যে প্রতিযোগিতায় দৌড়াতে হয় বউকে ঘাড়ে নিয়ে

ভ্রমণ ডেস্ক
ভ্রমণ ডেস্ক ভ্রমণ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৫৬ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২১

এক লাইনে দাঁড়ানো সব পুরুষ প্রতিযোগী ঘাড়ে বউকে নিয়ে দৌড়ে যান পানির মধ্যে। তাও আবার ১০-২০ মিনিট নয়, টানা এক ঘণ্টা বউকে ঘাড়ে নিয়ে দৌড়ে পাড়ি দিতে পিচ্ছিল পথ। এই প্রতিযোগিতায় জয়ী হওয়া খুবই কষ্টকর।

রোমাঞ্চকর এমনই এক প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় ফিনল্যান্ডে। সেখানকার জনপ্রিয় এক প্রতিযোগিতা এটি। ফিনল্যান্ডের শহর সোনকাজারভিতে প্রতিবছর উদ্ভট এই খেলা দেখতে হাজার হাজার দর্শকরা উপস্থিত হন। এটি রোমাঞ্চকর এক খেলা।

যে প্রতিযোগিতায় দৌড়াতে হয় বউকে ঘাড়ে নিয়ে

‘ওয়ার্ল্ড ওয়াইফ ক্যারিয়িং চ্যাম্পিয়নশিপ’ নামক এই প্রতিযোগিতা এবার ২৫ তম সিজনে পদার্পন করেছে। আন্তর্জাতিকভাবে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে খেলাটি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সুইডেন ও এস্তোনিয়ার মতো দেশ থেকেও পর্যটকরা এই খেলা দেখতে ভিড় করে ফিনল্যান্ডে।

আয়োজকদের মতে, নিয়মিতভাবে ৫০টিরও বেশি দেশের প্রতিযোগীরা এই খেলায় অংশগ্রহণ করে। স্ত্রী-চুরির প্রথা থেকে অনুপ্রাণিত হয়েই এই খেলার প্রচলন ঘটেছে বলে মত অনেকের। ফিনল্যান্ডে হাজার হাজার বছর আগে স্ত্রী-চুরির প্রথা ছিল। যা এখনো আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে প্রচলিত আছে।

যে প্রতিযোগিতায় দৌড়াতে হয় বউকে ঘাড়ে নিয়ে

এই প্রতিযোগিতা সাধারণ কোনো দৌড় নয়। হাজারও বাধিা অতিক্রম করতে হয়। এজন্য আপনাকে একটি পিচ্ছিল পুলের মধ্য দিয়ে যেতে হবে। এই খেলায় টেইস্টো মেটিনেন নামক একজন ফিনল্যান্ডবাসী ৬ বার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন।

যে প্রতিযোগিতায় দৌড়াতে হয় বউকে ঘাড়ে নিয়ে

তিনিই বছরজুড়ে অন্যদেরকে স্ত্রী বহন প্রতিযোগিতার জন্য প্রশিক্ষণ দেন। যাই হোক, সম্প্রতি একটি লিথুয়ানিয়ান দম্পতি ভাইটোটাস ও নেরিঙ্গা কারক্লিনসিইস্কন এই খেলায় জয়ী হয়ে মুকুট গ্রহণ করছেন।

যে প্রতিযোগিতায় দৌড়াতে হয় বউকে ঘাড়ে নিয়ে

ফিনল্যান্ড উদ্ভট সব ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজনের জন্য সবার কাছেই পরিচিত এক দেশ। শুধু এই খেলা নয়, এয়ার গিটার চ্যাম্পিয়নশি, বিশ্ব বুট নিক্ষেপ প্রতিযোগিতারও আবাসস্থল ফিনল্যান্ড। এ ছাড়াও বিশ্ব মোবাইল ফোন নিক্ষেপ প্রতিযোগিতাও অনুষ্ঠিত হয় এ দেশে।

যে প্রতিযোগিতায় দৌড়াতে হয় বউকে ঘাড়ে নিয়ে

যেহেতু ফিনল্যান্ড খুবই শীতল অঞ্চল। সারাবছরই অন্ধকার থাকে এই দেশে। শুধু গ্রীষ্মকালের তিন মাস সূর্যালোকের দেখা মেলে এই দেশে। এ কারণে ফিনল্যান্ডবাসীরা এই সময়টাতে বিভিন্ন উৎসব ও অনুষ্ঠান পালক করে থাকে।

জেএমএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]