বাবার জন্য ছেলে ছাড়লেও ভাইয়ের প্রতিদ্বন্দ্বী রয়ে গেলেন ভাই

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ০৯:১৬ এএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার বানা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাবা হাদী হুমায়ুন কবীর বাবুকে ছাড় দিয়েছেন তার ছেলে হাদী ইমতিয়াজ কবীর শামীম। তবে একই ইউনিয়নে আপন দুই ভাই চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে অংশ নিচ্ছেন। মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনেও দুই ভাইয়ের কেউ মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে এ ছাড় দেন হাদী ইমতিয়াজ কবীর শামীম। তবে একই ইউনিয়নে আপন দুই ভাই চেয়ারম্যান পদে (বিদ্রোহী-স্বতন্ত্র) প্রার্থী হিসেবে উপজেলার কঠুরাকান্দী গ্রামের বাসিন্দা ও কৃষক লীগ নেতা মো. হারুন-অর-রশিদ শরীফ ও তার আপন ছোট ভাই মো. নজরুল ইসলাম শরীফ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাবা-ছেলে ও দুই ভাই চেয়ারম্যান পদে গত ২৫ নভেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেন। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে ২৯ নভেম্বর বানা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মো. হারুন-অর-রশিদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। পরবর্তীতে আপিল করে তিনি প্রার্থিতা ফিরে পান। অপর তিনজনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন অফিসার শামীম আহমাদ।

মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেওয়া হাদী ইমতিয়াজ কবীর শামীম বলেন, বাবার জন্য নয়, মূলত নৌকা প্রতীকের জন্য মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছি।

তবে চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. হারুন-অর-রশিদ শরীফের ভাষ্য, স্বাধীন দেশের প্রত্যেকেরই আলাদা মতামত ও সিদ্ধান্ত আছে। আমি নির্বাচন করবো। আমার ভাই নজরুল ইসলাম শরীফও নির্বাচন করবে। সে মনোনয়ন প্রত্যাহার না করলে আমার কী করার আছে। এটা তার ব্যক্তিগত মতামত ও সিদ্ধান্তের বিষয়।

আলফাডাঙ্গা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা শামীম আহমাদ বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এখন ওই ইউনিয়নে আটজন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিনে বানা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে অংশগ্রহণকারী স্বতন্ত্র প্রার্থী হাদী ইমতিয়াজ কবীর ও পাঁচুড়িয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে অংশগ্রহণকারী স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ইকবাল হোসেন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। এছাড়াও বানা ও পাঁচুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সাধারণ সদস্য পদে তিনজন করে ছয়জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে। ২৬ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ভোটগ্রহণ।

এন কে বি নয়ন/এফএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]