কক্সবাজারের সড়ক উন্নয়নে ২৭৪ কোটি টাকা অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১৮ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০২০
ফাইল ছবি

কক্সবাজার জেলার একতাবাজার থেকে বানৌজা শেখ হাসিনা ঘাঁটি পর্যন্ত সড়ক উন্নয়নের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে সরকার। এ জন্য দুটি প্যাকেজে পূর্ত কাজের প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে। ২৭৩ কোটি ৮৪ লাখ ৮৩ হাজার টাকা ব্যয়ে এ সড়ক উন্নয়ন করা হবে।

বুধবার (২১ অক্টোবর) অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় (ভার্চুয়াল) এ অনুমোদন দেয়া হয়।

বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে (ভার্চুয়াল) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. আবু সালেহ মোস্তফা কামাল এ তথ্য জানান।

অতিরিক্ত সচিব জানান, সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের ‘কক্সবাজার জেলার একতাবাজার হতে বানৌজা শেখ হাসিনা ঘাঁটি পর্যন্ত সড়ক উন্নয়ন’ প্রকল্পের একটি প্যাকেজে পূর্ত কাজের জন্য রানা বিল্ডার্স, ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ার্স এবং জামিল ইকবাল প্রতিষ্ঠানকে ১৩৫ কোটি ৯২ লাখ ২৪ হাজার ৮২০ টাকায় প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়।

এ প্যাকেজে পূর্ত কাজগুলো হলো- এক দশমিক ৯১০৮২৭৩ লাখ ঘনমিটার সড়ক বাঁধে মাটির কাজ, শূন্য দশমিক ৪ কি.মি বাঁক সরলীকরণ, ৬ দশমিক ৫৪ কিলোমিটার পেভমেন্ট শক্তিশালীকরণ ও প্রশস্তকরণ, ৫ দশমিক ৭৬ কিলোমিটার পেভমেন্ট শক্তিশালীকরণ, প্রশস্তকরণ ও উঁচুকরণ, শূন্য দশমিক ৭০ কিলোমিটার রিজিভ পেভমেন্ট, আরসিসি বক্স কালভার্ট ৪টি, ইন্টারসেকশন ৩টি, আরসিসি সসার ড্রেন ইত্যাদি নির্মাণ।

একই প্রকল্পের আরেকটি প্যাকেজে পূর্ত কাজের জন্য সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ার্স জামিল ইকবাল এবং হাসান টেকনো বিল্ডার্সকে ১৩৭ কোটি ৯২ লাখ ৫৮ হাজার ৯২৭ টাকায় প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়।

এ প্যাকেজে পূর্ত কাজগুলো হলো- এক দশমিক ৯২৯১৬২৫ লাখ ঘনমিটার সড়ক বাঁধে মাটির কাজ, ৩ দশমিক ৫ কিলোমিটার নতুন পেভমেন্ট, শূন্য দশমিক ৪ কিলোমিটার বাঁক সরলীকরণ, ৫ দশমিক ৪০ কিলোমিটার পেভমেন্ট শক্তিশালীকরণ ও প্রশস্তকরণ, শূন্য দশমিক ৩০ কিলোমিটার রিজিভ পেভমেন্ট, আরসিসি বক্স কালভার্ট ৫টি, আরসিসি ড্রেনেজ সুইস গেট ২টি, ইন্টারসেকশন একটি, আরসিসি সসার ড্রেন, সাইন-সিগন্যাল, গাইড পোস্ট, রোড মার্কিং ইত্যাদি নির্মাণ।

এমইউএইচ/এফআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]