এনটিআরসিএ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৪০ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৯

আদালতের নির্দেশনার পরও বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উর্ত্তীণ নাটোরের ৫৪ জন আবেদনকারীকে নিয়োগ না দেয়ায় বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে, আদালতের নির্দেশ পালন করে আবেদনকারী ৫৪ জনের নিয়োগ না দেয়ায় আশফাক হোসেনকে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার হাইকোর্টের বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি আশিষ রঞ্জন দাসের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে আবেদনকারীদের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. আশিকুর রহমান।

এর আগে নিয়োগ বঞ্চিত বিভিন্ন জেলার ১৮৮ জন রিট আবেদনকারীর আবেদনের শুনানি নিয়ে তাদের নিয়োগ দিতে ২০১৭ সালের ১৪ ডিসেম্বর রায় ঘোষণা করেন হাইকোর্ট। ওই রায়ে নিয়োগ বঞ্চিতদের নিয়োগ দিতে সুনির্দিষ্ট কিছু নির্দেশনাসহ আদালত রায় দেন।

কিন্তু আদালতের সে রায় সত্ত্বেও পুরাতনদের নিয়োগ না দিয়ে নতুন করে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা গ্রহণ ও অন্যদের নিয়োগ দিচ্ছে কর্তৃপক্ষ। তাই পূর্বের নিয়োগ বঞ্চিত ১৮৮ জন রিট আবেদনকারীর মধ্যে মো. জাহাঙ্গীর আলমসহ ৫৪ জন শিক্ষক নিবন্ধনের সনদধারী হাইকোর্টে আদালত অবমাননার মামলা করেন।

সোমবার সে আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) চেয়ারম্যান আশফাক হোসেনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করেন এবং চার সপ্তাহের মধ্যে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দেন।

আবেদনকারীদের মধ্যে মো. জাহাঙ্গীর আলম সাংবাদিকদের বলেন, ‘পূর্বে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের নিয়োগ না দিয়ে প্রতি বছর এনটিআরসিএ নতুন করে শুধু শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা নিয়েই যাচ্ছে এবং রিটকারীদের নিয়োগ না দিয়ে অন্যদের নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করছে। তাই আদালতের রায় থাকা সত্ত্বেও আমাদের নিয়োগ না দেয়ায় এবং আমাদের বয়স শেষ পর্যায়ে আসায় আমরা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পুনরায় আদালতের দ্বারস্থ হয়েছি। আশা করছি, রায়ের আলোকে দ্রুতই আমাদের নিয়োগ কাজ সম্পন্ন হবে।’

এফএইচ/জেএইচ/এমকেএইচ/এসজি

আপনার মতামত লিখুন :