ডাকসু নির্বাচনে ইসলামপন্থীদের বাধা দিলে আন্দোলনের হুমকি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৮:৩৩ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

চরমোনাই পীর ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে ইসলামপন্থীদের অংশগ্রহণে বাধা দিলে এটি জাতীয় ইস্যুতে রূপ নেবে। একটি অশুভ মহল ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের নির্বাচনে অংশ নেয়ার বিরোধিতা করছে।

শুক্রবার দুপুরে বরিশাল সদর উপজেলার চরমোনাই মাদরাসা ময়দানে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের মহাসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

চরমোনই পীর বলেন, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ১৯৯১ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে এদেশের ছাত্র সমাজকে আদর্শিক ও নৈতিকতার দিক দিয়ে উৎকৃষ্ট মানবসম্পদ হিসেবে তৈরির লক্ষে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে কাজ করে যাচ্ছে। প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে আজ পর্যন্ত এ সংগঠনের নেতাকর্মীরা কোনো প্রকার অন্যায় ও রাষ্ট্রবিরোধী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত হয়নি। বরং প্রতি বছর পরিকল্পনাভিত্তিক দেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট ও সামাজিক কার্যক্রমে এদের অংশগ্রহণ থাকে সরব।

তিনি আরও বলেন, আদর্শবান নেতৃত্ব তৈরির ধারাবাহিকতায় ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু একটি অশুভ মহল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে সন্ত্রাস, মাদক ও অনৈতিকতার অভয়ারণ্য করে রাখার পরিকল্পনায় ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের বিরুদ্ধে উঠেপড়ে লেগেছে। আমি সেই সকল সংগঠনের নেতাকর্মীদের বলব- বাংলাদেশের ইতিহাসে ইসলামকে বাদ দিয়ে কারও রাজনীতি কল্পনা করা যায় না। আমি আশা করবো সকল সংগঠনের অংশগ্রহণে দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হোক। নির্বাচনে ইসলামপন্থীদের অংশগ্রহণে বাধা দেয়ার চেষ্টা করা হলে এটি জাতীয় ইস্যুতে রূপ নেবে ।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি শেখ ফজলুল করীম মারুফ।

barishal

ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সেক্রেটারী জেনারেল মুহাম্মাদ মুস্তাকিম বিল্লাহর সঞ্চালনায় ছাত্র সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমির মাওলানা আব্দুল হক আজাদ, মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুস আহমাদ, যুগ্ম মহাসচিব ও ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মাদ বরকত উল্লাহ লতিফ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের সাবেক কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি শেখ মুহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম, সহ-সভাপতি এম. হাছিবুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম আব্দুজ্জাহের আরেফী প্রমুখ।

চরমোনাইয়ের বার্ষিক মাহফিলের রেওয়াজ অনুযায়ী তৃতীয় দিনে এ মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। আগামীকাল শনিবার সকাল ৮টার দিকে আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে তিনদিনের মাহফিল শেষ হবে। মোনাজাত পরিচালনা করবেন চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম।

সাইফ আমীন/আরএআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]