শান্তি প্রতিষ্ঠায় মহানবীর (সা.) আদর্শ প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:৪৯ পিএম, ২৭ অক্টোবর ২০২০

ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ) উপলক্ষে প্রতি বছরের মতো এবারও রাজধানীতে বিরাট জশনে জুলুস বের করে আনজুমানে রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট।

মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) সকাল ১০টায় মোহাম্মদপুর কাদেরিয়া তৈয়বিয়া আলিয়া মাদরাসার সামনে থেকে হাজার হাজার আশেকে রাসূলের অংশগ্রহণে জুলুসটি জেনেভা ক্যাম্প, আসাদগেট, মোহাম্মদপুর টাউনহল, শিয়া মসজিদ, আদাবর, শ্যামলী হয়ে পুনরায় মাদরাসায় এসে শেষ হয়।

আঞ্জুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট-এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আলহাজ মুহাম্মদ মহসিনের সভাপতিত্বে রাহমাতুল্লিল আলামীন (সা.) এর শুভাগমনের তাৎপর্য নিয়ে মাদরাসা ময়দানে অনুষ্ঠিত মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ মুহাম্মদ সাদেক খান।

বিশেষ অতিথি ছিলেন- ২৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিল আলহাজ মো. সলিম উল্লাহ সলু, আলহাজ মো. শহিদ উল্লাহ, আলহাজ মো. নুরুল ইসলাম রতন, আলহাজ মুহাম্মদ সিরাজুল হক, মো. মিজানুর রহমান, আলহাজ মো. আব্দুল মালেক বুলবুল, আলহাজ শোয়েবুজ্জামান চৌধুরী তুহিন, উপাধ্যক্ষ আবুল কাশেম মুহাম্মদ ফজলুল হক, হাজী নুরুল আমিনসহ ঢাকা আঞ্জুমান ও গাউসিয়া কমিটির নেতারা।

মাহফিলে বক্তারা বলেন, বিশ্বব্যাপী যে হানাহানি চলছে তা থেকে উত্তরণে ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় মহানবীর (দঃ) আদর্শ প্রতিষ্ঠার বিকল্প নেই। চলমান বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস মানুষের কিছুটা মানসিক পরিবর্তন হলেও সামগ্রিক চিন্তা-চেতনা, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে মহানবীর নীতি-আদর্শ থেকে যোজন-যোজন দূরে থাকায় প্রতিনিয়ত বিপর্যয়ের সম্মুখীন হচ্ছে দেশ এবং জাতি।

সম্প্রতি প্রিয় নবীকে অবমাননাকর ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শণে বিশ্ব মোড়লদের নীরবতা, ওআইসি, আরবলীগের অভিভাবহীন মানসিকতা, জাতিসংঘের খেয়ালিপনায় বিশ্ব বিবেককে নাড়া দিয়েছে। জাতিসংঘসহ সকল অভিভাবক সংস্থাকে নবী (দঃ) ও ধর্মের প্রতি বিদ্বেষপোষণকারীদের শাস্তির আওতায় আনতে দাবি জানানো হয়েছে।

বক্তারা বলেন, নীতিহীন, আদর্শহীন হয়ে বেঁচে থাকার চেয়ে মৃত্যুই শ্রেয়। আর আদর্শিক চেতনায় বিশ্বাসী হয়ে জীবন গঠন করতে পারলে ইহকালে শান্তি এবং পরকালে মুক্তি সু- নিশ্চিত। তাই পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্রে তথা সর্বত্রে কুরআন- সুন্নাহর আলোকে জীবন গঠনের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন বক্তারা।

উপাধ‌্যক্ষ মুফতি আবুল কাসেম মোহাম্মদ ফজলুল হকের সঞ্চালনায় মিলাদ মাহফিল শেষে দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহর সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন তৈয়বিয়া আলিয়া মাদরাসার প্রিন্সিপাল আল্লামা হাফেজ আবদুল আলিম রিজভী।

এমইউ/এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]