আজকের জোকস: ডাক্তার আসিবার পূর্বে রোগী ভালো হইয়া গেল

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:১৪ এএম, ১৩ নভেম্বর ২০২১

ডাক্তার আসিবার পূর্বে রোগী ভালো হইয়া গেল
একদিন হোজ্জার স্ত্রী খুব অসুস্থ হয়ে পড়েন। হোজ্জা তার স্ত্রীর অসুস্থতা নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়লেন। ছুটে গেলেন চিকিৎসক ডেকে আনার জন্য। যাওয়ার সময় তার স্ত্রী বললেন—
স্ত্রী: এই শোনো, ডাক্তার আনার দরকার নেই।
হোজ্জা: কেন?
স্ত্রীর: ব্যথাটা চলে গেছে।

হোজ্জা এই কথা শুনেই ডাক্তারের বাড়ির দিকে দৌড়ে গেলেন। বললেন—
হোজ্জা: ডাক্তার, আমার স্ত্রী খুব অসুস্থ। আপনাকে ডেকে আনার জন্য বলেছিল।
ডাক্তার: তাড়াতাড়ি চলুন।
হোজ্জা: না, ডাক্তার সাহেব আপনাকে যেতে হবে না।
ডাক্তার: কি বলছেন? রোগী মারা যাবে তো।
হোজ্জা: আপনাকে ডেকে আনতে বের হওয়ার সময় বলল সে সুস্থ বোধ করছে, আপনাকে ডাকার দরকার নেই।
ডাক্তার: তাহলে এসেছেন কেন?
হোজ্জা: আপনাকে পুরো ব্যাপারটা বলতে এলাম।

****

দাদা তার নাতিকে বলছে—
দাদা: যা পালা তাড়াতাড়ি তুই আজকে স্কুলে যাস নাই তাই তোর শিক্ষক বাড়িতে আসছে।
নাতি: আমি পালাবো না, তুমি বরং পালাও।
দাদা: আমি পালাব কেন?
নাতি: কারণ আমি স্যারকে বলেছি আমার দাদা মারা গেছে তাই স্কুলে যাইনি।

****

ছোট বউ চাই
এক সমবয়সী দম্পতি ছিল, দু’জনেরই বয়স ