টাকার সঙ্গে চিরকুট লিখে ‘ক্ষমা প্রার্থনা’

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুড়িগ্রাম
প্রকাশিত: ০৯:২৭ পিএম, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

একটি ১০০ টাকার নোটে স্টাপলাইজার পিন দিয়ে আটকানো একটি চিরকুট রাতের আঁধারে এক ব্যক্তির ঘরের দরজায় রেখে যাওয়া হয়। সেই চিরকুটে লেখা, ‘এই টাকাটা ক্ষতি করছি মাফ করে দিয়েন’। শুধু ওই ব্যক্তি নয় এমন কয়েকজনের ঘরেই বিভিন্ন টাকার নোটে চিরকুট আটকে রেখে যাওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়ে। তবে কে বা কারা রেখে গেছেন তা জানেন না কেউ।

শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাতে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার পৌর এলাকার সুখাতী ভাটিয়াটারী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এলাকায় এ খবর ছড়িয়ে পড়লে শনিবার সকাল থেকে উৎসুক জনতা সেই গ্রামে ভিড় করেন। বিষয়টি জল্পনা-কল্পনার ডালপালা মেলে চিন্তায় ফেলে ওই ব্যক্তিদের। এটি নিছক রসিকতা না অন্যকিছু এ নিয়ে চলছে বিস্তর আলোচনা।

ওই গ্রামের আমিনুর রহমানের ছেলে হাসানুর রহমান জানান, খাওয়া শেষে রাত ৯টায় শোবার ঘরে যান। হঠাৎ মানুষের পায়ের শব্দ শুনে তিনি দরজা খুলে বের হন। দেখেন কেউ একজন তার বাড়ি থেকে দ্রুত বেরিয়ে যাচ্ছেন। পিছু পিছু গিয়েও দেখা পাননি। ফিরে এসে দরজা বন্ধ করতে গিয়ে দেখেন সেখানে পড়ে আছে একটা ১০০ টাকার নোট। টাকায় স্টাপলাইজার দিয়ে আটকানো একটি চিরকুট। সেখানে লেখা, ‘এই টাকাটা ক্ষতি করছি মাফ করে দিয়েন’।

তিনি আরও জানান, একইভাবে একই এলাকার আবু বকরের ছেলে আব্দুল বারেকের ঘরের দরজায় ১০ টাকা, ইসমাইলের ছেলে আব্দুস সাত্তারের ঘরের দরজায় ৫০ টাকা, মৃত শমসের আলীর ছেলে সাইদুরের ঘরের দরজায় ৩০ টাকা, ছফর আলীর ছেলে মজনু মিয়ার ঘরের দরজায় ১০০ টাকা রেখে গেছেন অজানা ব্যক্তি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ৫ নম্বর ওয়ার্ড কমিশনার রুহুল আমিন বলেন, আরে ভাই, ওটা কোনো কিছু নয়রে ভাই, ওটা কোনো কিছুই নয়। আমি তো সেখানে দেখতে গিয়েছিলাম।

কে বা কারা এমনটি করেছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ওটা ছোট ছেলেদের কাজ। তবে কে বা কারা করেছেন তা জানি না।

মো. মাসুদ রানা/এসজে/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]