২২ বছর পর মেয়র পদ হারালেন আব্দুল বাতেন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০৯:০১ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২১

পাবনার বেড়া পৌরসভায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আশিফ শামস রঞ্জন। তিনি পেয়েছেন ২১ হাজার ৮৮৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী (নারিকেল গাছ প্রতীক) আব্দুল বাতেন পেয়েছেন ৩ হাজার ৬৬০ ভোট। একটানা ২২ বছর পর মেয়র পদ হারালেন বাতেন। আশিফ শামস রঞ্জনের আপন চাচা তিনি।

জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান এতথ্য নিশ্চিত করেন।

অন্য তিন প্রার্থীর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী এএইচএম ফজলুর রহমান মাসুদ (রেলইঞ্জিন) পেয়েছেন তিন হাজার ৪৭৯, কে এম আব্দুল্লাহ (জগ) ৮১৭ এবং সাদিয়া আলম (মোবাইল ফোন) পেয়েছেন ২২৫ ভোট।

সম্প্রতি আব্দুল বাতেনকে নানা কারণ দেখিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় তাকে দল থেকেও বহিষ্কার করা হয়। তিনি বাংলাদেশ মিউনিসিপ্যালিটি অ্যাসোসিয়েশনেরও সভাপতি ছিলেন।

বিজয়ী মেয়র আশিফ শামস রঞ্জন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ও পাবনা-১ আসনের এমপি শামসুল হক টুকুর ছেলে। বাতেন শামসুল হক টুকুর ছোট ভাই।

নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বেড়া পৌরসভার ১০টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার ৪২ হাজার ৮১৮। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২১ হাজার ৭৮২ ও নারী ভোটার ২১ হাজার ৩৬। ১৮টি ভোটকেন্দ্রের ১৪২টি বুথে ইভিএমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বিজয়ী আশিফ শামস রঞ্জন বলেন, সবার দোয়া ও ভালোবাসার প্রতিদানস্বরূপ আমি মেয়র নির্বাচিত হতে পেরেছি। এজন্য বেড়া পৌরবাসীর প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রক্ষায় চেষ্টা থাকবে বলে জানান তিনি।

একইদিন পাবনার চাটমোহর উপজেলার ১১টি, ঈশ্বরদী উপজেলার সাতটি ও সাঁথিয়া উপজেলার আটটি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আমিন ইসলাম জুয়েল/এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]ail.com