হেসনের ব্যাপারে ভারতের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় বিসিবি!

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:৩১ পিএম, ১৪ আগস্ট ২০১৯

ঈদের আগের রাতেই একটু আধটু গুঞ্জন, ১৪ আগস্ট (বুধবার) ঢাকায় ইন্টারভিউ দিতে আসবেন বাংলাদেশের কোচের সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা মাইক হেসন। ঈদের দিন দুপুর বেলায় সে গুঞ্জন জোরালো হলো আরও। বিসিবির অতি নির্ভরশীল উচ্চ পর্যায়ের সূত্রে জানা গেল হেড কোচের ইন্টারভিউ দিতে বুধবার ঢাকা আসছেন মাইক হেসন।

সে খবরের সত্যতা অনুযায়ী আজ রাজধানীতে এসে পৌঁছানোর কথা নিউজিল্যান্ডের মাইক হেসনের। কিন্তু ভেতরের খবর, তিনি আজ আসছেন না। আজ বুধবারই নয়, কাল (১৫ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবসেও ঢাকায় পা রাখবেন না হেসন।

তাহলে তিনি কবে আসবেন? নাকি আসবেনই না? খুব প্রাসঙ্গিক প্রশ্ন। সে প্রশ্নের উত্তর ঘাটতে গিয়ে জানা গেল নতুন খবর- আজ-কালই শুধু নয়, ১৭ আগস্টের আগে হয়ত ঢাকায় আসা হবে না হেসনের। কারণ বিসিবির দায়িত্বশীল এক সূত্র জানিয়েছে, এ মুহূর্তে বাংলাদেশের হেড কোচ নিয়োগ প্রক্রিয়াটি ভারতের হেড কোচ নিয়োগের সাথে সম্পর্কযুক্ত হয়ে গেছে।

অর্থাৎ, বাংলাদেশের হেড কোচ চূড়ান্ত করার আগে বিসিবি তাকিয়ে ভারতের হেড কোচ কে হচ্ছেন?- সে দিকে। বিষয়টা খানিক জটিল মনে হতে পারে। কিন্তু একদমই জটিল নয়। বিসিসিআইও রয়েছে কোচের খোঁজে। তারাও ইন্টারভিউ ডেকেছে।

আগামী ১৬ আগস্ট ভারতের হেড কোচের পরীক্ষা। এক সময় শোনা যাচ্ছিলো রবি শান্ত্রিই থেকে যাবেন। তার ওপর সন্তুষ্ট বিসিসিআই। কিন্তু শেষ খবর, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের শীর্ষকর্তারাও ভেতরে ভেতরে নতুন কোচের সন্ধানে। তারা আগামী পরশু শুক্রবার নতুন হেড কোচের ইন্টারভিউ ডেকেছে।

সেখানে ছয়জনের মধ্যে আছেন বাংলাদেশের সম্ভাব্য কোচের তালিকায় থাকা মাইক হেসনও। মাইক হেসন, টম মুডি, রবি শাস্ত্রী, রবিন সিং, লালচাঁদ রাজপুত আর ফিল সিমন্স আছেন ভারতের কোচের শর্ট লিস্টে। সেখান থেকে একজনকে বেছে নেবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

বোঝাই যায় বিসিবি তাকিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড হেসনকে নেয় কি-না? বিসিসিআই যদি হেসনকে নিয়ে ফেলে তাহলে আর বিসিবির তাকে কোচ পদে নিয়োগ দেবার প্রশ্নই আসবে না। তখন অনিবার্যভাবে রাসেল ডোমিঙ্গো কিংবা আরেকজন নতুন বিকল্প খুঁজে নিতে হবে বিসিবিকে।

কাজেই বিসিবি এখন তাকিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সিদ্ধান্তের দিকে। বিসিসিআই যদি হেসনকে না নেয়, তখনই কেবল তাকে নেয়ার প্রশ্ন আসবে বিসিবির। হেসন ভারতের কোচ হয়ে গেলে আর তাকে টাইগারদের হেড কোচ করার প্রশ্নই আসবে না ।সে কারণেই হেসনের ১৭ তারিখের আগে ঢাকার আসার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

এআরবি/এসএএস/এমকেএইচ