বিধিনিষেধের প্রথম দিনে ফাঁকা চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:০০ পিএম, ২৩ জুলাই ২০২১

করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে ঈদুল আজহার পর সরকারঘোষিত লকডাউনের (বিধিনিষেধ) প্রথম দিনেই অনেকটা ফাঁকা দেখা গেছে অন্যতম ব্যস্ততম চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ককে। ভোরে দূরপাল্লার কয়েকটি বাস চলাচল করলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সেটি বন্ধ হয়ে গেছে। থেমে থেমে কয়েকটি পণ্যবাহী গাড়ি, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, টমটম ও ব্যাটারিচালিত রিকশা চলতে দেখা গেছে। সড়কের গুরুত্বপূর্ণ মোড়ে বিভিন্ন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো ছিল।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) সরেজমিন সড়কটির কেরানিহাট, ঠাকুরদিঘি ও লোহাগাড়া এলাকায় ঘুরে তেমন কোনো লোকজনের দেখা মেলেনি।

কয়েকজন অটোরিকশা চালকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঈদের পর এমনিতে ছুটির দিন হওয়ায় সড়কে তেমন লোকজনের উপস্থিতি নেই। অন্যান্য সময়ের লকডাউনে এসব এলাকায় দোকানপাট খোলা থাকলেও আজ বন্ধ বেশিরভাগ দোকান। বাড়িতে কোরবানির মাংস থাকায় লোকজন বাজার করতেও কম বের হয়েছেন। তবে হাসপাতাল ও অন্যান্য জরুরি প্রয়োজনে বের হয়েছেন কিছু লোকজন।

কেরানিহাট মোড়ে আসা আলমগীর মোহাম্মদ জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমার সন্তানসম্ভবা স্ত্রীকে নিয়ে হাসপাতালে এসেছি। অনেক খোঁজাখুঁজি করে একটি অটোরিকশা পেয়েছি। কিন্তু গাড়িচালক স্বাভাবিকের চেয়ে দ্বিগুণ বেশি ভাড়া নিয়েছেন। অন্যান্য সময় আমার বাড়ি ঠাকুরদিঘি এলাকা থেকে কেরানিহাট আসতে ভাড়া ১০০ টাকা নিলেও আজ নিয়েছেন ১৮০ টাকা। কি আর করব? আমাদের তো বাধ্য হয়ে আসতে হচ্ছে।’

জানতে চাইলে অটোরিকশার চালকের আসনে থাকা মো. হাসান বলেন, ‘আমরা অনেকটা চুরি করে গাড়ি বের করেছি। পুলিশ ধরলে পাঁচ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা নিয়ে নেয়। গত লকডাউনে একবার ধরছিল ছয় হাজার টাকা দিয়ে ছাড়িয়ে এনেছি। রিস্ক নিয়ে গাড়ি বের করেছি। তা ছাড়া ট্রিপও আগের মতো মারতে পারি না। তাই ভাড়া একটু বেশি নিতে হচ্ছে।’

jagonews24

বিধিনিষেধের মধ্যে গাড়ি বের করেছেন কেন- জানতে চাইলে অটোরিকশা চালক হাসান বলেন, ‘পেট তো আর বিধিনিষেধ মানছে না। টাকা নেই বাড়িতে। আবার গাড়ি কিনতে ঋণ নিছিলাম। সপ্তাহ শেষে কিস্তির টাকাও দিতে হবে। তাই বের হয়ে কিছু টাকা পাই কি-না দেখছি।’

সাতকানিয়া ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ‘সকাল থেকে থানার তিনটি টিম মাঠে নেমে কাজ করছে। সড়কে বিনা কারণে কোনো গাড়ি বা কোনো ব্যক্তি বের হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এছাড়া বিভিন্ন গ্রামীণ এলাকায় জনসমাগমের বিষয়টিও নজরদারিতে রাখা হয়েছে।’

করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে সরকারি নির্দেশনায় পবিত্র ঈদুল আজহার পর আজ (শুক্রবার) সকাল থেকে ফের ১৪ দিনের কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। এ বিধিনিষেধ চলবে আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত।

বিধিনিষেধ ঘোষণার পর সরকারি প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, এবারের বিধিনিষেধ চলাকালে পোশাক কারখানাসহ সব ধরনের শিল্পকারখানা ও সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। জরুরি সেবা, গণমাধ্যম ও খাদ্য উৎপাদনে সংশ্লিষ্ট পরিবহন ছাড়া সব ধরনের গণপরিবহনও বন্ধ থাকবে। অবশ্য এই কঠোর বিধিনিষেধের আওতার বাইরে থাকবে কোরবানির পশুর চামড়া সংশ্লিষ্ট খাত, খাদ্যপণ্য এবং কোভিড-১৯ প্রতিরোধে পণ্য ও ওষুধ উৎপাদনকারী শিল্প প্রতিষ্ঠান।

বিশেষ করে বাস, ট্রেন, লঞ্চ ও অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট (বিদেশগামী যাত্রী পরিবহনের জন্য শর্তসাপেক্ষে তিনটি এয়ারলাইন্স ছাড়া) বন্ধ থাকবে। রাজধানী ঢাকা থাকবে বিচ্ছিন্ন। জিরো টলারেন্সে থাকবে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

jagonews24\

গত ১৩ জুলাই মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জারি হওয়া প্রজ্ঞাপনে কঠোর বিধিনিষেধে যে ২৩ নির্দেশনা মানতে বলা হয়েছে সেগুলো হলো :

১. সব সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে।
২. সড়ক, রেল ও নৌপথে গণপরিবহন (অভ্যন্তরীণ বিমানসহ) ও সব প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে।
৩. শপিংমল/মার্কেটসহ সব দোকানপাট বন্ধ থাকবে।
৪. সব পর্যটন কেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ থাকবে।
৫. সব প্রকার শিল্প-কলকারখানা বন্ধ থাকবে।
৬. জনসমাবেশ হয় এ ধরনের সামাজিক (বিবাহোত্তর অনুষ্ঠান, ওয়ালিমা), জন্মদিন, পিকনিক, পার্টি ইত্যাদি) রাজনৈতিক ও ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান বন্ধ থাকবে।
৭. বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আদালতসমূহের বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা জারি করবে।
৮. ব্যাংকিং/বীমা/আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক/আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ প্রয়োজনীয় নির্দেশনা জারি করবে।
৯. সরকারি কর্মচারীরা নিজ নিজ কর্মস্থলে অবস্থান করবেন এবং দাফতরিক কাজ ভার্চুয়ালি (ই-নথি, ই-টেন্ডারিং, ই-মেইল, এসএমএস, হোয়াটসঅ্যাপসহ অন্যান্য মাধ্যম) সম্পন্ন করবেন।
১০. আইনশৃঙ্খলা এবং জরুরি পরিষেবা, যেমন- কৃষি পণ্য ও উপকরণ (সার, বীজ, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতি), খাদ্যশস্য ও খাদ্যদ্রব্য পরিবহন/বিক্রয়, ত্রাণ বিতরণ, স্বাস্থ্য সেবা, কোভিড-১৯ টিকা প্রদান, জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) প্রদান কার্যক্রম, রাজস্ব আদায় সম্পর্কিত কার্যাবলি, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস/জ্বালানি, ফায়ার সার্ভিস, টেলিফোন ও ইন্টারনেট (সরকারি-বেসরকারি), গণমাধ্যম (প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া), বেসরকারি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ডাক সেবা, ব্যাংক, ভিসা সংক্রান্ত কার্যক্রম, সিটি করপোরেশন/পৌরসভা (পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, সড়কের বাতি ব্যবস্থাপনা ইত্যাদি কার্যক্রম), সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি, ফার্মেসি ও ফার্মাসিউটিক্যালসসহ অন্যান্য জরুরি/অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও সেবার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহের কর্মচারি ও যানবাহন প্রাতিষ্ঠানিক পরিচয়পত্র প্রদর্শন সাপেক্ষে যাতায়াত করতে পারবে।
১১. বিভাগীয়, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয় খোলা রাখার বিষয়ে অর্থ বিভাগ প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করবে।
১২. জরুরি পণ্য পরিবহনে নিয়োজিত ট্রাক/লরি/কাভার্ড ভ্যান/নৌযান/পণ্যবাহী রেল/ফেরি এ নিষেধাজ্ঞার আওতাবহির্ভূত থাকবে।
১৩. বন্দরসমূহ (বিমান, সমুদ্র, নৌ ও স্থল) এবং এ সংশ্লিষ্ট অফিসসমূহ এ নিষেধাজ্ঞার আওতাবহির্ভূত থাকবে।
১৪. কাঁচাবাজার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে। সংশ্লিষ্ট বাণিজ্য সংগঠন, বাজার কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসন বিষয়টি নিশ্চিত করবে।
১৫. অতি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া (ওষুধ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি ক্রয়, চিকিৎসা সেবা, মৃতদেহ দাফন/সৎকার ইত্যাদি) কোনোভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। নির্দেশনা অমান্যকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
১৬. টিকা কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে টিকা গ্রহণের জন্য যাতায়াত করা যাবে।
১৭. খাবারের দোকান, হোটেল-রেস্তোরাঁ সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খাবার বিক্রয় (অনলাইন/টেকওয়ে) করতে পারবে।
১৮. আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু থাকবে এবং বিদেশগামী যাত্রীরা তাদের আন্তর্জাতিক ভ্রমণের টিকিট/প্রমাণক প্রদর্শন করে গাড়ি ব্যবহার করে যাতায়াত করতে পারবেন।
১৯. স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে মসজিদে নামাজের বিষয়ে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় নির্দেশনা প্রদান করবে।
২০. ‘আর্মি ইন এইড টু সিভিল পাওয়ার’ বিধানের আওতায় মাঠ পর্যায়ে কার্যকর টহল নিশ্চিত করার জন্য সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ প্রয়োজনীয় সংখ্যক সেনা মোতায়েন করবে। জেলা ম্যাজিস্ট্রেট স্থানীয় সেনা কমান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ করে বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।
২১. জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জেলা পর্যায়ে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নিয়ে সমন্বয় সভা করে সেনাবাহিনী, বিজিবি/কোস্টগার্ড, পুলিশ, র্যাব ও আনসার নিয়োগ ও টহলের অধিক্ষেত্র, পদ্ধতি ও সময় নির্ধারণ করবেন। সেই সঙ্গে স্থানীয়ভাবে বিশেষ কোনো কার্যক্রমের প্রয়োজন হলে সে বিষয়ে পদক্ষেপ নেবেন। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগ এ বিষয়ে মাঠ পর্যায়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করবে।
২২. জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় মাঠ পর্যায়ে প্রয়োজনীয় সংখ্যক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগের বিষয়টি নিশ্চিত করবে।
২৩. ‘সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮’ এর আওতায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক ব্যবস্থা নিতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ বাহিনীকে আইনানুগ কার্যক্রম গ্রহণের প্রয়োজনীয় ক্ষমতা প্রদান করবেন।

