প্রমোদতরীর মার্কিন যাত্রীদের ফেরাতে বিমান পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:২৫ পিএম, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

জাপানের ইয়োকোহামা বন্দরে কোয়ারেন্টাইনে থাকা ডায়মন্ড প্রিন্সেস প্রমোদতরী থেকে মার্কিন নাগরিকদের ফিরিয়ে নেবে যুক্তরাষ্ট্র। জাহাজটিতে আটকে পড়া ৩৮০ মার্কিনিকে নিজ দেশে ফেরাতে দুটি বিশেষ বিমান পাঠানো হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোলের (সিডিসি) প্রিপেয়ার্ডনেস অ্যান্ড ইমার্জিং ইনফেকশনস বিভাগের পরিচালক হেনরি ওয়ালকে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে জানান, আগামী রোববারের মধ্যেই জাপানের প্রমোদতরীর মার্কিন যাত্রীদের ফেরাতে দুটি বিশেষ বিমান পাঠানো হবে।

করোনাভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার লক্ষণ নেই এমন সব যাত্রীকেই বিমানে ওঠানো হবে। তাদের নিয়ে বিমানগুলো ক্যালিফোর্নিয়া অবতরণ করবে। চীনের উহানফেরত নাগরিকদেরও এই পথে ফিরিয়ে নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে দেশে ফেরার পর অন্তত ১৪ দিন সবাইকে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

গত ৪ ফেব্রুয়ারি ইয়োকোহামা বন্দরে পৌঁছার পর থেকেই কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে ব্রিটিশ প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেস। এখন পর্যন্ত এর ২১৯ যাত্রীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তাদের স্থানীয় হাসপাতালে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। বাকি সাড়ে তিন হাজার যাত্রী এখনও জাহাজেই আটকে আছেন।

প্রমোদতরীতে থাকা হংকংফেরত এক যাত্রীর শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়ার পরপরই জাহাজটিকে কোয়ারেন্টাইনে রাখার সিদ্ধান্ত হয়। এর কোয়ারেন্টাইনের সময়সীমা শেষ হবে আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানে প্রথমবারের মতো ধরা পড়ে নভেল করোনাভাইরাস। এখন পর্যন্ত এটি বিশ্বের অন্তত ২৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। বিশ্বজুড়ে এতে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৭ হাজারেরও বেশি মানুষ। শুধু চীনেই এ ভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন ১ হাজার ৫২৩ জন

জাপানের সরকারি হিসাবে দেশটিতে এখন পর্যন্ত অন্তত ৪০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে মারা গেছেন একজন। প্রিন্সেস ডায়মন্ড প্রমোদতরীর যাত্রীরা জাপানে পা রাখার আগেই ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন বলে তারা সরকারি হিসাবে যুক্ত হচ্ছেন না।

সূত্র: ফোর্বস

কেএএ/এমএস