করোনাকালে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ববি হাজ্জাজের প্রস্তাবনা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:১০ পিএম, ২১ জুন ২০২০

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারের উদ্যোগ পর্যবেক্ষণে বিতর্কমুক্ত সর্বদলীয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি এবং প্রস্তাবিত বাজেটে সংশোধনী নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে প্রস্তাবনা দিয়েছেন জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন- এনডিএম চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ।

রোববার (২১ জুন) গণমাধ্যমে এই প্রস্তাবনা তুলে ধরেন তিনি।

প্রস্তাবনায় বলা হয়, ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রবাদ পুরুষ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা এবং বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হিসেবে দেশের সর্বমহলে আপনি বিশেষ শ্রদ্ধা এবং সম্মানের স্থান অর্জন করেছেন। টানা তিন মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আপনার যোগ্য এবং বিচক্ষণ নেতৃত্ব জাতি হিসেবে আমাদের আশান্বিত করছে। স্বাধীনতা স্বপক্ষের রাজনৈতিক শক্তি হিসেবে দেশবিরোধী চক্রান্ত এবং অশুভ রাজনৈতিক শক্তির বিরুদ্ধে আপনার দীর্ঘ সংগ্রামে নতুন নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল হিসেবে এনডিএম (নিবন্ধন নং- ০৪৩) পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে। রাজনৈতিক মতপার্থক্য অথবা পথচলার ভিন্নতা থাকলেও জাতীয় দুর্যোগ এবং ক্রান্তিকালে দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দল হিসেবে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন-এনডিএম আপনার সুযোগ্য নেতৃত্বের প্রতি আস্থা এবং বিশ্বাস রেখে জাতীয় ঐকমত্য প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে একসাথে কাজ করতে প্রস্তুত।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী
চলমান করোনা পরিস্থিতিতে আপনার নেতৃত্বে সর্বদলীয় পর্যবেক্ষণ কমিটি গঠন এবং চলতি অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে আমাদের দলের পক্ষ থেকে কিছু সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা আপনার সদয় বিবেচনা এবং দৃষ্টি আকর্ষণের নিমিত্তে উপস্থাপন করছি।

১. করোনা প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় সর্বদলীয় কমিটি গঠন

আমরা দুর্নীতির বিরুদ্ধে আপনার সুযোগ্য নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ লড়াই করতে চাই। গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ করছি, দুর্নীতির বিরুদ্ধে আপনার ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি থাকলেও কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে শুরু করে তৃণমূল পর্যায়ে ত্রাণ বিতরণে যথেষ্ট অনিয়ম হয়েছে। এছাড়াও সঠিকভাবে মহামারি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ এবং পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রান্তিক পর্যায়ে সমন্বিত উদ্যোগের অভাব পরিলক্ষিত হয়েছে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ এবং সরাসরি আপনার নিকট মূল্যায়ন প্রতিবেদন উপস্থাপনের লক্ষ্যে স্বাধীনতার স্বপক্ষের রাজনৈতিক শক্তির সম্মিলিত অংশগ্রহণ প্রত্যাশা করছি। এসব দলের স্বচ্ছ ভাবমূর্তির যোগ্যতাসম্পন্ন ব্যক্তিত্ব যাদের নামে ঋণখেলাপি, অর্থপাচার বা দুর্নীতির মামলা নেই তাদের জাতীয় কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করার প্রস্তাব করছি। দেশের এই ক্রান্তিকালে আপনার নিরলস এবং ঐকান্তিক প্রচেষ্টাকে বিতর্কমুক্ত এবং সাফল্যমণ্ডিত করতে আমরা প্রান্তিক পর্যায়ে সরকারের সহযোগিতার শতভাগ ব্যবহার নিশ্চিত হচ্ছে কিনা সেসব পর্যবেক্ষণের জন্য আওয়ামী লীগের নেতৃত্বের সাথে গ্রহণযোগ্য রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের অংশগ্রহণের সুযোগ তৈরি করতে আমরা উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।

২. প্রস্তাবিত বাজেট বিষয়ক

(ক) বাজেট বক্তব্যের শুরুতেই অর্থমন্ত্রী বলেছেন, ‘কোভিড-১৯-এর প্রভাবে বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতে যে জরুরি এবং অপ্রত্যাশিত আর্থিক প্রয়োজন দেখা দিয়েছে তা মেটাতে এবং অর্থনীতির বিভিন্ন খাতে যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা পুনরুদ্ধারের কৌশল বিবেচনায় নিয়ে মূলত ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তুত করা হয়েছে।’