মিজানুর রহমান/এমআরআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

২২,৯১,৫৩,১৩১
আক্রান্ত

৪৭,০৩,৩২৩
মৃত

২০,৫৭,৭৯,৬৫৫
সুস্থ

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ
বাংলাদেশ ১৫,৪২,৬৮৩ ২৭,২২৫ ১৫,০১,৫৪১
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৪,২৮,৬৯,৪৪৫ ৬,৯১,৫৬২ ৩,২৪,৮৭,২৮৪
ভারত ৩,৩৪,৭৭,৭৮৯ ৪,৪৫,১৬৪ ৩,২৭,০৭,৫৪৩
ব্রাজিল ২,১২,৩০,৩২৫ ৫,৯০,৫৪৭ ২,০২,৮০,২৯৪
যুক্তরাজ্য ৭৪,২৯,৭৪৬ ১,৩৫,২০৩ ৫৯,৮১,৬৮৪
রাশিয়া ৭২,৭৪,৯২৮ ১,৯৮,২১৮ ৬৪,৯৮,৬৮২
ফ্রান্স ৬৯,৫৫,৩৩৩ ১,১৬,০৩০ ৬৬,৩০,২৮১
তুরস্ক ৬৮,২০,৮৬১ ৬১,৩৬১ ৬৩,০৯,৯১০
ইরান ৫৪,২৪,৮৩৫ ১,১৭,১৮২ ৪৭,৬৪,৯৯৮
১০ আর্জেন্টিনা ৫২,৩৮,৬১০ ১,১৪,৩৬৭ ৫০,৯৩,৩৫১
১১ কলম্বিয়া ৪৯,৩৯,২৫১ ১,২৫,৮৬০ ৪৭,৭৭,৭৯৬
১২ স্পেন ৪৯,২৯,৫৪৬ ৮৫,৭৮৩ ৪৬,৩৩,৫২৭
১৩ ইতালি ৪৬,৩৬,১১১ ১,৩০,৩১০ ৪৩,৯২,২৬৫
১৪ ইন্দোনেশিয়া ৪১,৯০,৭৬৩ ১,৪০,৪৬৮ ৩৯,৮৯,৩২৬
১৫ জার্মানি ৪১,৪৬,৯৮২ ৯৩,৫৫৮ ৩৮,৮২,৭০০
১৬ মেক্সিকো ৩৫,৬৪,৬৯৪ ২,৭১,৩০৩ ২৯,১৬,২৭১
১৭ পোল্যান্ড ২৮,৯৭,৯৩৫ ৭৫,৪৮৮ ২৬,৫৯,৪৮৩
১৮ দক্ষিণ আফ্রিকা ২৮,৮০,৩৪৯ ৮৬,১১৬ ২৭,২৮,৯৬১
১৯ ফিলিপাইন ২৩,৬৬,৭৪৯ ৩৬,৭৮৮ ২১,৫১,৭৬৫
২০ ইউক্রেন ২৩,৪৮,৩৮১ ৫৪,৮৭৫ ২২,৩০,৮৫২
২১ পেরু ২১,৬৬,৪১৯ ১,৯৮,৯৭৬ ১৭,২০,৬৬৫
২২ মালয়েশিয়া ২০,৮২,৮৭৬ ২৩,০৬৭ ১৮,৪০,৪৫০
২৩ নেদারল্যান্ডস ১৯,৮৪,৯১৫ ১৮,১১৪ ১৮,৯৫,৭৯৭
২৪ ইরাক ১৯,৭৫,২২০ ২১,৮২২ ১৮,৬২,৯৪০
২৫ চেক প্রজাতন্ত্র ১৬,৮৬,১৮২ ৩০,৪৩০ ১৬,৫০,৫৩৬
২৬ জাপান ১৬,৭৩,১৪৪ ১৭,১৫৬ ১৫,৭৫,৯১৯
২৭ চিলি ১৬,৪৭,৪৬৯ ৩৭,৩৫৯ ১৬,০৩,৯৩৪
২৮ কানাডা ১৫,৭১,৩২৭ ২৭,৩৮৪ ১৪,৯৮,৪৮৬
২৯ থাইল্যান্ড ১৪,৭৬,৪৭৭ ১৫,৩৬৩ ১৩,৩০,০১৯
৩০ ইসরায়েল ১২,২৬,৭০৮ ৭,৫৩২ ১১,৩৯,২০৫
৩১ পাকিস্তান ১২,২৩,৮৪১ ২৭,২০৬ ১১,৩২,৭২৬
৩২ বেলজিয়াম ১২,১৯,৮১৪ ২৫,৪৯৭ ১১,৩৩,৮৭২
৩৩ রোমানিয়া ১১,৪৮,৭১০ ৩৫,৫১৪ ১০,৭৯,৪০৮
৩৪ সুইডেন ১১,৪৪,৯৮২ ১৪,৭৩৪ ১১,০১,৮৪৭
৩৫ পর্তুগাল ১০,৬১,৩৭১ ১৭,৯০২ ১০,০৯,৫১৭
৩৬ মরক্কো ৯,১৯,৬৮১ ১৩,৯১০ ৮,৮২,১৫৫
৩৭ সার্বিয়া ৮,৬৫,৬৮৬ ৭,৭৭০ ৭,৫৫,২০০
৩৮ কাজাখস্তান ৮,৬০,৪২৪ ১০,৭২৬ ৭,৮৭,৪৫০
৩৯ সুইজারল্যান্ড ৮,২৩,০৭৪ ১১,০১০ ৭,৩৬,৩৮৮
৪০ হাঙ্গেরি ৮,১৭,১৫৯ ৩০,১২৩ ৭,৭৯,৭৭৭
৪১ জর্ডান ৮,১৩,৬০১ ১০,৬১৬ ৭,৯০,৬৭২
৪২ কিউবা ৮,০১,৩৬৭ ৬,৭৯৬ ৭,৫৪,৮৯৮
৪৩ নেপাল ৭,৮৪,৫৬৬ ১১,০৪০ ৭,৪৯,২১৩
৪৪ সংযুক্ত আরব আমিরাত ৭,৩২,৬৯০ ২,০৭৫ ৭,২৪,৪৪৬
৪৫ অস্ট্রিয়া ৭,২৪,০৩৫ ১০,৮৯৫ ৬,৮৯,৯২৭
৪৬ তিউনিশিয়া ৬,৯৯,৯২৮ ২৪,৪৯০ ৬,৬৯,৩৫৫
৪৭ ভিয়েতনাম ৬,৮৭,০৬৩ ১৭,০৯০ ৪,৫৭,৫০৫
৪৮ গ্রীস ৬,৩০,৭৮৪ ১৪,৪৬৬ ৫,৮৭,৯৫৭
৪৯ লেবানন ৬,১৭,৬৬২ ৮,২৩২ ৫,৮০,৩৪৬
৫০ জর্জিয়া ৫,৯৫,২৬৪ ৮,৫৪১ ৫,৫৯,৯৯৬
৫১ সৌদি আরব ৫,৪৬,৫৪৯ ৮,৬৬১ ৫,৩৫,৫৩১
৫২ গুয়াতেমালা ৫,২৯,৪২২ ১৩,০৪০ ৪,৭৮,৬৭১
৫৩ বেলারুশ ৫,১৬,৪২৮ ৪,০০৪ ৫,০৩,২৬৬
৫৪ ইকুয়েডর ৫,০৫,৮৬০ ৩২,৫৫৯ ৪,৪৩,৮৮০
৫৫ কোস্টারিকা ৫,০৫,১৬৩ ৫,৯৪৯ ৪,০৬,৬৬০
৫৬ শ্রীলংকা ৫,০৪,৪৯১ ১২,১২৫ ৪,৩২,০৩৮
৫৭ বলিভিয়া ৪,৯৬,৯৫০ ১৮,৬৫৪ ৪,৫১,০৪৯
৫৮ বুলগেরিয়া ৪,৮১,৭২৮ ১৯,৯৮৫ ৪,২২,৩৫৫
৫৯ আজারবাইজান ৪,৭২,৭১৯ ৬,৩০৫ ৪,৩৪,০৯৫
৬০ পানামা ৪,৬৪,০৩৮ ৭,১৭০ ৪,৫২,৮০৯
৬১ প্যারাগুয়ে ৪,৫৯,৬২২ ১৬,১২৬ ৪,৪১,৫৪৭
৬২ মায়ানমার ৪,৪৪,৮৭১ ১৭,০১৬ ৩,৯৫,৮৫৫
৬৩ কুয়েত ৪,১১,১২৪ ২,৪৩৮ ৪,০৭,৮২৪
৬৪ স্লোভাকিয়া ৪,০২,৮০৮ ১২,৫৬৯ ৩,৮৩,৫১১
৬৫ ক্রোয়েশিয়া ৩,৯১,৯৮৪ ৮,৫০০ ৩,৭৫,১৯৮
