ধানক্ষেতে কারেন্ট পোকার আক্রমণে দিশেহারা কৃষক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বান্দরবান
প্রকাশিত: ০৩:০৯ পিএম, ০২ নভেম্বর ২০১৯

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে ধানক্ষেতে কারেন্ট পোকার (বাদামি গাছফড়িং) আক্রমণে দিশেহারা কৃষকরা। পোকার প্রভাবে ক্ষেত নষ্টের উপক্রম হয়েছে। ক্ষেত রক্ষায় নানা ধরনের স্প্রে করেও ফল পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেছেন চাষিরা। উপজেলার বাইশারি ইউনিয়নের কয়েকজন চাষির ক্ষেত ইতোমধ্যে নষ্ট হয়ে গেছে।

কৃষকরা জানান, মাঠের প্রতিটি ক্ষেতেই কম-বেশি পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে। তারা সমাধান পেতে বাজারের সার-কীটনাশকের ব্যবসায়ীদের কাছে পরামর্শ নিয়ে নানা ধরনের ওষুধ স্প্রে করেছেন।

বাইশারি ইউনিয়নের কৃষক আবদুর রশিদ বলেন, ‘ধানের দিকে তাকালে দেখা যায় পোকার আক্রমণে কী অবস্থা হয়েছে। নিজের একটু ধান ছিল, তা-ও নষ্ট হতে চলেছে। এ বছর ধানের খোড়াক কিভাবে জোগাবো সেই চিন্তায় আছি। প্রায় ২ একর জমির ধান নষ্ট হয়ে গেছে।’

কৃষক মো. ওসমান গনি জানান, দুই একর জমিতে ধানের চাষ করেছেন তিনি। হঠাৎ কারেন্ট পোকার আক্রমণে সর্বস্বান্ত হয়ে গেছেন এই কৃষক।

ইউনিয়নের দায়িত্বরত উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা রফিকুল আলম বলেন, ‘পোকার আক্রমণে কিছু ধান নষ্ট হয়েছে। বিষয়টি শোনার সাথে সাথে ক্ষেতে গিয়ে কৃষকদের পোকা দমনের পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছি। বাকি ধান যেন রক্ষা পায়, সেদিকে কৃষি কর্মকর্তারা সজাগ দৃষ্টি রাখছে।’

বান্দরবান কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক একেএম নাজমুল হক বলেন, ‘কারেন্ট পোকা খুবই মারাত্মক। গাছের গোড়ায় আক্রমণের ফলে সহজে বোঝা যায় না। অল্প সময়ের মধ্যে ধানের গাছগুলো সম্পূর্ণ ঝলসে মাটিতে শুয়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাসহ ৭টি উপজেলায় কৃষি কর্মকর্তাদের সতর্ক করা হয়েছে।’

উল্লেখ্য, চলতি বছর নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় রোপা আমনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩ হাজার ৩শ ৩৪ হেক্টর জমি।

সৈকত দাশ/এসইউ/এমকেএইচ