বড় ভাই নৌকার প্রার্থী, ছোট ভাই বিদ্রোহী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বগুড়া
প্রকাশিত: ০৪:৩০ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০২১

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটরা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আপন দুই ভাই মনোনয়নপত্র জমা দিলেন। যা ওই ইউনিয়নে ভোটের মাঠে আলাদা মাত্রা যোগ করেছে। এছাড়া উপজেলার চারটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ১৯ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, দুই সহোদরের একজন বর্তমান চেয়ারম্যান ও ভাটরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোরশেদুল বারী এবারও নৌকার প্রার্থী হয়েছেন। আরেকজন ভাটরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য মজনুর রহমান মজনু বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ভোটের মাঠে দুই ভাইকেই শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে দেখছেন ভোটার ও এলাকাবাসী।

নৌকা প্রতীক নিয়ে আগেরবারও চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন মোরশেদুল বারী। দীর্ঘদিন আওয়ামী লীগের দখলে থাকা এলাকায় নৌকার যথেষ্ট প্রভাব আছে। এ কারণেই আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের সম্ভাবনা দেখছেন ভোটাররা।

ভোটারদের মতে, দুই ভাইয়ের মধ্যে থেকেই নির্বাচিত হচ্ছেন ভবিষ্যৎ চেয়ারম্যান। দুই ভাইয়ের লড়াই এখন পুরো উপজেলায় আলোচনার বিষয়বস্তুতে পরিণত হয়েছে। চায়ের দোকানের আড্ডা থেকে পাড়া-মহল্লায় একই আলোচনা।

এদিকে একই ইউনিয়নে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল্লাহেল বাকীও মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন। দুই ভাইয়ের কোন্দলের সুযোগ কাজে লাগিয়ে নির্বাচনে বিজয় অর্জনের কৌশলে মাঠে নেমেছেন তিনি।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোরশেদুল বারী বলেন, আমি বিগত সময়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে ভাটরা ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। সবসময় সুখে-দুঃখে মানুষের পাশে থেকেছি। আমি শতভাগ আশাবাদী ভোটাররা এবারও নৌকায় ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করবে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মজনুর রহমান মজনু বলেন, এলাকার উন্নয়ন চাইলে মজনুর বিকল্প নেই। ভোটাররা আমার সঙ্গে আছে। আমি অবশ্যই নির্বাচিত হবো।

নন্দীগ্রাম উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আব্দুস সালাম জাগো নিউজকে বলেন, চতুর্থ ধাপের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ২৯ নভেম্বর, বাছাইয়ের বিরুদ্ধে আপিল ৩০ নভেম্বর থেকে ২ ডিসেম্বর, আপিলের নিষ্পত্তি ৩-৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ৬ ডিসেম্বর, প্রতীক বরাদ্দ ৭ ডিসেম্বর এবং ২৬ ডিসেম্বর ব্যালট পেপারের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এসজে/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]