তালশাঁস কাটাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে সাবেক ইউপি সদস্য নিহত

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বাগেরহাট
প্রকাশিত: ০৯:২৩ এএম, ১৭ মে ২০২১

বাগেরহাটে সদর উপজেলায় তালশাঁস কাটাকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ফজলু তরফদার (৬০) নামের এক সাবেক ইউপি সদস্য নিহত হয়েছেন।

রোববার (১৬ মে) বিকেলে উপজেলার ডেমা গ্রামের মিঠাপুকুর দক্ষিণপাড় এলাকায় বিরোধপূর্ণ একটি জমির তালগাছ থেকে তালশাঁস কাটা নিয়ে এ সংঘর্ষ হয়।

স্থানীয়রা জানায়, সংঘর্ষের সময় ফজলু তরফদারকে মাথায় হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে প্রতিপক্ষ। পরে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে রাতে সেখানে মারা যান তিনি।

পুলিশ জানায়, রোববার বিকালে ডেমা গ্রামে আশবাব তরফদারের ছেলে ফজলু তরফদার বিরোধপূর্ণ জমিতে তালগাছের শাঁস কাটার সময় প্রতিবেশী ইয়াকুব গাজীর ছেলে দুলু গাজী বাধা দেন। বাগ-বিতণ্ডার একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে মারামারি শুরু হয়। এসময় ফজলু তরফদারের দায়ের কোপে দুলু গাজী আহত হন।

এসময় দুলু গাজীর লোকজন এসে ফজলু তরফদারের মাথায় হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে ফেলে রেখে যায়। পরে পরিবারের লোকজন তাকে খুমেক হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এদিকে দুলু গাজীর অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে জানায় তার পরিবার।

নিহতের ছেলে গিয়াস তরফদার বলেন, স্থানীয় দেলোয়ার গাজির পরিবারের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে একটি জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। আমার বাবা রোববার বিকেলে জমির একটি তালগাছে শাঁস কাটতে গেলে দেলোয়ার গাজী ও তার ছেলে আব্দুল্লাহ গাজীসহ আরো কয়েকজন বাধা দেয়। একপর্যায়ে দেলোয়ার গাজী, তার ছেলে আব্দুল্লাহ গাজী ও সহযোগীদের হামলায় বাবা মারা যান।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর শাফিন মাহামুদ জানান, সদর উপজেলার ডেমা গ্রামে তালশাঁস কাটাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে দুইজন গুরুতর আহত হন। এদের মধ্যে ফজলু তরফদার পরে মারা যান।

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

শওকত আলী বাবু/এসএমএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]