৬৬ উরুগুয়ে ৩,৮৭,৫৫৫ ৬,০৪৮ ৩,৭৯,৮৮৩
৬৭ ফিলিস্তিন ৩,৮৪,৩৯০ ৩,৯১৯ ৩,৫১,০৫৩
৬৮ আয়ারল্যান্ড ৩,৭৪,১৪৩ ৫,১৭৯ ৩,২৩,৩২৫
৬৯ হন্ডুরাস ৩,৫৭,৬৫৪ ৯,৪৯১ ১,০৮,২৬২
৭০ ডোমিনিকান আইল্যান্ড ৩,৫৫,১৫০ ৪,০২৮ ৩,৪৬,৩২৬
৭১ ডেনমার্ক ৩,৫৪,৬৪৫ ২,৬২৮ ৩,৪৬,৩৬৪
৭২ ভেনেজুয়েলা ৩,৫৪,২৩৯ ৪,২৯১ ৩,৩৮,২৩১
৭৩ ইথিওপিয়া ৩,৩২,০০৩ ৫,১১৫ ২,৯৮,১১২
৭৪ লিবিয়া ৩,৩০,৯৪৫ ৪,৫০১ ২,৪৬,৮০৯
৭৫ লিথুনিয়া ৩,১৫,৯৪৯ ৪,৭৯৩ ২,৯২,৫০২
৭৬ ওমান ৩,০৩,৩০৯ ৪,০৯২ ২,৯৩,৬১৮
৭৭ মিসর ২,৯৬,২৭৬ ১৬,৯৫১ ২,৪৯,৭৯৩
৭৮ দক্ষিণ কোরিয়া ২,৮৫,৯৩১ ২,৪০৪ ২,৫৭,৪৪৯
৭৯ স্লোভেনিয়া ২,৮৩,৪৮০ ৪,৪৯৮ ২,৬৫,৮১১
৮০ মলদোভা ২,৮১,২১৬ ৬,৫৮৬ ২,৬৬,৭২৪
৮১ মঙ্গোলিয়া ২,৭৫,১৪৬ ১,১০৮ ২,৬২,১৫৮
৮২ বাহরাইন ২,৭৪,১৭৯ ১,৩৮৮ ২,৭২,০১২
৮৩ আর্মেনিয়া ২,৫৩,৬০০ ৫,১৩১ ২,৩৬,০৮৮
৮৪ কেনিয়া ২,৪৬,৫৩০ ৪,৯৮৯ ২,৩৭,২৯৫
৮৫ কাতার ২,৩৫,৩৮৬ ৬০৪ ২,৩৩,১১৬
৮৬ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ২,২৫,৮৫৭ ১০,২০৩ ১,৯২,২১৮
৮৭ জাম্বিয়া ২,০৮,৪২২ ৩,৬৩৮ ২,০৩,৯৯৮
৮৮ নাইজেরিয়া ২,০১,৬৩০ ২,৬৫৪ ১,৯০,২৮৮
৮৯ আলজেরিয়া ২,০১,৪২৫ ৫,৬৮১ ১,৩৭,৭৭৫
৯০ উত্তর ম্যাসেডোনিয়া ১,৮৬,৯১৪ ৬,৪৬০ ১,৬৭,৪০২
৯১ নরওয়ে ১,৮২,০২০ ৮৪১ ৮৮,৯৫২
৯২ কিরগিজস্তান ১,৭৭,৭২২ ২,৫৮৮ ১,৭২,১৮৯
৯৩ বতসোয়ানা ১,৭২,২৫২ ২,৩৪৩ ১,৬৭,৩১৮
৯৪ উজবেকিস্তান ১,৬৮,৪৩৭ ১,১৮৮ ১,৬২,০৫৫
৯৫ আলবেনিয়া ১,৬২,৯৫৩ ২,৫৮০ ১,৪৭,৫৮৪
৯৬ আফগানিস্তান ১,৫৪,৫৩৯ ৭,১৯৯ ১,২২,৫২২
৯৭ লাটভিয়া ১,৫০,৫৬০ ২,৬৪০ ১,৪১,৯৩৩
৯৮ মোজাম্বিক ১,৫০,০১৮ ১,৯০৩ ১,৪৫,৬০৬
৯৯ এস্তোনিয়া ১,৪৯,৭৭৬ ১,৩২৬ ১,৩৯,৬৩৭
১০০ ফিনল্যাণ্ড ১,৩৬,২৫৭ ১,০৫১ ৪৬,০০০
১০১ জিম্বাবুয়ে ১,২৭,৭৩৯ ৪,৫৬৩ ১,২০,২৬৩
