চতুর্থ দিনের মনোনয়নপত্র বিক্রি চলছে পল্টনে

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৫১ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০১৮

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জন্য চতুর্থ দিনের মতো মনোনয়নপত্র বিক্রি চলছে বিএনপির। একই সঙ্গে গত তিন দিন যাবত মনোনয়নপত্র জমাও নেয়া হচ্ছে। দলীয় কার্যালয়ের সামনে পছন্দের প্রার্থীর নামে শ্লোগান দিচ্ছেন কর্মী-সমর্থকরা।

বুধবার বেলা ১১টা থেকে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ঢাকা মহানগর বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক ও মেয়র সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইসরাক হোসেন মনোনয়ন কিনতে এসে বিশাল শোডাউন দেন।

এছাড়া এদিন মনোনয়নপত্র জমা দিতে আসেন বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল খান।

এ সময় দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেন, গণভবনে আওয়ামী লীগের প্রায় সাড়ে ৪ হাজার প্রার্থীর সাক্ষাৎকারের নামে দলীয় সভার আয়োজন করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। অথচ এ বিষয়ে একেবারেই নিশ্চুপ নির্বাচন কমিশন (ইসি)।'

তিনি বলেন, ‘গণভবনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক নির্বাচনী আচরণবিধির ১৪ (২) ধারার সুষ্পষ্ট লঙ্ঘন। ঐ ধারানুযায়ী তিনি রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারেন না'।

রিজভী বলেন, 'নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা পর অস্ত্র জমা দেয়ার ব্যাপারে এখনও কোনো নির্দেশনা দেয়নি ইসি। নির্বাচনকালীন অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও বৈধ অস্ত্র জমা দেয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও জরুরি হলেও ইসি নির্বিকার ভূমিকা পালন করছে।'

bnp

তিনি বলেন, গতকাল (বুধবার) ইসি বলেছে নয়াপল্টনে শোডাউন আচরণবিধির লঙ্ঘন নয়, তাহলে তফসিল ঘোষণার পর কোন সাহসে, কার নির্দেশে পুলিশ বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর সহিংস আক্রমণ চালিয়েছে?

রিজভী বলেন, হেলমেটধারীরা সুপরিকল্পিতভাবে পুলিশের গাড়িতে আগুন দিয়েছে। যারা আগুন দিয়েছে তারা ছাত্রলীগ-যুবলীগের ঢাকা মহানগর নেতা, যার সুস্পষ্ট প্রমাণ গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে।

কেএইচ/এমএমজেড/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :