আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীর মৃত্যুতে মেহেন্দীগঞ্জে শোকের ছায়া

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৮:৩০ পিএম, ১৯ মে ২০২২
আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী

বিশিষ্ট সাংবাদিক, গীতিকার, কলামিস্ট ও সাহিত্যিক আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীর মৃত্যুতে তার জন্মস্থান বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) দুপুরে গাফ্ফার চৌধুরীর মৃত্যুর খবর মেহেন্দীগঞ্জে ছড়িয়ে পড়ে। এরপর উপজেলার উত্তর উলানিয়ায় তার পৈতৃক বাড়িতে লোকজন ভিড় করতে থাকেন। স্বজন ও শুভানুধ্যায়ীরা শেষবারের মতো তাদের প্রিয় মানুষটির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য উদগ্রীব হয়ে আছেন।

আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী ১৯৩৪ সালের ১২ ডিসেম্বর বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জের উলানিয়ার চৌধুরীবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা ওয়াহিদ রেজা চৌধুরী ও মা জহুরা খাতুন।

গাফ্ফার চৌধুরীর আত্মীয় ও উলানিয়ার চৌধুরীবাড়ির বাসিন্দা আকবর চৌধুরী বলেন, আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীর পরিবারের কোনো সদস্য বর্তমানে সেখানে থাকেন না। তবে তার আত্মীয়-স্বজনরা রয়েছেন। আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী শেষবার গ্রামের বাড়িতে এসেছিলেন ২০১২ সালে। গাফ্ফার চৌধুরী উলানিয়া জুনিয়র মাদরাসা ও উলানিয়া করোনেশন হাইস্কুলে লেখাপড়া করেছেন। করোনেশন হাইস্কুল শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে তিনি শেষবার মেহেন্দীগঞ্জে এসেছিলেন। তখন দেখা ও কথা হয়েছে।

তিনি বলেন, গাফ্ফার চৌধুরী বাড়িতে আসলে গ্রামের অনেকেই তার কাছে বিভিন্ন প্রয়োজনে কথা বলতে এসেছেন। তিনিও সাধ্যমতো সবার জন্য চেষ্টা করতেন। আমরা একজন কাছের মানুষকে হারিয়েছি।

আকবর চৌধুরী বলেন, গাফ্ফার চৌধুরীর মৃত্যুর খবর শুনে অনেকেই সান্ত্বনা জানাতে আসছেন। তারা তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছেন। পাশাপাশি কোথায় তার দাফন হবে বা গ্রামের বাড়িতে মরদেহ আনা হবে কি না জানতে চাচ্ছেন।

তিনি আরও বলেন, দুপুরে লন্ডনে থাকা তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মুঠোফোনে আমার কথা হয়েছে। তখন তারা শোকে কাতর ছিলেন। তার মরদেহ কখন দেশে আনা হবে বা গ্রামের বাড়িতে আনা হবে কি না তা জানা সম্ভব হয়নি।

উত্তর উলানিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল ইসলাম জামাল মোল্লা বলেন, সাংবাদিক ও কলামিস্ট আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী আমাদের গর্ব ছিলেন। গ্রামের মানুষের কাছে একজন সদালাপী মানুষ হিসেবে তার সুনাম রয়েছে। তার মৃত্যুতে বিরাট শূন্যতা তৈরি হয়েছে। এই শূন্যতা সহজে পূরণ হবে না।

তিনি বলেন, আবদুল গাফ্ফার চৌধুরীর মৃত্যুতে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে জরুরি সভা ডাকা হয়েছে। স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সঙ্গে আলোচনা করে শোক কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

এর আগে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা ৪০ মিনিটে লন্ডনে চিকিৎসাধীন মারা যান আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী। একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক স্বদেশ রায় জাগো নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সাইফ আমীন/এমআরআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]