১০২ নামিবিয়া ১,২৬,৭০৮ ৩,৪৬৬ ১,২২,০৪০
১০৩ মন্টিনিগ্রো ১,২৬,২৫৯ ১,৮৪৯ ১,১৬,৩৫৯
১০৪ ঘানা ১,২৫,০০৫ ১,১১৮ ১,১৯,৬০১
১০৫ উগান্ডা ১,২২,২১২ ৩,১২৮ ৯৫,৮৮৯
১০৬ সাইপ্রাস ১,১৬,৪৯৪ ৫৩৪ ৯০,৭৫৫
১০৭ কম্বোডিয়া ১,০৪,০৯৪ ২,১০৯ ৯৭,২২৭
১০৮ এল সালভাদর ৯৯,৭০১ ৩,১০২ ৮৯,৩২৬
১০৯ চীন ৯৫,৬৮৯ ৪,৬৩৬ ৯০,১২৬
১১০ রুয়ান্ডা ৯৫,১১৭ ১,২০৬ ৪৫,৪২৯
১১১ অস্ট্রেলিয়া ৮৫,৬৪৮ ১,১৬২ ৬৩,৩৭৮
১১২ ক্যামেরুন ৮৫,৪১৪ ১,৩৬৮ ৮০,৪৩৩
১১৩ মালদ্বীপ ৮৩,৪৯৪ ২২৯ ৮১,৫৪৪
১১৪ জ্যামাইকা ৭৯,১২৭ ১,৭৭৭ ৫০,৬৪১
১১৫ লুক্সেমবার্গ ৭৭,১৮৯ ৮৩৪ ৭৫,২০৯
১১৬ সিঙ্গাপুর ৭৬,৭৯২ ৬০ ৭০,১২৪
১১৭ সেনেগাল ৭৩,৬৪৫ ১,৮৪৫ ৬৯,৪৯১
১১৮ মালাউই ৬১,৩৩৭ ২,২৫৬ ৫১,৮৪০
১১৯ আইভরি কোস্ট ৫৮,৮৮৯ ৫৬১ ৫৬,৫৯১
১২০ ড্যানিশ রিফিউজি কাউন্সিল ৫৬,৩৮৭ ১,০৬৮ ৩০,৮৫৮
১২১ রিইউনিয়ন ৫২,৬৪৩ ৩৫৮ ৫১,১২৬
১২২ গুয়াদেলৌপ ৫২,৪৮০ ৬৬৮ ২,২৫০
১২৩ অ্যাঙ্গোলা ৫২,৩০৭ ১,৩৮৮ ৪৬,০২৫
১২৪ ফিজি ৪৯,৮৮০ ৫৬৬ ৩৫,৯২৯
১২৫ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ৪৮,৪০০ ১,৪১৩ ৪২,৯০২
১২৬ ইসওয়াতিনি ৪৫,৩৫২ ১,১৯৪ ৪৩,০৮৫
১২৭ মাদাগাস্কার ৪২,৮৯৮ ৯৫৮ ৪২,৫৪৫
১২৮ ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ৪০,১৭৮ ৫৯৩ ৩৩,৫০০
১২৯ মার্টিনিক ৩৯,৭৪৫ ৫৫৫ ১০৪
১৩০ ফ্রেঞ্চ গায়ানা ৩৮,২৬৬ ২৩৫ ৯,৯৯৫
১৩১ সুদান ৩৮,০০০ ২,৮৭৫ ৩১,৯১৬
১৩২ কেপ ভার্দে ৩৭,০৫২ ৩২৯ ৩৫,৮১৩
১৩৩ মালটা ৩৬,৯৭২ ৪৫৩ ৩৫,৫৩৭
১৩৪ সুরিনাম ৩৬,৭৪৬ ৮০৩ ২৬,৪৮৮
১৩৫ মৌরিতানিয়া ৩৫,৩৮০ ৭৬৫ ৩৩,৫৮৮
১৩৬ সিরিয়া ৩০,৫১৯ ২,১২০ ২৩,০০৭
১৩৭ গিনি ৩০,১৩৬ ৩৭০ ২৮,২৭৭
১৩৮ গায়ানা ২৯,৩৪৫ ৭১৩ ২৪,৯৭৮
১৩৯ গ্যাবন ২৭,৬৪৩ ১৭৫ ২৬,১৪৯
১৪০ টোগো ২৪,৫১৯ ২১৩ ২০,১৬৫
১৪১ বেনিন ২১,৪৫০ ১৪৬ ১৭,২৯৪
১৪২ হাইতি ২১,৩৩৮ ৫৯৭ ১৯,১৬৬
১৪৩ সিসিলি ২০,৯৪৩ ১১৪ ২০,২৪৫
১৪৪ মায়োত্তে ২০,১৭৬ ১৭৬ ২,৯৬৪
১৪৫ বাহামা ২০,০৩০ ৫০৪ ১৭,৭২৭
১৪৬ লাওস ১৯,১৮৫ ১৬ ৫,৫৬৮
১৪৭ পূর্ব তিমুর ১৯,০৩৩ ১০৪ ১৭,২৫৪
১৪৮ সোমালিয়া ১৯,০০৪ ১,০৬৩ ৯,১৯১
১৪৯ পাপুয়া নিউ গিনি ১৮,৫৪২ ২০৪ ১৭,৮৯২
১৫০ বেলিজ ১৮,৫৩২ ৩৮৯ ১৬,৫১৮
১৫১ তাজিকিস্তান ১৭,০৮৪ ১২৪ ১৬,৯৬০
১৫২ তাইওয়ান ১৬,১৪১ ৮৪০ ১৫,১৫২
১৫৩ কিউরাসাও ১৬,০৩১ ১৫৬ ১৫,৩৯৯
১৫৪ আরুবা ১৫,২২১ ১৫৮ ১৪,৭৯০
১৫৫ এনডোরা ১৫,১২৪ ১৩০ ১৪,৯৪১
১৫৬ মালি ১৫,০৬০ ৫৪৫ ১৪,২১৫
১৫৭ লেসোথো ১৪,৩৯৫ ৪০৩ ৬,৮৩০
১৫৮ মরিশাস ১৪,২৪৩ ৫০ ১,৮৫৪
১৫৯ বুরুন্ডি ১৪,১৮৯ ৩৮ ৭৭৩
১৬০ বুর্কিনা ফাঁসো ১৪,০৪১ ১৭২ ১৩,৬৯৭
১৬১ কঙ্গো ১৩,৭০১ ১৮৩ ১২,৪২১
১৬২ নিকারাগুয়া ১৩,০২৫ ২০২ ৪,২২৫
১৬৩ হংকং ১২,১৬১ ২১৩ ১১,৮৭২
১৬৪ জিবুতি ১১,৯৬০ ১৫৭ ১১,৬৮৮
১৬৫ দক্ষিণ সুদান ১১,৮০৫ ১২১ ১১,১৯৫
১৬৬ আইসল্যান্ড ১১,৪০৪ ৩৩ ১১,০১৭
১৬৭ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক ১১,৩০৯ ১০০ ৬,৮৫৯
১৬৮ চ্যানেল আইল্যান্ড ১১,২৬৯ ৯৭ ১০,৮০৪
১৬৯ ইকোয়েটরিয়াল গিনি ১১,০৬৩ ১৩৭ ৯,৪৯০
১৭০ সেন্ট লুসিয়া ১০,৫২০ ১৫০ ৭,৯৭৩
১৭১ গাম্বিয়া ৯,৮৬৭ ৩৩০ ৯,৫০৪
১৭২ ইয়েমেন ৮,৬৬৭ ১,৬৪৩ ৫,৩৭৭
১৭৩ আইল অফ ম্যান ৭,১৪১ ৩৮ ৬,৭৯০
১৭৪ ইরিত্রিয়া ৬,৬৭১ ৪০ ৬,৬১৮
১৭৫ সিয়েরা লিওন ৬,৩৯২ ১২১ ৪,৩৭৪
১৭৬ বার্বাডোস ৬,৩৫৮ ৫৭ ৫,৩৬৬
১৭৭ গিনি বিসাউ ৬,০৭৮ ১৩০ ৫,২২৭
১৭৮ নাইজার ৫,৯৫৭ ২০১ ৫,৬৮৯
১৭৯ লাইবেরিয়া ৫,৭৭৭ ২৮৩ ৫,৪৫৮
১৮০ জিব্রাল্টার ৫,৪৭৭ ৯৭ ৫,৩০৩
১৮১ সান ম্যারিনো ৫,৩৮৮ ৯০ ৫,২৪০
১৮২ ব্রুনাই ৫,০৪৭ ২৬ ৩,৪৫৭