তার বক্তব্য থেকেই স্পষ্ট হয়েছে জনগণের স্বাস্থ্যসুরক্ষা এবং দেশের স্বাস্থ্যখাতে বিগত সময়গুলোতে যথাযথ নজর দেয়া হয় নাই। এই অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের মোট আকারের ৭.২ শতাংশ স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ দেয়া হলেও আমরা এই খাতের সংস্কার নিয়ে কোনো চমক দেখি নাই। আমাদের দেশে যেসব রোগের প্রাদুর্ভাব বেশি সেগুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সাজিয়ে সেসব চিকিৎসায় ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ, প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি এবং চিকিৎসা উপকরণের সংস্থান, দক্ষ জনশক্তি তৈরি ইত্যাদি বিবেচনায় নিতে স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট রূপরেখা প্রণয়নের আহ্বান জানাচ্ছি। প্রতিটি জেলায় আইসিইউ বেড স্থাপন এবং উপজেলা পর্যায়ে অক্সিজেন সরবরাহ নিশ্চিতে জরুরি বরাদ্দ দেয়ার আহ্বান করছি।

(খ) জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আমরা প্রস্তাব করছি। উদাহরণস্বরূপ, নিরাপদ খাবার পানির সহজলভ্যতা নিশ্চিত করতে পারলে ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব কমবে। খাদ্যে ভেজাল রোধ করতে পারলে অনেক জটিল রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে। বায়ুদূষণ রোধ করতে পারলে এই সংক্রান্ত জটিলতা থেকে রেহাই পাওয়া যাবে। বাজেটে এসব সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার কথা ঘোষণা দেয়ার জন্য আমরা অনুরোধ করছি।

(গ) অর্থমন্ত্রী তার বাজেট বক্তব্যে বলেছেন, ‘অর্থ যাই লাগবে সেটা জোগাড় করা হবে’। কিন্তু অর্থপ্রাপ্তির প্রচলিত খাতসমূহ করোনা দুর্যোগের সময়ে সংকটের মধ্যে রয়েছে। প্রস্তাবিত বাজেটে ঘাটতির পরিমাণ মোট বাজেটের প্রায় সাড়ে ৩৩ শতাংশ। আমরা মনে করি, ঘাটতি মোকাবিলায় ব্যাংক থেকে উচ্চহারে ঋণ গ্রহণ জিডিপির ওপর চাপ ফেলবে। এছাড়াও বৈশ্বিক মহামারির প্রভাবে সারা বিশ্বে যখন অর্থনৈতিক মন্দার আশঙ্কা তখন বিশাল রাজস্ব আদায়ের কাল্পনিক লক্ষ্যমাত্রা একটি দিবাস্বপ্ন। ঘাটতি মোকাবিলায় ব্যাংক খাতের ওপর অতিরিক্ত নির্ভরতা দেশের সামগ্রিক বিনিয়োগ খাতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। তাই বিশাল বাজেট ঘাটতি পুনর্বিবেচনার জন্য আমরা অনুরোধ করছি।

(ঘ) নতুন অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে কৃষিখাতে বরাদ্দের পরিমাণ মোট বাজেটের ৫.২৮ শতাংশ। বর্গাজমিতে চাষাবাদ করা প্রান্তিক পর্যায়ের কৃষকরা কীভাবে এর সুফল ভোগ করবে সেই ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট রূপরেখা উপস্থাপনের জন্য আমরা প্রস্তাব করছি। এছাড়াও প্রস্তাবিত বাজেটে কৃষকের নিকট থেকে ধান এবং চাল সংগ্রহের যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে তা অপ্রতুল। এই লক্ষ্যমাত্রা বৃদ্ধি করতে আমরা অনুরোধ করছি।

(ঙ) শিক্ষাখাতে বরাদ্দের পরিমাণ বিগত অর্থবছরের তুলনায় .১৫ শতাংশ কমেছে। আমরা শিক্ষাখাত সংস্কার, বেসরকারি শিক্ষকদের জাতীয়করণ, উচ্চশিক্ষা এবং গবেষণায় অধিকতর রাষ্ট্রীয় বিনিয়োগের আহ্বান জানাচ্ছি। এছাড়াও ডিজিটাল শিক্ষাব্যবস্থার প্রচলন বৃদ্ধি পাওয়ায় মোবাইল এবং ইন্টারনেটের বর্ধিত খরচ প্রত্যাহারের আহ্বান জানাচ্ছি। করোনা পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলায় দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে বিশেষ নজর দেয়ার জন্য আমরা প্রস্তাব রাখছি। এছাড়াও করোনার কারণে চাকরি হারানো দেশি এবং প্রবাসী শ্রমিকদের পুনর্বাসন এবং নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী জোরদার করার আহ্বান জানাচ্ছি।

আমরা আশা করছি, দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে উল্লিখিত প্রস্তাবনাসমূহ আপনার সদয় বিবেচনায় থাকবে। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন এই করোনার মহামারি থেকে আমাদের হেফাজত করুক। আপনার সুস্বাস্থ্য এবং দীর্ঘায়ু কামনা করছি।

জয় বাংলাদেশ। এনডিএমের অঙ্গীকার, দেশ হবে জনতার।

কেএইচ/বিএ/এমএস

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

২৪,৪২,৩২,৭৪৮
আক্রান্ত

৪৯,৬১,৭৭৪
মৃত

২২,১২,৭৮,১২৪
সুস্থ

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ
বাংলাদেশ ১৫,৬৭,৪১৭ ২৭,৮১৪ ১৫,৩০,৯৪১
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৪,৬২,৯৪,২১০ ৭,৫৬,২০৫ ৩,৬০,৩৩,৮৮৬
ভারত ৩,৪১,৭৫,৪৬৮ ৪,৫৪,৩০১ ৩,৩৫,৪৮,৬০৫
ব্রাজিল ২,১৭,২৩,৫৫৯ ৬,০৫,৫৬৯ ২,০৮,৯৫,৮৮৬
যুক্তরাজ্য ৮৭,৩৪,৯৩৪ ১,৩৯,৪৬১ ৭১,১৬,১৭৯
রাশিয়া ৮২,৪১,৬৪৩ ২,৩০,৬০০ ৭১,৬৫,৯২১
তুরস্ক ৭৮,২৭,০১৩ ৬৮,৯১৭ ৭২,৫৯,৫৮৫
ফ্রান্স ৭১,২০,৮৬৩ ১,১৭,৪৬৩ ৬৯,০৯,৬১৯
ইরান ৫৮,৬০,৮৪৪ ১,২৫,২২৩ ৫৪,১৬,৬৯১
১০ আর্জেন্টিনা ৫২,৭৯,৮১৮ ১,১৫,৮২৩ ৫১,৪৫,৬০৯
১১ স্পেন ৪৯,৯৭,৭৩২ ৮৭,১৩২ ৪৮,৪৮,৪৩২
১২ কলম্বিয়া ৪৯,৮৯,৬৮১ ১,২৭,০৩২ ৪৮,৩৩,৫৫২
১৩ ইতালি ৪৭,৩৭,৪৬২ ১,৩১,৮০২ ৪৫,৩১,৬৪৪
১৪ জার্মানি ৪৪,৬৪,৬৬৭ ৯৫,৭৯৪ ৪২,০৬,৪০০
১৫ ইন্দোনেশিয়া ৪২,৪০,০১৯ ১,৪৩,২০৫ ৪০,৮২,৪৫৪
১৬ মেক্সিকো ৩৭,৮১,৬৬১ ২,৮৬,২৫৯ ৩১,৪১,৪২৯
১৭ পোল্যান্ড ২৯,৭২,৯২৭ ৭৬,৪৪৭ ২৬,৮৬,১২৯
১৮ দক্ষিণ আফ্রিকা ২৯,১৯,৩৩২ ৮৮,৯১৪ ২৮,১১,১৭৮
১৯ ইউক্রেন ২৭,৬৯,৪০৫ ৬৩,৮৭২ ২৩,৭৫,৭৭৬
২০ ফিলিপাইন ২৭,৫৬,৯২৩ ৪১,৭৯৩ ২৬,৫৪,১৭৩
২১ মালয়েশিয়া ২৪,২৬,০৫০ ২৮,৫৩৪ ২৩,২০,৩৯১
২২ পেরু ২১,৯৫,১০১ ২,০০,০১৯ ১৭,২০,৬৬৫
২৩ নেদারল্যান্ডস ২০,৭৬,২৭৩ ১৮,৩১৩ ১৯,৭৩,৩৩৮
২৪ ইরাক ২০,৪৫,০২৭ ২২,৯৩৭ ১৯,৮৪,৪৩৯
২৫ থাইল্যান্ড ১৮,৫০,৪৮২ ১৮,৭৫৫ ১৭,৩০,৭২৭
২৬ চেক প্রজাতন্ত্র ১৭,২৯,৪৫৮ ৩০,৬১৫ ১৬,৬৭,৪৬৫
২৭ জাপান ১৭,১৬,৬৯২ ১৮,১৯১ ১৬,৯৩,০১৯
২৮ কানাডা ১৬,৯৭,০৩৬ ২৮,৭৪৫ ১৬,৩৯,০৮১
২৯ চিলি ১৬,৮০,০১৭ ৩৭,৬৬২ ১৬,২৯,১২৫
৩০ রোমানিয়া ১৫,৬১,৯২৮ ৪৪,৬৭৯ ১৩,২৩,৭০৭
৩১ ইসরায়েল ১৩,২২,৬৫২ ৮,০৪৬ ১৩,০১,৪০৩
৩২ বেলজিয়াম ১৩,১২,৩৬০ ২৫,৮৪৬ ১২,০০,৮৪৭
৩৩ পাকিস্তান ১২,৬৮,৫৩৬ ২৮,৩৭৭ ১২,১৬,২৪২
৩৪ সুইডেন ১১,৬৫,৯৯৬ ১৪,৯৫৬ ১১,৩৪,৩৯২
৩৫ সার্বিয়া ১০,৯২,৪৭৬ ৯,৪৪৮ ৯,৫৭,৬০১
৩৬ পর্তুগাল ১০,৮৪,৫৩৪ ১৮,১২৯ ১০,৩৫,৪৫০
৩৭ কিউবা ৯,৪৪,৪৩১ ৮,১৬৭ ৯,৩০,৩৬১
৩৮ মরক্কো ৯,৪৪,০৭৬ ১৪,৬০৬ ৯,২৪,০০৯
৩৯ কাজাখস্তান ৯,২৮,২১১ ১১,৯০৭ ৮,৭১,৮০৩
৪০ ভিয়েতনাম ৮,৮৪,৮৯৫ ২১,৬২০ ৮,০৪,৬৬৪
৪১ সুইজারল্যান্ড ৮,৬২,৪০৮ ১১,১৯৪ ৮,১৯,০৮৭
৪২ জর্ডান ৮,৪৯,৭৫৮ ১০,৯৪১ ৮,২১,৪৫৮
৪৩ হাঙ্গেরি ৮,৪৩,৮২৫ ৩০,৪৯২ ৭,৯৩,৮৪২
৪৪ নেপাল ৮,০৯,০৫৬ ১১,৩৪৮ ৭,৮৭,৫০৭
৪৫ অস্ট্রিয়া ৭,৯৮,৬০৬ ১১,২৫১ ৭,৫৬,১২১
৪৬ সংযুক্ত আরব আমিরাত ৭,৩৯,১৯০ ২,১২৯ ৭,৩৩,১২৭
৪৭ গ্রীস ৭,১৪,২৮৩ ১৫,৫৯৮ ৬,৬৩,৭৭৪
৪৮ তিউনিশিয়া ৭,১১,৫২১ ২৫,১৩৯ ৬,৮৫,০৮৪
৪৯ জর্জিয়া ৬,৯২,২৪০ ৯,৭৪২ ৬,৩০,৯৬১
৫০ লেবানন ৬,৩৭,৩১২ ৮,৪৪৯ ৬,১২,১০৩
৫১ গুয়াতেমালা ৫,৯৪,৬৬৫ ১৪,৬৫৫ ৫,৭১,২৮৪
৫২ বেলারুশ ৫,৮৬,২৩৪ ৪,৫১৫ ৫,৫৮,৮৫০
৫৩ বুলগেরিয়া ৫,৬৮,০৭৩ ২৩,০৩৩ ৪,৬৬,৫২২
৫৪ কোস্টারিকা ৫,৫৫,৯৭০ ৬,৯৪৬ ৪,৮৪,৪৩১
৫৫ সৌদি আরব ৫,৪৮,২০৫ ৮,৭৭৬ ৫,৩৭,২৪৬
৫৬ শ্রীলংকা ৫,৩৫,৫২৯ ১৩,৫৯৩ ৫,০৩,০৯০
৫৭ আজারবাইজান ৫,১৪,২৮৯ ৬,৮৬৯ ৪,৮৩,৫৫৯
৫৮ ইকুয়েডর ৫,১৪,০৮৭ ৩২,৯৩৭ ৪,৪৩,৮৮০
৫৯ বলিভিয়া ৫,০৯,৭০৯ ১৮,৮৯৮ ৪,৭২,০৬৪
৬০ মায়ানমার ৪,৯৩,৫৭৬ ১৮,৫১১ ৪,৫৫,১৭৬
