সঙ্গত্যাগ করা লোকদের নামেও মামলা দিচ্ছেন কাদের মির্জা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নোয়াখালী
প্রকাশিত: ০১:৩১ এএম, ০৭ মে ২০২১ | আপডেট: ১১:৩৬ এএম, ০৭ মে ২০২১
ফাইল ছবি

বিবদমান সময়ে সঙ্গত্যাগ করায় নিজের লোকদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার বিরুদ্ধে।

দলীয় একাধিক সূত্র জানায়, সঙ্গত্যাগ করায় বসুরহাট পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র আবুল খায়ের, চরহাজারী ইউনিয়নের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন রাফেল চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আবদুল হাই ফরহাদসহ বেশ কয়েকজনের নামে মামলা দিয়ে হয়রানি করছেন কাদের মির্জা। যারা এরআগে কাদের মির্জার সঙ্গে থাকার কারণে প্রতিপক্ষ এবং পুলিশের দায়ের করা মামলার আসামি।

বসুরহাট পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল খায়ের বলেন, আমরা রাজনীতি করি সত্য, তবে নোংরা রাজনীতি করি না। আবদুল কাদের মির্জার একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে থাকলেও এখনি তিনি আমাদের অপছন্দ করছেন। কোম্পানীগঞ্জের আওয়ামী রাজনীতির হারানো গৌরব পুনরুদ্ধারে কেন্দ্রীয় নেতাদের হস্তক্ষেপও কামনা করেন আওয়ামী লীগের এ নেতা।

চরহাজারী ইউনিয়নের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন রাফেল চৌধুরী বলেন, অসুস্থ শরীর নিয়েও কাদের মির্জার দুর্দিনে পাশে ছিলাম। অনেক মামলা হামলারও শিকার হয়েছি। এখন তিনিও ভুল বুঝে মামলায় আসামি করছেন। অপেক্ষায় আছি নিশ্চয়ই একদিন ন্যায় বিচার পাবো।

উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আবদুল হাই ফরহাদ বলেন, কাদের মির্জার পক্ষে আন্দোলন করতে গিয়ে পুলিশের হামলার শিকার হয়েছি। মায়ের অসুস্থতার কারণে কিছুদিন ঢাকা থাকার কারণে এখন তিনি আমাকে নানান ধরণের মিথ্যা মামলায় জড়াচ্ছেন।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি বলেন, মামলায় এজাহারে আসামিদের নামের পাশে সে কোন দল বা কোন নেতার অনুসারী তা দেয়া থাকে না। মামলাগুলো পুলিশ তদন্ত করছে, দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে মতামত জানতে মেয়র আবদুল কাদের মির্জার মুঠোফোনে বার বার কল দিলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

আরএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]