১৮৩ চাদ ৫,০২৬ ১৭৪ ৪,৮৩৭
১৮৪ বারমুডা ৪,২১৮ ৩৮ ২,৯৪২
১৮৫ কমোরস ৪,১০৬ ১৪৭ ৩,৯৪৩
১৮৬ সিন্ট মার্টেন ৪,০৯১ ৫৯ ৩,৮৫৭
১৮৭ নিউজিল্যান্ড ৪,০৬০ ২৭ ৩,৬৩৯
১৮৮ গ্রেনাডা ৩,৮৪১ ৫০ ১,৩৪৭
১৮৯ সেন্ট মার্টিন ৩,৬৪৬ ৪৭ ১,৩৯৯
১৯০ নিউ ক্যালেডোনিয়া ৩,৫৩১ ২২ ৫৮
১৯১ লিচেনস্টেইন ৩,৪০৫ ৬০ ৩,২৯৭
১৯২ মোনাকো ৩,২৯০ ৩৩ ৩,২১৮
১৯৩ টার্কস্ ও কেইকোস আইল্যান্ড ২,৮০০ ২১ ২,৬৬৩
১৯৪ ডোমিনিকা ২,৭৫৮ ২,১২৫
১৯৫ সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন আইল্যান্ড ২,৭২৮ ১৪ ২,৩৩২
১৯৬ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ২,৬৪২ ৩৭ ২,৫৫৫
১৯৭ অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা ২,৬০৩ ৫৫ ১,৫৮৪
১৯৮ ভুটান ২,৫৯৭ ২,৫৯৩
১৯৯ ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস ১,৯৬৯ ১৮ ৬,৪৪৫
২০০ সেন্ট কিটস ও নেভিস ১,৬৩২ ৯০৯
২০১ সেন্ট বারথেলিমি ১,৫৪৮ ৪৬২
২০২ তানজানিয়া ১,৩৬৭ ৫০ ১৮৩
২০৩ ফারে আইল্যান্ড ১,০৫৯ ১,০২৯
২০৪ কেম্যান আইল্যান্ড ৭৭৪ ৭২০
২০৫ ডায়মন্ড প্রিন্সেস (প্রমোদ তরী) ৭১২ ১৩ ৬৯৯
২০৬ গ্রীনল্যাণ্ড ৪৬৪ ৩৬২
২০৭ ওয়ালিস ও ফুটুনা ৪৪৫ ৪৩৮
২০৮ এ্যাঙ্গুইলা ৩৩১ ৩১৭
২০৯ ফকল্যান্ড আইল্যান্ড ৬৭ ৬৩
২১০ ম্যাকাও ৬৩ ৬৩
২১১ মন্টসেরাট ৩৩ ৩০
২১২ সেন্ট পিয়ের এন্ড মিকেলন ৩১ ৩১
২১৩ ভ্যাটিকান সিটি ২৭ ২৭
২১৪ সলোমান আইল্যান্ড ২০ ২০
২১৫ পশ্চিম সাহারা ১০
২১৬ জান্ডাম (জাহাজ)
২১৭ পালাও
২১৮ মার্শাল আইল্যান্ড
২১৯ ভানুয়াতু
২২০ সামোয়া
২২১ সেন্ট হেলেনা
তথ্যসূত্র: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য।
করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]