মা-ছেলে হত্যা : সাক্ষ্য দিলেন দুই চিকিৎসক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২৭ পিএম, ২৩ জুলাই ২০১৯

রাজধানীর কাকরাইলে মা-ছেলেকে গলা কেটে হত্যা মামলায় সাক্ষ্য দিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দুই চিকিৎসক। তারা হলেন- ডা. সোহেল মাহমুদ ও ডা. নুসরাত ইসয়াসমিন।

মঙ্গলবার ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ রবিউল আলমের আদালতে তারা সাক্ষ্য দেন। সাক্ষ্য শেষে তাদের জেরা করেন আসামি পক্ষের আইনজীবীরা। আদালত পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য ২৬ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেন। মামলায় এখন পর্যন্ত ১২ জনের সাক্ষ্য শেষ হয়েছে।

আদালতের পেশকার জুয়েল আহম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

২০১৭ সালের ১ নভেম্বর সন্ধ্যায় কাকরাইলের আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলাম রোডের ৭৯/এ বাড়িতে মা শামসুন্নাহার (৪৫) ও তার ছেলে শাওনকে (ও লেভেল শিক্ষার্থী) গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

ওই ঘটনায় ২ নভেম্বর নিহত শামসুন্নাহারের ভাই আশরাফ আলী বাদী হয়ে রমনা থানায় হত্যা মামলা করেন। মামলায় নিহত শামসুন্নাহারের স্বামী আব্দুল করিম, তার দ্বিতীয় স্ত্রী শারমীন মুক্তা, শ্যালক (মুক্তার ভাই) জনিসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করা হয়। আবদুল করিম পুরান ঢাকার শ্যামবাজারের ব্যবসায়ী। তিনি আদা-রসুন-পেঁয়াজের আমদানিকারক।

মামলার পর আব্দুল করিম ও শারমীন মুক্তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়। ২০১৮ সালের ১৬ জুলাই ঢাকা মহানগর হাকিম খুরশীদ আলমের আদালতে আব্দুল করিমসহ তিনজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন রমনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আলী হোসেন।

২০১৯ সালের ৩১ জানুয়ারি ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ রবিউল ইসলাম আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

জেএ/জেএইচ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :