শার্শায় এমপি আফিলের জুটমিলে অগ্নিকাণ্ড

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বেনাপোল (যশোর)
প্রকাশিত: ০৫:৪৩ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০২২

যশোরের শার্শায় সংসদ সদস্য (এমপি) শেখ আফিল উদ্দিনের মালিকানাধীন আফিল জুট উইভিং মিলে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে প্রায় শতকোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি কর্তৃপক্ষের।

এসময় কারখানার কয়েকজন শ্রমিক আহত হয়েছেন। আহতদের শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালসহ আশেপাশের ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

শার্শায় এমপি আফিলের জুটমিলে অগ্নিকাণ্ড

শনিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুর ১টার দিকে বৈদ্যুতিক শট সার্কিট থেকে আগুণের সূত্রপাত বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সাতটি ইউনিট দুই ঘণ্টা চেষ্টার পর বিকেল ৩টার দিকে আগুণ নিয়ন্ত্রণে আনে।

মিলের কয়েকজন শ্রমিক জানান, তারা সবাই কাজ করছিলেন। হঠাৎ করে মিলের মধ্যে দাউদাউ করে আগুণ জ্বলতে দেখে তারা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। কিছুক্ষণের মধ্যে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা এসে আগুন নেভাতে শুরু করেন।

শার্শায় এমপি আফিলের জুটমিলে অগ্নিকাণ্ড

তারা আরও জানান, আগুনে অনেক শ্রমিক আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে পাঠানো হয়েছে।

বেনাপোল ফায়ার ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক মনোরঞ্জন অগ্নিকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আগুনের খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে কাজ শুরু করি। পরে অন্য ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা এসে আমাদের সঙ্গে যোগ দেন।

তিনি বলেন, ফায়ার সার্ভিসের সাতটি ইউনিট দুই ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। বৈদ্যুতিক শট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

শার্শায় এমপি আফিলের জুটমিলে অগ্নিকাণ্ড

বেনাপোল ফায়ার ফায়ার সার্ভিসের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, তদন্ত না করে ক্ষয়ক্ষতির হিসাব বলা না গেলেও শতকোটি অনুমান করা হচ্ছে। প্রচুর পাট পুড়ে গেছে। মেশিনপত্র পুড়ে নষ্ট হয়েছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। বেশ কয়েকজন শ্রমিক আহত হয়েছেন।

আফিল উইভিং জুট মিলের জেনারেল ম্যানেজার আহাদ আলী বলেন, হঠাৎ করে মিলের মধ্য থেকে ধোয়া দেখা যায়। আস্তে আস্তে মিলের চারদিকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ তাৎক্ষণিকভাবে বলা যাচ্ছে না। তবে মিলে থাকা মেশিনারিজসহ শতকোটি টাকার অধিক মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

মো. জামাল হোসেন/এমআরআর/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।