মেয়র লিটন

সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ করতে বিএনপির আপত্তির কারণ জানা আছে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি চাঁপাইনবাবগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৮:৪৫ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করতে বিএনপির আপত্তির কারণ জানা আছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।

তিনি বলেন, তারা নয়াপল্টনে সমাবেশ করতে নানারকম টালবাহানা করছে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে স্বাধীনতার পক্ষের জায়গা মনে করে বিএনপি।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

মেয়র লিটন বলেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আত্মসমর্পণ করে। বিএনপির জন্য এসব বিষয় মানা খুবই কষ্টকর। তাই তারা সোহরাওয়ার্দী উদ্যান বাদ দিয়ে অন্য জায়গায় সমাবেশ করতে চায়। আমি বিশ্বাস করি, তাদের শুভ বুদ্ধির উদয় হবে এবং সংঘাত এড়িয়ে শান্তিপূর্ণ সমাবেশের আয়োজন করবে।

এর আগে সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কৃষক লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, ধাওয়া পাল্টা দাওয়া ও ককটেল বিস্ফোরণে সম্মেলন পণ্ড হয়। পরে সার্কিট হাউজে সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্বে নেতাকর্মীদের সিদ্ধান্তে জেলা কৃষকলীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কৃষক লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে কয়েক দফায় সংঘর্ষ, মারধর ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনার বিষয়ে আ.লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারীরাই এমন ঘটনার জন্য দায়ী। আওয়ামী লীগকে বিতর্কিত করতে ও নিজেদের অবস্থান জানাতেই এমন গর্হিত কাজ করছে বিএনপি-জামায়াত থেকে আসা অনুপ্রবেশকারীরা। তবে তাদের ষড়যন্ত্র রুখে দিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। বর্তমানে সবাই ঐক্যবদ্ধ আছে। দলে কোনো ভেদাভেদ নেই।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুহা. জিয়াউর রহমান, সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওদুদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ডা. শামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোখলেসুর রহমান।

সোহান মাহমুদ/এসজে/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।