কাশ্মীরের ঐতিহাসিক জামা মসজিদ অবরুদ্ধ!

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৪৬ এএম, ১০ আগস্ট ২০১৯

কাশ্মীরের পরিস্থিতি যখন কিছুটা স্বাভাবিক ও রাস্তাঘাটে চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা কিছুটা শিথিল করা হচ্ছে ঠিক তখনই ভারতীয় পুলিশ কাশ্মীরের শ্রীনগরে অবস্থিত রাজ্যের এ প্রধান মসজিদটি বন্ধ করে দেয়। ফলে মুসলিমরা তাতে জুমাসহ কোনো নামাজই আদায় করতে পারছে না।

শুক্রবার থেকে ইন্টারনেট, ফোন ও রাস্তাঘাটের চলাচল স্বাভাবিক হতে চলেছে। অভ্যন্তরীণ ছোট ছোট মসজিদগুলোতেও ছিল নামাজের অনুমতি। অথচ কাশ্মীরের বিখ্যাত জামা মসজিদের ফটক বন্ধ করে দেয় ভারতের সরকারি কর্তৃপক্ষ।

প্রচুর সংখ্যক নিরাপত্তারক্ষী এ মসজিদটি অবরুদ্ধ করে রাখে। আর রাজ্যের অন্যান্য ছোট ছোট মসজিদগুলোতেও গড়ে তুলে নিরাপত্তা বেষ্টনী।

কাশ্মীর রাজ্য পুলিশের প্রধান দিলবাগ সিং জামা মসজিদে নামাজ বন্ধ রাখা প্রসঙ্গে বলেন, ‘রাজ্যের নিরাপত্তার খাতিরেই ঐতিহাসিক জামা মসজিদে নামাজ আদায় বন্ধ রাখা হয়েছে।

দিলবাগ সিং গণমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জানান, ‘কাশ্মীরের অচলাবস্থা ধীরে ধীরে অবসান হতে চলেছে। স্থানীয় মুসলমানদের জন্য জুমআ নামাজ আদায়ের জন্য মসজিদগুলো খুলে দেয়া হয়েছে। নামাজ আদায়ে তাদের কোনো বাধা নেই। তবে নিরাপত্তার খাতিরেই প্রধান মসজিদটি খোলা হয়নি।’

নিষেধাজ্ঞা কিছুটা শিথিল করা হলেও নিজ এলাকার বাইরে যাওয়া কারো জন্যই নিরাপদ নয় বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য যে, গত রোববার (৪ আগস্ট) থেকে কাশ্মীরের ফোন, ইন্টারনেট ও চলাচলের ওপর সামরিক নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল।

ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার কাশ্মীরের মর্যাদার সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপ করে। কাশ্মীরের সাবেক দুই মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি ও ওমর আব্দুল্লাহকে গৃহবন্দি করার পাশাপাশি নেতাকর্মীসহ পাঁচ শতাধিক কাশ্মীরিকে গ্রেফতার করে।

এমএমএস/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :