স্বামীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করে কারাগারে স্কুলশিক্ষিকা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বরগুনা
প্রকাশিত: ০৮:১৮ পিএম, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১
প্রতীকী ছবি

বরগুনায় স্বামীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করায় মাহমুদা খাতুন নামের এক নারীকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) এ আদেশ দেন বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান।

আসামি মাহমুদা খাতুন মায়া বরগুনা সদর উপজেলার আমতলী গ্রামের মতিয়ার রহমানের প্রথম স্ত্রী। তিনি স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা।

আদালত সূত্র জানায়, মতিয়ার দ্বিতীয় বিয়ে করায় স্বামীর বিরুদ্ধে পাঁচটি মামলা করেন মায়া। মঙ্গলবার বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা মিথ্যা প্রমাণিত হলে ট্রাইব্যুনালের বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

মামলায় মায়া অভিযোগ করেন, স্বামী মতিয়ার রহমান যৌতুক হিসেবে ৫ লাখ টাকা দাবি করেন। মায়া যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় মতিয়ার তাকে মারধর করেন এবং বিভিন্ন রকম ওষুধ খাইয়েছেন যেন তার সন্তান জন্ম না হয়।

স্বামী মতিয়ার রহমান বলেন, ‘মায়ার সন্তান না হওয়ায় আমি তার কাছ থেকে অনুমতি নিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করি। বিয়ের পর থেকে সে আমার বিরুদ্ধে পাঁচটি মিথ্যা মামলা করেছে। সে আমার জীবনটা শেষ করে দিয়েছে। তার করা মিথ্যা মামলার কারণে আমি চাকরি থেকে বরখাস্ত পর্যন্ত হয়েছি।’

মতিয়ার রহমানের আইনজীবী ওয়াসি মতিন এতথ্য নিশ্চিত করে বলেন, মতিয়ার রহমানের বিরুদ্ধে তার স্ত্রী মায়া পাঁচটি মিথ্যা মামলা করে হয়রানি করছেন। তিনি কিছু মামলায় খালাস পেয়েছেন। আশা করি বাকিগুলোতেও খালাস পাবেন।

এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]