অবৈধ বিজ্ঞাপন ও ধূমপান সামগ্রী, জাপান টোবাকোকে লাখ টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রাজশাহী
প্রকাশিত: ১১:৫৬ পিএম, ১৭ জুলাই ২০১৯

‘জাপান টোবাকো ইন্টারন্যাশনাল (জেটিআই)’ এর রাজশাহী ডিপোতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অবৈধ বিজ্ঞাপন সামগ্রী জব্দ করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় প্রতিষ্ঠানটির রাজশাহীর ইনচার্জ নাজিল হোসেনকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। অনাদায়ে এক মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার বিকেলে নগরীর উপ-শহর এলাকায় (সেক্টর-২, বাসা-১২) অবস্থিত প্রতিষ্ঠানটির আঞ্চলিক ডিপোতে চালানো এই অভিযানে নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার রাফে মোহাম্মদ ছড়া।

জানা গেছে, ধূমপানে আকৃষ্ট করতে বিপুল পরিমাণ অবৈধ বিজ্ঞাপন সামগ্রী মজুদ করেছিল জাপান টোবাকো। খবর পেয়ে বুধবার অভিযানে নামে জেলা প্রশাসন। অভিযানে ৬০-৭০ কার্টন ফেস্টুন, লিফলেট, সিগারেটের ডামি প্যাকেট, নতুন প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপন, বিভিন্ন ধরনের গিফ্ট সামগ্রী জব্দ করা হয়। পরে সেগুলো জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ে নিয়ে ধ্বংস করা হয়েছে।

j

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রাফে মোহাম্মদ ছড়া বলেন, অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ অবৈধ বিজ্ঞাপন সামগ্রী জব্দ করা হয়। যা ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য (নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০০৫ এর স্পষ্ট লঙ্ঘন। আইন অমান্য করায় প্রতিষ্ঠানটির রাজশাহীর ইনচার্জ নাজিল হোসেনকে এক লাখ টাকা জরিমানা করে সাবধান করা হয়েছে।

অনাদায়ে তাকে এক মাসের জেলও দেয়া হয়। ভবিষ্যতে এ আইন লঙ্ঘন করে অবৈধ বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করলে বর্তমান জরিমানার দ্বিগুণহারে জরিমানা করা হবে বলেও জানান ভ্রাম্যমাণ আদালতের এই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

j

উল্লেখ্য, ‘জাপানে রবীন্দ্রনাথের পথে নতুন যাত্রী তাহসান- অন্যান্য জাপানিজ কোয়ালিটির খোঁজে’ নামে একটি ক্যাম্পেইনের বিজ্ঞাপন ও টিভি অনুষ্ঠান দেশের বেশ কয়েকটি টিভি চ্যানেলে আইনবহির্ভূতভাবে প্রচার করেছে জাপান টোবাকো ইন্টারন্যাশনাল। একই সঙ্গে জাতীয় দৈনিক ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে স্পন্সর বিজ্ঞাপন আকারে বহুলভাবে এই বিজ্ঞাপনটি প্রচারিত হয়েছে।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জাপানভ্রমণ ইতিহাস নিয়ে তাহসানের অনুষ্ঠানের ওই বিজ্ঞাপনে জাপান টোবাকো তাদের ব্র্যান্ড প্রমোশনের ক্ষেত্রে একই কালার ও স্লোগান ব্যবহার করে। এরপরই বিদ্যমান আইনি বিধি-নিষেধ এড়িয়ে আগ্রাসী প্রচার চালাচ্ছে জাপান টোবাকো।

ফেরদৌস সিদ্দিকী/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :