যে কোনো সময় জ্বলে উঠতে পারে মোস্তাফিজ : ইমরান

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:২৮ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ১১:৪৪ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭

সব কিছু ঠিক থাকলে ২৫ নভেম্বর মোস্তাফিজ মাঠে নামতে পারে, রাজশাহী কিংসের প্রশিক্ষক সারোয়ার ইমরান গত ১৯ নভেম্বর জাগো নিউজকে দিয়েছিলেন এ তথ্য। সে তথ্য যে অমূলক ও মনগড়া নয়, ৪৮ ঘণ্টা আগে বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুশীলনে উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে কাটার মাস্টার নিজেই তা জানিয়ে দেন। মোস্তাফিজ বলে দেন, নতুন কোন সমস্যা না থাকলে আমি আশা করি শনিবার মাঠে নামবো।

রাজশাহী কোচ সারোয়ার ইমরান আজ (শনিবার) সকালে জাগো নিউজের কাছে তা নিশ্চিত করে বলেন, ‘হ্যা আজ খেলবে মোস্তাফিজ।’

মুঠোফোন আলাপে ইমরান জানিয়ে দিলেন, ‘এখন আর কোন সংশয় নেই। তার ম্যাচ ফিটনেস চলে এসেছ। আমাদের (রাজশাহী কিংসের) আজকের একাদশে আছে মোস্তাফিজ। জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের সঙ্গে ম্যাচে খেলবে মোস্তাফিজ।’ অবশেষে সত্যিই আজ একাদশে ফিরেছেন এই তারকা

এ মুহূর্তে মুহুর্তে পয়েন্ট টেবিলে তলানিতে রাজশাহী কিংস। মোস্তাফিজের অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিত করেই দলটির শক্তি বাড়াবে। আর সবার মত এমন বিশ্বাস কোচ সারোয়ার ইমরানেরও। তাই তো তার মুখে এমন কথা, ‘আমাদের দল ইনজুরিতে আক্রান্ত । দুই-তিনজন ফ্রন্টলাইন পারফরমার ইনজুরিতে পড়েছে। তার মধ্যে অধিনায়ক ডারেন স্যামি অন্যতম। তার পাজরের পেশিতে টান। যে কারণে খেলতে পারলেও স্বচ্ছন্দ-সাবলীল ব্যাটিং করায় সমস্যা হচ্ছে। আমরা স্যামির কাছ স্বাভাবিক সার্ভিস পাচ্ছি না। তার আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে সমস্যা হচ্ছে।’

ইনজুরি আক্রান্ত শিবির, দল পূর্ন শক্তিতে মাঠে নামতে পারছে না। সেই দলে মোস্তাফিজ যোগ দিলে কতটা লাভবান হবে? রাজশাহীর কিংসের শক্তি কি আসলেই বাড়বে? তারপর যে ধরনের উইকেটে খেলা হবে, সেখানে মোস্তাফিজের জ্বলে ওঠারই সম্ভাবনা কতটুকু? এসব প্রশ্ন উকি দিচ্ছে দর্শক, সমর্থকদের মাঝে।

জাগো নিউজের কাছ থেকে এমন প্রশ্ন রাখা হলে রাজশাহী কোচ সারোয়ার ইমরান জবাব দেন এভাবে, ‘আসলে মোস্তাফিজের অন্তর্ভুক্তি অবশ্যই দলকে অনুপ্রাণিত করবে। তার অন্তভুক্তিতে দল অবশ্যই সমৃদ্ধ হবে। শক্তি বাড়বে। সবচেয়ে বড় কথা মোস্তাফিজের মত বোলারের বোলিংটা যে কোন দলের জন্যই প্লাস পয়েন্ট। আশা করছি মোস্তাফিজ খেললে আমাদেরও শক্তি বাড়বে। আমরাও উপকৃত হবো।’

ইমরানের শেষ কথা, ‘মোস্তাফিজন এমন এক মানের বোলার, যার যে কোন উইকেটে বল হাতে জ্বলে ওঠার এবং ভালো করার পর্যাপ্ত সামর্থ্য আছে। তার জন্য আসলে কন্ডিশন বা উইকেট খুব একটা ম্যাটার করে না। তবে হ্যা ইনজুরি কাটিয়ে ছয় সপ্তাহর বেশি রিহ্যাব করে তারপর মাঠে নামছে। প্রথমদিন আজ এখনই তার কাছ থেকে সেরাটা আশা করা ঠিক হবে না।’

এআরবি/এমআর/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :