ছোট্ট জায়ানের শোকে স্তব্ধ গোপালগঞ্জ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গোপালগঞ্জ
প্রকাশিত: ০২:৪৪ পিএম, ২২ এপ্রিল ২০১৯

শ্রীলঙ্কার কলম্বোতে সিরিজ বোমা হামলায় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংসদ সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি জায়ান চৌধুরী (৮) নিহত হওয়ার খবরে গোপালগঞ্জের সর্বত্র শোকের ছায়া নেমে এসেছে। রোববার রাতে গোপালগঞ্জে এ খবর পৌঁছানোর পর শোকে স্তব্ধ হয়ে পড়ে দল মত নির্বিশেষে সকল মানুষ। প্রাণপ্রিয় নেতার আদরের নাতি জায়ান চৌধুরীর মর্মান্তিক মৃত্যু দলের নেতাকর্মীদের বাকরুদ্ধ করে দিয়েছে।

গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী এমদাদুল হক ও সাধারণ সম্পাদক মাহবুব আলী খান শোকাহত পরিবারকে সমবেদনা জানিয়েছেন।

মাহবুব আলী খান বলেন, শেখ ফজলুল করিম সেলিম কেবল আমাদের নেতা নন। তিনি আমাদের অভিভাবক। তিনি পরপর আটবার গোপালগঞ্জ-২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। এলাকার মানুষের সঙ্গে রয়েছে সবার প্রিয় এ নেতার নাড়ির সম্পর্ক। প্রিয় নেতার প্রাণপ্রিয় নাতির মর্মান্তিক মৃত্যুতে আমরা বাকরুদ্ধ হয়ে গেছি। সমবেদনা জনানোর কোনো ভাষা আমাদের নেই।

গোপালগঞ্জ সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র কাজী লিয়াকত আলী লেকু শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বলেন, মহান আল্লাহ প্রিয় নেতা শেখ সেলিম ও তার পরিবারকে বিপদে ধৈর্যধারণ ও শোক কাটিয়ে ওঠার শক্তি দান করুন এ দোয়া করি।

জায়ান চৌধুরী নিহতের ঘটনায় শোক জ্ঞাপন ও সমবেদনা জানিয়েছেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মিটু, গোপালগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসমত আলী সিকদার চুন্নু, সাধারণ সম্পাদক সিকদার মো. নজরুল ইসলাম, টুঙ্গিপাড়া আওয়ামী লীগের সভাপতি ইলিয়াস হোসেন, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান সোলায়মান বিশ্বাস ও টুঙ্গিপাড়ার পৌর মেয়র শেখ আহমেদ হোসেন মীর্জা নেতাকর্মীরা।

Jayan-(3)

এছাড়া শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন, জেলা যুবলীগের সভাপতি জিএম সাহবুদ্দীন আযম, সাধারণ সম্পাদক এমবি সাঈফ, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল হামিদ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, বশেমুরবিপ্রবি শাখার সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. শাহজাহান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. রাজিউর রহমান, জেলা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি অ্যাড. জিন্নাত আলী, গোপালগঞ্জ জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এস এম হুমায়ূন কবীর প্রমুখ।

সম্প্রতি শেখ ফজলুল করিম সেলিমের একমাত্র মেয়ে শেখ আমেনা সুলতানা (শেখ সোনিয়া) ও তার স্বামী মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স তাদের দুই ছেলে জায়ান চৌধুরী ও জোহান চৌধুরীকে নিয়ে শ্রীলংকায় বেড়াতে যান। সেখানে কলোম্বতে একটি হোটেলে ওঠেন তারা। রোববার কয়েকটি গির্জা ও পাঁচতারকা হোটেলে সিরিজ বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। ওই বোমা হামলায় শেখ সেলিমের নাতি জায়ান চৌধুরী নিখোঁজ হন এবং তার বাবা মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স গুরুতর আহত হন।

সিলেটের সন্তান জায়ান

শ্রীলঙ্কার বোমা হামলায় নিহত জায়ান চৌধুরীর দাদাবাড়ি সিলেটের সুনামগঞ্জের ভাটিপাড়ায়। জায়ানের বাবা মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স এম এইচ চৌধুরী পারুলের ছেলে। প্রিন্স আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের মেয়ে শেখ সোনিয়ার স্বামী।

জায়ান প্রিন্স-সোনিয়া দম্পতির বড় ছেলে। মা-বাবা ও ছোট ভাইয়ের সঙ্গে ছুটি কাটাতে জায়ানরা শ্রীলংকায় গিয়েছিল।

এসএম হুমায়ূন কবীর/এফএ/এমকেএইচ