রোগী দেখতে হাসপাতালে বাবা-মা, খাটের নিচে মিললো ছেলের মরদেহ

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি বেনাপোল (যশোর)
প্রকাশিত: ০৯:০৯ এএম, ২৮ নভেম্বর ২০২২

যশোরে নিজ ঘরের খাটের নিচ থেকে রাহুল হোসেনের (১২) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মা সার্জিনা বেগম বাইরে থেকে ফিরে খাটের নিচে ছেলের মরদেহ দেখতে পান।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালী ইউনিয়নের বামনালী সায়েমপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মৃত রাহুলের চাচা রাহাজান আলী বলেন, রাহুল স্থানীয় কাওরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র ছিল। তার বড় বোন রবিলা খাতুনের সন্তান ঝিকরগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। মা সার্জিনা বেগম সেখানেই আছেন কয়েকদিন ধরে। শনিবার সকালে বাবা শাহজাহান আলী রাহুলকে বাড়ি রেখে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান। দুপুর আড়াইটার দিকে মা ও বাবা বাড়ি ফিরে ছেলে রাহুলকে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে বিছানা করার সময় দেখতে পান ছেলে রাহুল খাটের নিচে মৃত অবস্থায় পড়ে আছে। মায়ের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে খাটের নিচ থেকে মরদেহ বের করে আনেন। এসময় খবর পেয়ে ঝিকরগাছা থানা পুলিশের এসআই সুমন বিশ্বাস গভীর রাতে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করেন।

রোববার মরদেহ যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। রাহুলের মৃত্যুর কারণ অনুমান করতে পারছেন না তার পরিবারের সদস্য ও পুলিশ। শিশুটির মৃত্যুতে পরিবারের সবাই বাকরুদ্ধ হয়ে গেছেন।

ঝিকরগাছা থানার এসআই সুমন বিশ্বাস বলেন, মৃত রাহুলের মুখে ও দাঁতে রক্ত, বাম হাতের কনুই এবং আঙ্গুলের পাশে ছেঁচড়ে যাওয়ার দাগ রয়েছে। ঘটনার রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে। ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের সদস্যরা মরদেহ বাড়িতে নিয়ে গেছেন।

মো. জামাল হোসেন/জেএস/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।