রূপপুরে নিউক্লিয়ার ডে উদযাপন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পাবনা
প্রকাশিত: ০৯:৪৮ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২১

পাবনার ঈশ্বরদীতে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে ‘নিউক্লিয়ার ডে’ উদযাপন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে দিবসটি উদযাপন করা হয়।

বাংলাদেশের পরমাণু ক্লাবে প্রবেশের দিনটিকে স্মরণ করে নিউক্লিয়ার ডে হিসেবে পালন করে আসছে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিল শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

প্রকল্পের প্রবেশপথ ১ নম্বর গেট চত্বরে দিনব্যাপী ‘নিউক্লিয়ার ডে-২০২১’ উপলক্ষে আয়োজিত কর্মসূচির উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। তিনি রঙিন ও সাদা রঙের পায়রা উড়িয়ে উৎসবের বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় অংশ নেন। এর আগে স্বাগত বক্তব্য দেন নিউক্লিয়ার পাওয়ার কোম্পানি বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও রূপপুর পারমানবিক প্রকল্প পরিচালক ড. শৌকত আকবর। শোভাযাত্রাটি রূপপুর মোড় ঘুরে প্রকল্পের ভেতরে আলোচনা সভাস্থলে এসে শেষ হয়।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মো. সানোয়ার হোসেন, ঈশ্বরদী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ঈশ্বরদী সার্কেল) ফিরোজ কবির, রূপপুর প্রকল্পের সাইট ইনচার্জ এবিএম রুহুল কুদ্দুসসহ প্রকল্প সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

jagonews24

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ১২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন ভিভিইআর-১২০০ মডেলের দুটি পারমাণবিক চুল্লি স্থাপন করা হবে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প এলাকায়। রাশিয়ার পারমাণবিক সংস্থা রোসাটমের ডিজাইন এবং তাদের আর্থিক ও কারিগরি সহযোগিতায় দেশের প্রথম এ পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ করছে বাংলাদেশ।

১২ দশমিক ৬৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগে ঢাকা থেকে ১৬০ কিলোমিটার দূরে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার রূপপুরে এ প্রকল্প বাস্তবায়নের মহাযজ্ঞ চলছে। ২০১৫ সালে বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে আনুষ্ঠানিক চুক্তি সম্পন্ন হওয়ার পর থেকে দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে দেশের প্রথম ও ব্যয়বহুল এ বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের প্রথম রিয়্যাক্টর বিল্ডিংয়ে যন্ত্রপাতি স্থাপনের কাজ সম্প্ন্ন হয়েছে। একইসঙ্গে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের দ্বিতীয় ইউনিটের নির্মাণ কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলছে।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের পরিচালক ড. শৌকত আকবর বলেন, ‘দেশের সর্ববৃহৎ এ প্রকল্পের কাজ নিরবচ্ছিন্নভাবে এগিয়ে চলছে। দেশের প্রথম এ পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ শেষ হলে দেশে বিদ্যুতের চাহিদা পূরণে বিরাট ভূমিকা রাখবে।’

jagonews24

তিনি আরও বলেন, চুক্তি অনুযায়ী প্রকল্পের কাজ ঠিক পথে এগিয়ে চলেছে। ২০২৩ সালে প্রথম ইউনিট থেকে ১২০০ মেগাওয়াট ও পরের বছর দ্বিতীয় ইউনিট থেকে আরও ১২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, ‘রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প বাংলাদেশের গর্বের একটি প্রকল্প। এ প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশ বিশ্ব দরবারে নিউক্লিয়ার ক্লাবের সদস্য হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে।’

আমিন ইসলাম জুয়েল/এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]