মিনুকে রাসিক মেয়রের ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ১০:১৮ এএম, ০৪ মার্চ ২০২১

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে অশোভন বক্তব্য দেয়ায় বিএনপির মিজানুর রহমান মিনুকে ক্ষমা চাইতে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।

ক্ষমা না চাইলে মিনুর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হবে বলেও ঘোষণা দেন তিনি।

এর আগে মঙ্গলবার (০২ মার্চ) রাজশাহীর মাদরাসা ময়দান সংলগ্ন নাইস কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয় বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে অশোভন ও উসকানিমূলক বক্তব্য দেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু।

বুধবার (০৩ মার্চ) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় নগরীর কুমারপাড়ায় মহানগর আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। এরপর সেখানে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিবাদ সমাবেশে মেয়র এ ঘোষণা দেন।

রাসিক মেয়র লিটন বিএনপি নেতা মিনুকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আপনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে যে ধৃষ্টতাপূর্ণ বক্তব্য দিয়েছেন। ওই বক্তব্য অবিলম্বে প্রত্যাহার করে নিয়ে রাজশাহীবাসীর সামনে ক্ষমা চাইতে হবে। ক্ষমা না চাইলে আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আপনার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হবে’।

তিনি বলেন, ‘ভেবেছিলাম বিভাগীয় সমাবেশের নামে বিএনপি তাদের রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে জনগণের সামনে উপস্থিত হবে। কিন্তু তারা দেশ, জাতির পিতা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তিমূলক বক্তব্য দিলেন। শুধু তাতেই ক্ষান্ত হননি! তারা পচাত্তরের ১৫ আগস্টের মতো কালো অধ্যায় সৃষ্টির হুঙ্কার দিয়েছেন। সেই দিন আর নেই, এরপর রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে কোনো উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে পরিবেশ অশান্ত করার চেষ্টা করা হলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তার দাঁতভাঙা জবাব দেয়া হবে’।

এর আগে দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতেও মিজানুর রহমান মিনুকে জাতির সামনে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন ও সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার বিকালে রাজশাহী নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টার চত্বরে বিএনপি বিভাগীয় সমাবেশ করে

এসএমএম/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]