রাতে কেন্দ্র দখলের চেষ্টা, ককটেল বিস্ফোরণ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০২:৩৪ এএম, ৩১ মার্চ ২০১৯

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ ধাপের ভোট আজ রোববার অনুষ্ঠিত হবে। আজ ভোটগ্রহণ হবে মোট ১০৭ উপজেলায়। এদিকে ভোর হওয়ার আগেই নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের একটি নির্বাচনী কেন্দ্র দখলের চেষ্টা করেছেন ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী (টিউবওয়েল মার্কা) ওমর বাবু ওরফে বাবুল হোসেনের সমর্থকরা।

এ সময় তারা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটান। এতে করে পুলিশের তৎপরতায় তাদের মিশন ব্যর্থ হয়। এ ঘটনায় দুইজনকে মোটরসাইকেলসহ আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে ইউনিয়নের বরাব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। আটক দুইজন হলেন- উপজেলার কাঁচপুর ইউনিয়নের আমির হোসেনের ছেলে সুমন (২১) ও জামানের ছেলে খোকন (২০)।

জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক সাজ্জাদ রোমান জানান, নির্বাচনী কেন্দ্র দখলের চেষ্টার সময় মোটরসাইকেলসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে। তারা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এক প্রার্থীর পক্ষে কেন্দ্র দখলের চেষ্টা করছিল।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) তথ্য অনুযায়ী, চতুর্থ ধাপে চেয়ারম্যান পদে ৩৫১ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫৩৩ জন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪০৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

এর মধ্যে এ নির্বাচনে ভোটের আগেই জয়লাভ করেছেন ৮৮ প্রার্থী। কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় চোয়ারম্যান পদে ৩৯ উপজেলা, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২২ উপজেলা ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৭ উপজেলায় একক প্রার্থীরা ভোট ছাড়াই জয়লাভ করেছেন।

ইসির তথ্য অনুযায়ী, চতুর্থ ধাপে ১২২ উপজেলায় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে কমিশন। সেইসঙ্গে আরও যুক্ত হয় ছয়টি উপজেলা। এগুলো তৃতীয় থেকে চতুর্থ ধাপে স্থানান্তর করা হয়। এই ছয় উপজেলা হলো- নরসিংদী সদর, কক্সবাজার সদর, দিনাজপুর সদর, গোবিন্দগঞ্জ, লোহাগাড়া ও ফুলবাড়ী।

মোট ১২৮ উপজেলায় ভোট হওয়ার কথা ছিল আজ। তবে এর মধ্য চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান- এই তিন পদে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায়, ১৫টি উপজেলায় ভোট হবে না। সেই সঙ্গে খুলনার ডুমুরিয়া, ফেনীর ছাগলনাইয়া, ময়মনসিংহের ত্রিশাল ও কুমিল্লার বরুড়ার নির্বাচন স্থগিত করেছেন আদালত। আর পিরোজপুরের মঠবাড়ীয়া ও নোয়াখালীর কবিরহাটের নির্বাচন স্থগিত করেছে ইসি। এই ২১টি উপজেলা বাদে আজ ১০৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ হবে।

যে ১৫ উপজেলায় ভোট ছাড়াই প্রার্থীরা জয়লাভ করেছেন, সেগুলো হলো- ভোলা সদর, মনপুরা ও চরফ্যাশন, যশোরের শার্শা, কুমিল্লার লাকসাম, লাঙ্গলকোট, মনোহরগঞ্জ, দেবিদ্বার ও চৌদ্দগ্রাম, নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা, ময়মনসিংহের গফরগাঁও, ঢাকার সাভার ও কেরানীগঞ্জ এবং ফেনীর পরশুরাম উপজেলা।

চতুর্থ ধাপের উপজেলা নির্বাচনে মোট ২ কোটি ৫৫ লাখ ৪০ হাজার ৭০৪ জন ভোটাধিকারের সুযোগ পাচ্ছেন। ভোটগ্রহণ হবে ৯ হাজার ৭৪০টি কেন্দ্রের মোট ৬৩ হাজার ৬৯৬টি ভোট কক্ষে। এ নির্বাচনে অতিরিক্ত বিজিবি মোতায়েন থাকবে ৪৮ উপজেলায় এবং গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে অতিরিক্ত র্যাব মোতায়েন থাকবে।

এদিকে পটুয়াখালী সদর, কক্সবাজার সদর, বাগেরহাট সদর, ময়মনসিংহ সদর, মুন্সিগঞ্জ সদর ও ফেনী সদরে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট হবে।

মো.শাহাদাত হোসেন/জেডএ

আপনার মতামত লিখুন :