঘরে আটকে রেখে কোনো নির্যাতন করা হয়নি।

ধুনট থানার ওসি খান মো. এরফান বলেন, সংবাদ পাওয়ার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ ঘটনায় বিষয়ে মামলা দায়ের হয়েছে। পুলিশ গৃহবধূর ভাসুর শাহ আলমকে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

লিমন বাসার/আরএ/আরআইপি