অভিজিৎ হত্যা : পুরস্কার ঘোষিত আসামি আরাফাত রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:১২ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭
অভিজিৎ হত্যা : পুরস্কার ঘোষিত আসামি আরাফাত রিমান্ডে
ছবি-ফাইল

লেখক অভিজিৎ রায় হত্যা মামলার আসামি ও নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) অপারেশন (অপস) শাখার সদস্য আরাফাত রহমানের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। শনিবার আরাফাতকে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। এসময় সুষ্ঠু তদন্তের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম একেএম মঈদ উদ্দিন সিদ্দকী পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে শুক্রবার রাতে ঢাকার সাভার থানাধীন আমিন বাজারের বরদেশী এলাকা থেকে ঢাকা জেলা ডিবি পুলিশের (উত্তর) সহায়তায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমান জানান, ‘আরাফাত জানিয়েছে, সংগঠনের বড় ভাইয়ের (মেজর জিয়া) নির্দেশে এবং পরিচালনায় এ হত্যাকাণ্ডে তারা অংশ নিয়েছিলেন। জুলহাস-তনয়, নিলয় ও দীপন’ হত্যাকাণ্ডে অংশগ্রহণ করেছিল বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে গ্রেফতার হওয়া আরাফাত। তাকে গ্রেফতারে ডিএমপি দুই লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছিল। তার সাংগঠনিক নাম সিয়াম ওরফে সাজ্জাদ।’

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি বইমেলা থেকে বের হওয়ার পথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় ব্লগার অভিজিৎ রায়কে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ওই ঘটনায় গুরুতর আহত হন অভিজিতের স্ত্রী রাফিদা আহমেদ। পরে শাহবাগ থানায় অভিজিতের বাবা অধ্যাপক ড. অজয় রায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

হত্যাকাণ্ডের কয়েকদিন পর আল-কায়েদার ভারতীয় উপমহাদেশ শাখা (একিউআইএস) ওই হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকারের খবর দেয় জঙ্গিগোষ্ঠীর ইন্টারনেটভিত্তিক তৎপরতা নজরদারি করা ওয়েবসাইট ‘সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ।’

বাংলাদেশ সরকার অবশ্য বরাবরই বলে আসছে, এসব হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠীর কোনো সম্পর্ক নেই।

জেএ/এসএইচএস/আরআইপি