সাইফ স্পোর্টিংয়ের মতিন মিয়াকে চায় ইস্টবেঙ্গল

প্রকাশিত: ০২:৩০ পিএম, ১১ এপ্রিল ২০১৭
সাইফ স্পোর্টিংয়ের মতিন মিয়াকে চায় ইস্টবেঙ্গল

খবরটা জানিয়েই সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসির উদ্দীন চৌধুরী বললেন, ‘এটা কেবল আমাদের ক্লাবেরই নয়, দেশের ফুটবলের জন্যই ভালো খবর।’

খবরটি হলো এ বছর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ওঠা সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের স্ট্রাইকার মতিন মিয়াকে আগামী মৌসুমের জন্য দলে নিতে চায় ভারতের জায়ান্ট ক্লাব ইস্টবেঙ্গল। এছাড়াও ইন্ডিয়া সুপার লিগের (আইএসএল) কয়েকটি দলও নিতে চায় বাংলাদেশের এ তরুণ স্ট্রাইকারকে।

সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব কলকাতায় কন্ডিশনিং ক্যাম্প শেষ করে ফিরছে বুধবার দুপুরে। তার আগে সোমবার দলটি আরেকটি প্রীতি ম্যাচ খেলেছে ইস্টবেঙ্গল যুব দলের সঙ্গে। দুই দলের প্রথম সাক্ষাতে সাইফ স্পোর্টিং জিতেছিল ১-০ গোলে। সোমবারের ম্যাচে সাইফের গোলদাতা মতিন মিয়া। খেলেছেনও নাকি দুর্দান্ত।

‘মতিন খুব ভালো খেলেছে। মতিনের খেলা ইস্টবেঙ্গল তাদের সিনিয়র দলে আগামী মৌসুমে তাকে নিতে চায়। আইএসএলের কয়েকটি ক্লাবও মতিনের বিষয়ে কথাবার্তা বলেছে। দেখেন মতিন কোথায় ছিল, এখন কোথায়? যদি আগামী মৌসুমে মতিনকে নিতেই চায় ইস্টবেঙ্গল আমরা ছেড়ে দেবো। কারণ আমরা চাই সে আরো বড় মাপের খেলোয়াড় হোক’- বলেছেন সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসির উদ্দীন চৌধুরী।

এক সময় মতিন ছিলেন রং মিস্ত্রি। সেখান থেকে দেশের শীর্ষ প্রিমিয়ার লিগে। এখন ভারতের জায়ান্ট ইস্টবেঙ্গলের নজরও পড়েছে তার উপর, ‘আমরা তার জন্য অনেক কিছু করেছি এবং করবো। গত মৌসুমে সে আমাদের বাইন্ডিংস খেলোয়াড় ছিলো। চাইলে অল্প টাকা দিতে পারতাম তাকে; কিন্তু আমরা তাকে ১৫ লাখ টাকা দিয়েছি। দেখবেন মতিন অনেক বড় মাপের ফুটবলার হবে’- বললেন নাসির উদ্দিন চৌধুরী।

শেষ প্রীতি ম্যাচে ড্র করলেও সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব অনেক ভালো খেলেছে, ‘ওই পাঁচ ফুটবলারকে খেলাতে পারিনি। বাফুফেতে হেয়ারিং ছিল বলে তাদের সকালেই ঢাকা পাঠিয়ে দিয়েছি। ম্যাচ হয়েছে বিকেলে। ওরা খেলতে পারলে আরো ভালো ফল হতো’- জানিয়েছেন সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের এ কর্মকর্তা।

কলকাতা থেকে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব বিদায় করে দিয়েছে তাদের সার্বিয়ান কোচকে। নতুন বিদেশি কোচের সন্ধানেও নেমে পড়েছেন ক্লাব কর্মকর্তারা। ইংল্যান্ড ও অস্ট্রিয়ান দু`জন কোচের সঙ্গে আলোচনা চলছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের। সম্ভাবনায় এগিয়ে ইংলিশ কোচ।

‘আশা করি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে নতুন কোচ চূড়ান্ত হবে। দুই জনের সঙ্গে আলোচনা চলছে পারিশ্রমিক ও অন্যান্য বিষয় নিয়ে। এ সব চূড়ান্ত হলেই দলের সঙ্গে যোগ দেবেন নতুন কোচ। ইংল্যান্ডের কোচ চূড়ান্ত হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি’- বলেছেন সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসির উদ্দীন চৌধুরী।

আরআই/আইএইচএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :

এই বিভাগের সর্বশেষ