৬১ পানামা ৪,৭১,৪০৩ ৭,৩০৭ ৪,৬১,৮১৯
৬২ প্যারাগুয়ে ৪,৬০,৭০১ ১৬,২৩০ ৪,৪৪,১৯৩
৬৩ স্লোভাকিয়া ৪,৫৬,৪৩৮ ১২,৯০৩ ৪,১২,৬৭৪
৬৪ ক্রোয়েশিয়া ৪,৪৫,৩২৫ ৯,০৩৮ ৪,১৮,৪৪৬
৬৫ আয়ারল্যান্ড ৪,২৮,১৫২ ৫,৩৬৯ ৩,৭৫,৩৫১
৬৬ ফিলিস্তিন ৪,২১,১০৩ ৪,৩৬৮ ৪,০৮,১৫২
৬৭ কুয়েত ৪,১২,৫০৬ ২,৪৬০ ৪,০৯,৫৬৮
৬৮ ভেনেজুয়েলা ৩,৯৯,৬৬৭ ৪,৮০০ ৩,৮০,৭২১
৬৯ উরুগুয়ে ৩,৯২,০২৯ ৬,০৭১ ৩,৮৪,২১১
৭০ লিথুনিয়া ৩,৮৮,১৮৫ ৫,৬৩৩ ৩,৪৪,৪১১
৭১ ডেনমার্ক ৩,৭৬,৪১৪ ২,৬৯৯ ৩,৬১,১৯১
৭২ ডোমিনিকান আইল্যান্ড ৩,৭৫,৫৪৫ ৪,১০৬ ৩,৬৫,১৪৯
৭৩ হন্ডুরাস ৩,৭৪,১৪৮ ১০,১৯২ ১,১৫,৩৫৯
৭৪ ইথিওপিয়া ৩,৬২,০৮৮ ৬,৩৪৭ ৩,৩২,৯৪৫
৭৫ লিবিয়া ৩,৫৩,৬২৬ ৫,০০৬ ২,৮৮,১৭০
৭৬ দক্ষিণ কোরিয়া ৩,৫১,৮৯৯ ২,৭৬৬ ৩,২৩,৩৯৩
৭৭ মঙ্গোলিয়া ৩,৪৯,৫০৯ ১,৬৬০ ৩,১৩,২৫৬
৭৮ মলদোভা ৩,২৭,০৯৪ ৭,৪৫৯ ৩,০৫,০৬৮
৭৯ মিসর ৩,২৩,৭৩৩ ১৮,২৪২ ২,৭৩,১৫৪
৮০ স্লোভেনিয়া ৩,১৯,৯১৩ ৪,৬৮৩ ২,৯৬,৭৭৮
৮১ ওমান ৩,০৪,১৬৩ ৪,১১০ ২,৯৯,৫৪০
৮২ আর্মেনিয়া ২,৯৫,৩৬৮ ৬,০১৩ ২,৬০,৭৩১
৮৩ বাহরাইন ২,৭৬,৫২৬ ১,৩৯৩ ২,৭৪,৪৭৩
৮৪ কেনিয়া ২,৫২,৬২৮ ৫,২৫৫ ২,৪৬,০২৭
৮৫ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ২,৪৭,৯৫৮ ১১,৩২২ ১,৯২,২১৮
৮৬ কাতার ২,৩৮,৫১৮ ৬০৯ ২,৩৬,৯০৬
৮৭ নাইজেরিয়া ২,১০,২৯৫ ২,৮৫৬ ১,৯৮,১৯১
৮৮ জাম্বিয়া ২,০৯,৬২৯ ৩,৬৫৯ ২,০৫,৭৯৩
৮৯ আলজেরিয়া ২,০৫,৭৫০ ৫,৮৮৬ ১,৪১,১২৯
৯০ লাটভিয়া ২,০২,৫৭৩ ৩,০২৮ ১,৬৭,১২৩
৯১ নরওয়ে ২,০০,০৯৩ ৮৯৪ ৮৮,৯৫২
৯২ উত্তর ম্যাসেডোনিয়া ১,৯৯,৫৩৯ ৭,০৩৬ ১,৮৬,২১১
৯৩ বতসোয়ানা ১,৮৪,৯১৯ ২,৩৯৬ ১,৮১,১৮৭
৯৪ উজবেকিস্তান ১,৮৩,৫৬৯ ১,৩০৪ ১,৭৯,২২২
৯৫ এস্তোনিয়া ১,৮২,০৩৯ ১,৪৬১ ১,৫৯,৪৭৯
৯৬ আলবেনিয়া ১,৮১,২৫২ ২,৮৭০ ১,৭১,৪৭৫
৯৭ কিরগিজস্তান ১,৮০,৫৬৩ ২,৬৫৩ ১,৭৫,০৬১
৯৮ সিঙ্গাপুর ১,৬৯,২৬১ ৩০০ ১,৩৯,২২৯
৯৯ অস্ট্রেলিয়া ১,৫৮,৬০৪ ১,৬৩৭ ১,২১,৭৮০
১০০ আফগানিস্তান ১,৫৫,৯৪৪ ৭,২৫৫ ১,২৭,৪৬৫
১০১ ফিনল্যাণ্ড ১,৫৩,১৫৬ ১,১৩৯ ৪৬,০০০
১০২ মোজাম্বিক ১,৫১,২২০ ১,৯২৮ ১,৪৮,৬৪৫
১০৩ মন্টিনিগ্রো ১,৪০,৪৮৯ ২,০৫৯ ১,৩৩,৯৭৭
১০৪ জিম্বাবুয়ে ১,৩২,৫৮৮ ৪,৬৬৩ ১,২৬,৯৭৮
১০৫ ঘানা ১,২৯,৮০৫ ১,১৭০ ১,২৬,৫৩৯
১০৬ নামিবিয়া ১,২৮,৮০১ ৩,৫৪৬ ১,২৪,৩৫৩
১০৭ উগান্ডা ১,২৫,৬৪৫ ৩,১৯৮ ৯৬,৪৮১
১০৮ সাইপ্রাস ১,২১,৫৪৬ ৫৬৯ ৯০,৭৫৫
১০৯ কম্বোডিয়া ১,১৭,৭৭২ ২,৭৩৪ ১,১২,৯৭৭
১১০ এল সালভাদর ১,১২,২৯০ ৩,৫৫৪ ৯৪,০৬৯
১১১ ক্যামেরুন ১,০০,২৮৯ ১,৬০০ ৮০,৪৩৩
১১২ রুয়ান্ডা ৯৯,৩৫৪ ১,৩২০ ৪৫,৫১১
১১৩ চীন ৯৬,৭৫৮ ৪,৬৩৬ ৯১,৫৫৮
১১৪ জ্যামাইকা ৮৮,১৫৯ ২,১৭৫ ৫৬,৪৩৫
১১৫ মালদ্বীপ ৮৬,৮৩০ ২৪০ ৮৫,০৫৭
১১৬ লুক্সেমবার্গ ৮০,৬০৩ ৮৪২ ৭৮,১৭৩
১১৭ সেনেগাল ৭৩,৮৯৩ ১,৮৭৮ ৭১,৯৯৩
১১৮ অ্যাঙ্গোলা ৬৩,৭৭৫ ১,৬৯৫ ৫২,৪৫৯
১১৯ মালাউই ৬১,৭৫৭ ২,২৯৬ ৫৭,১৩১
১২০ আইভরি কোস্ট ৬১,১৭৮ ৬৯০ ৫৯,৭৪৫
১২১ ড্যানিশ রিফিউজি কাউন্সিল ৫৭,৪৩২ ১,০৯১ ৫০,৯৩০
১২২ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ৫৫,৪৩৭ ১,৬৩৯ ৪৯,২০৯
১২৩ রিইউনিয়ন ৫৪,৪৩৮ ৩৭২ ৫৩,৬৯৬
১২৪ গুয়াদেলৌপ ৫৪,৩৫০ ৭৩৬ ২,২৫০
১২৫ ফিজি ৫১,৯৭৭ ৬৭৩ ৪৮,৯১৫
১২৬ সুরিনাম ৪৭,৯৭৮ ১,০৫৮ ২৯,৪২৬
১২৭ ইসওয়াতিনি ৪৬,৩৮৪ ১,২৪১ ৪৫,০২৭
১২৮ ফ্রেঞ্চ গায়ানা ৪৪,০৬০ ২৯৯ ৯,৯৯৫
১২৯ মাদাগাস্কার ৪২,৮৯৮ ৯৫৮ ৪২,৫৪৫
১৩০ মার্টিনিক ৪২,৬৩৪ ৬৭০ ১০৪
১৩১ সিরিয়া ৪১,২২২ ২,৪৯২ ২৫,৬০৬
১৩২ সুদান ৪০,২৩৮ ৩,০৯৯ ৩২,৯০৫
১৩৩ ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ৪০,১৭৮ ৬৩৫ ৩৩,৫০০
১৩৪ কেপ ভার্দে ৩৮,১৩০ ৩৪৯ ৩৭,৪২২
১৩৫ মালটা ৩৭,৫৫১ ৪৫৯ ৩৬,৪৭১
১৩৬ মৌরিতানিয়া ৩৬,৯১০ ৭৯২ ৩৫,৬৫২
১৩৭ লাওস ৩৫,৬৩৩ ৫২ ৬,৫৫৮
১৩৮ গায়ানা ৩৪,৯৭৭ ৮৯৪ ৩০,৫৮৯
১৩৯ গ্যাবন ৩৪,৬০১ ২২৪ ২৮,৩১০
১৪০ গিনি ৩০,৬২৬ ৩৮৫ ২৯,৪০৭
১৪১ পাপুয়া নিউ গিনি ২৬,৭৩১ ৩২৯ ২৩,৪১৩
১৪২ তানজানিয়া ২৬,০৩৪ ৭২৪ ১৮৩
১৪৩ টোগো ২৫,৯৮৯ ২৪২ ২৫,৪৫৫
১৪৪ বেলিজ ২৫,৪৪৫ ৪৭৩ ২২,২১২
১৪৫ বেনিন ২৪,৫৬০ ১৬১ ২৩,৯৭১
১৪৬ হাইতি ২৩,৪০৬ ৬৫৮ ২০,১৪৯
১৪৭ বাহামা ২২,১৭৯ ৬৪২ ২০,১৮১
১৪৮ সিসিলি ২১,৯০৩ ১১৯ ২১,৫৬৭
১৪৯ লেসোথো ২১,৫৮৪ ৬৫৬ ১২,১৮৯
১৫০ সোমালিয়া ২১,২৬৯ ১,১৮০ ৯,৯২৭
১৫১ মায়োত্তে ২০,৪৮৫ ১৮২ ২,৯৬৪
১৫২ বুরুন্ডি ১৯,৮৯৪ ৩৮ ৭৭৩
১৫৩ পূর্ব তিমুর ১৯,৭৭০ ১২১ ১৯,৫৮৬
১৫৪ তাজিকিস্তান ১৭,০৮৬ ১২৪ ১৬,৯৬০
১৫৫ মরিশাস ১৭,০৪৭ ১৪৮ ১,৮৫৪
১৫৬ কিউরাসাও ১৭,০০২ ১৭২ ১৬,৬৫৭
১৫৭ কঙ্গো ১৬,৪০৮ ২৩৯ ১২,৪২১
১৫৮ তাইওয়ান ১৬,৩৬৮ ৮৪৬ ১৫,৪০৯
১৫৯ নিকারাগুয়া ১৬,২৪১ ২০৭ ৪,২২৫
১৬০ মালি ১৫,৮০৯ ৫৫৮ ১৪,৫৭২
১৬১ আরুবা ১৫,৮০০ ১৭১ ১৫,৪৮১
১৬২ এনডোরা ১৫,৪০৪ ১৩০ ১৫,১৮২
১৬৩ বার্বাডোস ১৫,০৫০ ১২৮ ১০,২২২
১৬৪ বুর্কিনা ফাঁসো ১৪,৭৯৩ ২১৪ ১৪,২৮৭
১৬৫ জিবুতি ১৩,৪৪৪ ১৮১ ১৩,১৮৮
১৬৬ ইকোয়েটরিয়াল গিনি ১৩,১৬৬ ১৬৩ ১২,৫৩৭
১৬৭ আইসল্যান্ড ১২,৮৯৯ ৩৩ ১২,২১৩
১৬৮ চ্যানেল আইল্যান্ড ১২,৫৯৪ ৯৯ ১১,৯১৩
১৬৯ সেন্ট লুসিয়া ১২,৪১১ ২৪০ ১১,৭৬৫
১৭০ হংকং ১২,৩২৪ ২১৩ ১২,০১৯
১৭১ দক্ষিণ সুদান ১২,২৭৯ ১৩৩ ১১,৮৮৯
১৭২ ব্রুনাই ১২,১১৩ ৮০ ৯,৬০৮
১৭৩ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক ১১,৫১৮ ১০০ ৬,৮৫৯
১৭৪ নিউ ক্যালেডোনিয়া ১০,৪৮২ ২৫৭ ৫৮
১৭৫ গাম্বিয়া ৯,৯৫৬ ৩৩৯ ৯,৬০১
১৭৬ ইয়েমেন ৯,৬৬২ ১,৮৩৮ ৬,১৭৮
১৭৭ আইল অফ ম্যান ৯,১০৭ ৫৭ ৮,৩২৫
১৭৮ ইরিত্রিয়া ৬,৭৮৯ ৪৫ ৬,৭০৭
১৭৯ সিয়েরা লিওন ৬,৩৯৬ ১২১ ৪,৩৯৩
১৮০ নাইজার ৬,২৪৮ ২০৭ ৫,৯১৬
১৮১ গিনি বিসাউ ৬,১৩১ ১৪১ ৫,৪৩০
১৮২ লাইবেরিয়া ৫,৯১৫ ২৮৭ ৫,৪৫৮
১৮৩ জিব্রাল্টার ৫,৮৭৪ ৯৮ ৫,৫৯১
১৮৪ গ্রেনাডা ৫,৮১৫ ১৯৬ ৫,৪৮৮
১৮৫ নিউজিল্যান্ড ৫,৬৩৮ ২৮ ৪,৪৫৭
১৮৬ বারমুডা ৫,৬১২ ৯৬ ৫,৩৪৫
১৮৭ সান ম্যারিনো ৫,৪৭৫ ৯১ ৫,৩৬৭
১৮৮ চাদ ৫,০৬৭ ১৭৪ ৪,৮৭৪
১৮৯ সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন আইল্যান্ড ৪,৮১৪ ৬০ ৩,০০৮
১৯০ ডোমিনিকা ৪,৫০৮ ৩০ ৪,০৭৫
১৯১ সিন্ট মার্টেন ৪,৪৭৮ ৭৫ ৪,৩৬০
১৯২ কমোরস ৪,২০৫ ১৪৭ ৪,০৩৭
১৯৩ অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা ৪,০১৯ ৯৯ ৩,৪৬৬
১৯৪ সেন্ট মার্টিন ৩,৮৫০ ৫৫ ১,৩৯৯
১৯৫ লিচেনস্টেইন ৩,৫২৯ ৬০ ৩,৪১৫
১৯৬ মোনাকো ৩,৩৮৯ ৩৪ ৩,৩১৮
১৯৭ টার্কস্ ও কেইকোস আইল্যান্ড ২,৯৫৬ ২৩ ২,৮৭৬
১৯৮ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ২,৭২৫ ৩৭ ২,৬৪৯
১৯৯ সেন্ট কিটস ও নেভিস ২,৬২৫ ২১ ২,২৭৫
২০০ ভুটান ২,৬১৭ ২,৬০৫
২০১ ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস ২,৩৮৩ ১৯ ৬,৪৪৫
২০২ সেন্ট বারথেলিমি ১,৫৮৯ ৪৬২
২০৩ ফারে আইল্যান্ড ১,৫৩৭ ১,৩১৯
২০৪ কেম্যান আইল্যান্ড ১,১৯৬ ৯২৩
২০৫ এ্যাঙ্গুইলা ৭৯৩ ৭০১
২০৬ গ্রীনল্যাণ্ড ৭৩১ ৬৯১
২০৭ ডায়মন্ড প্রিন্সেস (প্রমোদ তরী) ৭১২ ১৩ ৬৯৯
২০৮ ওয়ালিস ও ফুটুনা ৪৪৫ ৪৩৮
২০৯ ম্যাকাও ৭৭ ৬৬
২১০ ফকল্যান্ড আইল্যান্ড ৬৮ ৬৭
২১১ মন্টসেরাট ৪১ ৩৪
২১২ সেন্ট পিয়ের এন্ড মিকেলন ৩২ ৩২
২১৩ ভ্যাটিকান সিটি ২৭ ২৭
২১৪ সলোমান আইল্যান্ড ২০ ২০
২১৫ পশ্চিম সাহারা ১০
২১৬ জান্ডাম (জাহাজ)
২১৭ পালাও
২১৮ মার্শাল আইল্যান্ড
২১৯ ভানুয়াতু
২২০ সামোয়া
২২১ সেন্ট হেলেনা
তথ্যসূত্র: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য।
করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]