বিয়ের দাবিতে ৯ দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান তরুণীর

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০৭:০০ পিএম, ২৪ নভেম্বর ২০২১

চার বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক। তবে বিয়ে করতে চাচ্ছেন না প্রেমিক। অবশেষে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন এক কলেজছাত্রী (২২)। নয়দিন ধরে তিনি ওই বাড়িতে অবস্থান করছেন। তার খাবারের ব্যবস্থা করছেন স্থানীয় একজন নারী ইউপি মেম্বার। ওই কলেজছাত্রী অবস্থান নেওয়ার পর থেকে প্রেমিকসহ বাড়ির লোকজন পালিয়েছেন।

অভিযুক্ত যুবকের নাম সেলিম রেজা। তিনি বিয়ে না করলে আত্মহত্যার হুমকি দেন ওই তরুণী। পাবনার বেড়া উপজেলার আমিনপুর থানার পুরানভারেঙ্গা ইউনিয়নের কল্যাণপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সেলিম রেজা একই গ্রামের তোতা মাঝির ছেলে। ওই তরুণী স্থানীয় একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চার বছর ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক চলছে। দুই পরিবারের মধ্যে আত্মীয়তার সম্পর্কের সুবাদে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সেলিম প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন চাকরি পেলে বিয়ে করবেন। সম্প্রতি তিনি চাকরি পেয়েছেন। কিন্তু সেলিমের বাড়ির লোকজন ছেলেকে অন্য জায়গায় বিয়ে দেওয়ার জন্য পাত্রী দেখছেন।

বিষয়টি জানতে পেরে ওই তরুণী সেলিমের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। সেলিম তাকে তার বাড়িতে এসে উঠতে বলেন। গত ১৬ নভেম্বর তিনি বাড়িতে উঠলে সেলিমের বাড়ির লোকজন তাকে মারধর করেন। তারপরও তিনি বাড়ি ছেড়ে না যাওয়ায় এবং গ্রামের লোকজন ভিড় করায় সেলিম ও তার বাড়ির লোকজন গাঢাকা দেন। এরপর থেকে ওই বাড়িতেই অবস্থান করছেন ওই তরুণী।

ভুক্তভোগী তরুণী বলেন, ‘আমরা গরিব হলেও মানসম্মান আছে। এখন বাড়ি গিয়ে আমি মুখ দেখাবো কী করে? সেলিম আমাকে বিয়ে না করলে আমি আত্মহত্যা করবো।’

এ ব্যাপারে প্রেমিক সেলিমের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে সংযোগ কেটে দেন।

আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন আলী বলেন, বিষয়টি তারা শুনেছেন। তবে কোনো লিখিত অভিযোগ পাননি। বিষয়টি সামাজিকভাবে সমাধানের পরামর্শ দেন তিনি।

বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সবুর আলী বলেন, তিনি ঘটনাটি শুনেছেন। সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান এবং ওয়ার্ড মেম্বারকে বিষয়টি সমাধান করে দেওয়ার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

আমিন ইসলাম জুয়েল/এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]