বিয়ের প্রলোভনে কর্মচারীকে ধর্ষণের অভিযোগ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বান্দরবান
প্রকাশিত: ০৬:০৮ পিএম, ২৫ মে ২০২২

বিয়ের প্রলোভনে অধীনস্থ কর্মচারীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বান্দরবান ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক মীর মোহাম্মদ নেয়ামত উল্লার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মামলা করেছেন ওই নারী।

বুধবার (২৫ মে) বাদীপক্ষের আইনজীবী দীপংকর দাশ গুপ্ত জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলা ও আইনজীবী সূত্র জানায়, ধর্ষণের শিকার ওই নারী ইসলামিক মিশনের সেলাই প্রশিক্ষক। তার চাকরি ও সরলতার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে পবিত্র কোরআন ছুঁয়ে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দেন মীর মোহাম্মদ নেয়ামত উল্লাহ। পরে ২০১৯ সালের ৪ জুলাই বিকেল ৫টায় বান্দরবান ইসলামিক ফাউন্ডেশন কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন। পরবর্তী বিভিন্ন সময় ওই কক্ষে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন নেয়ামত উল্লা।

গত ১০ মার্চ বিয়ের কথা বললে নেয়ামত উল্লাহ অস্বীকৃতি জানান। পরে ২৩ মে বান্দরবান নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ করেন ওই নারী।

অভিযোগ আমলে নিয়ে বান্দরবান টুরিস্ট পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) তদন্তের নির্দেশ দেয় ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ সাইফুর রহমান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মীর মোহাম্মদ নেয়ামত উল্লা জাগো নিউজকে বলেন, ওই নারীর সঙ্গে তিনি এ ধরনের কিছু করেননি। ইচ্ছাকৃতভাবে তাকে ফাঁসানো হচ্ছে।

বান্দরবান টুরিস্ট পুলিশের ওসি জাহাঙ্গীর আলম জাগো নিউজকে বলেন, ‘আদালতের আদেশপত্র এখনো পর্যন্ত হাতে পাইনি। পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

নয়ন চক্রবর্তী/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]