কৃষি ব্যাংকের টাকা আত্মসাত : রোজবার্গ ইন্ডাস্ট্রিজ এমডির জামিন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:২৩ পিএম, ২৮ মার্চ ২০১৮
কৃষি ব্যাংকের টাকা আত্মসাত : রোজবার্গ ইন্ডাস্ট্রিজ এমডির জামিন

কৃষি ব্যাংকের প্রায় তিনশ দুই কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা দুটি মামলায় প্রধান আসামি রোজবার্গ ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. হযরত আলীকে চার সপ্তাহের জামিন দিয়েছেন চেম্বার জজ আদালত। একইসঙ্গে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে হযরত আলীকে এই সময়ের মধ্যে নিয়মিত আপিল আবেদন করতে বলেছেন আদালত।

বুধবার আপিল বিভাগের বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর চেম্বার জজ আদালত এই আদেশ দেন। আদালতে হযরত আলীর পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার রোকনউদ্দিন মাহমুদ। দুদকের পক্ষে ছিলেন সারোয়ার আহমেদ।

জাল দলিল দাখিল করে কৃষি ব্যাংকের কারওয়ান বাজার শাখা থেকে ঋণ জালিয়াতির মাধ্যমে ৩০২ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০১৭ সালের ৪ আগস্ট রাজধানীর তেজগাঁও থানায় পৃথক দুটি মামলা করে দুদক। একটি মামলায় ২৬০ কোটি ১৮ লাখ ৪ হাজার ৪৪৯ টাকা এবং আরেকটি মামলায় ৪২ কোটি ৩৮ লাখ ১৫ হাজার ৬৩৩ টাকা আত্মাসাতের অভিযোগ আনা হয়। এই মামলায় ফেয়ার ইয়ার্ন প্রসেসিং লিমিটেডের এমডি জসিম আহমেদ, রোজবার্গ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের এমডি মো. হযরত আলীসহ সাতজনকে আসামি করা হয়।

হযরত আলী ওই বছরের ৭ আগস্ট আত্মসমর্পণ করে হাইকোর্ট থেকে ছয় সপ্তাহের জামিন পান। এই জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই গত বছরের ২৬ অক্টোবর ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। ওইদিনই আদালত তাকে নিয়মিত জামিন দেন।

এই আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিভিশন আবেদন করে দুদকের আইনজীবী। হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপিতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ হযরত আলীর জামিন কেন বাতিল করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন।

পরে ওই রুলের ওপর চূড়ান্ত শুনানি শেষে গত ৮ মার্চ হাইকোর্ট জামিন বাতিল করেন এবং চার সপ্তাহের মধ্যে হযরত আলীকে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে অভিযুক্ত ব্যক্তি হাইকোর্টের আদেশ পালনে ব্যর্থ হলে তাকে গ্রেফতারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে সংশ্লিষ্ট আদালতকে বলা হয়।

হাইকোর্টের আদেশের পর গত ২২ মার্চ নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করেন হযরত আলী। এরপর নিম্ন আদালত তাকে কারাগারে পাঠান। এ অবস্থায় কারাগার থেকেই হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতির আদালতে আবেদন করেন তিনি। আদালত ওই আবেদনের শুনানি শেষে বুধবার চার সপ্তাহের জামিন মঞ্জুর করে আদেশ দেন।

এফএইচ/জেডএ/বিএ