বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার ট্রলার থেকে ৬ রোহিঙ্গাসহ আটক ১৫

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি মোংলা (বাগেরহাট)
প্রকাশিত: ০৪:০২ পিএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

বঙ্গোপসাগরের বাংলাদেশ-ভারত জলসীমার কাছাকাছি এলাকায় মাছ ধরার ট্রলার থেকে ছয় রোহিঙ্গা ও ৯ জেলেকে আটক করেছে নৌবাহিনী।

ছয় রোহিঙ্গা হলেন- উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্পের মৃত এজাহার মিয়ার ছেলে নুর আলম (৪০) ও মৃত ইমান হোসেনের ছেলে আলী জোহার (২৮)। আর টেকনাফের লেদা ক্যাম্পের মোহাম্মদ আলমের ছেলে জাহিদ আলম (৩৫), মৃত ইমান হোসেনের ছেলে জুবায়ের (৩০), ধলু হোসেনের ছেলে কামাল হোসেন (২৩), ফজল আহম্মদের ছেলে ইয়াসির (২৫)।

৯ জেলে হলেন- শাহালম মিস্ত্রি (৫০), নুরুল আলম (৪৫), নুর হোসেন (৩৭), জাকের হোসেন (৩২), হালেম (৪৮), হারুন (৩৫), মনির হোসেন (৪৭), জাকির হোসেন (৩২) ও আলাউদ্দিন (৪৫)। এদের বাড়ি নোয়াখালী ও ভোলার বিভিন্ন এলাকায়।

মোংলার দিগরাজ ঘাঁটির নৌবাহিনীর গোয়েন্দা সূত্র জানায়, রোববার দিনগত রাত ৩টার দিকে ছয়টি ট্রলার বাংলাদেশ জলসীমা অতিক্রম করে ভারতের দিকে যাচ্ছিল। তখন বঙ্গোপসাগরে টহলরত নৌবাহিনীর জাহাজ ‘বানৌজা গোমতি’ ওই ট্রলারগুলোর গতিরোধের চেষ্টা করে। ট্রলারগুলো দ্রুত গতিতে ছুটতে থাকলে ৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে নৌবাহিনী।

এ সময় পাঁচটি ট্রলার এদিক ওদিক চলে গেলেও ‘মা-বাবার দোয়া’ নামের একটি ট্রলারকে সোমবার ভোর ৬টার দিকে আটক করা হয়। পরে ওই ট্রলারে থাকা ছয় রোহিঙ্গা ও নয় জেলেকে আটক করা হয়। রোহিঙ্গারা ট্রলারটিতে মাছ ধরার জন্য অবৈধভাবে অবস্থান করছিল। তাদের মোংলা থানায় হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

মোংলা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, নৌবাহিনীর হাতে আটক ছয় রোহিঙ্গা ৯ জেলেকে পুলিশে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। এদের মধ্যে কোনো ভারতীয় জেলে নেই। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আবু হোসাইন সুমন/এসজে/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।