স্ত্রীকে ভারতের পতিতালয়ে বিক্রির দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ০৪:৪০ পিএম, ১৭ মে ২০১৮
ছবি-প্রতীকী

সাতক্ষীরায় স্ত্রীকে ভারতে পাচার করে পতিতালয়ে বিক্রির দায়ে দায়ে স্বামী হাবিবুর রহমান গাজীর যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সাতক্ষীরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক হোসনে আরা আক্তার আসামির অনুপস্থিতিতে এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত হাবিবুর রহমান গাজী সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ব্যাংদহা গ্রামের মৃত কেয়াম উদ্দীনের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০৫ সালে ৫ জুন হাবিবুর রহমান গাজী তার স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে যান। তিনদিন শ্বশুরবাড়িতে থাকার পর ৮ জুন কোমল পানীয়র সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে স্ত্রীকে অজ্ঞান করেন। তারপর সীমান্ত পার করে তাকে ভারতের একটি পতিতালয়ে বিক্রি করে দেন। ভারতের পতিতালয়ে চার মাসের অধিক সময় থাকার পর এক বাংলাদেশির মাধ্যমে দেশে ফিরে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন তার স্ত্রী। এ মামলায় সাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা শেষে আদালত আজ এই রায় দেন।

সাতক্ষীরা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের আইনজীবী অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ জানান, দীর্ঘদিন পর মামলাটির রায় হয়েছে। আসামি হাবিবুর রহমান গাজী জামিন নিয়ে বর্তমানে পলাতক রয়েছেন।

আকরামুল ইসলাম/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :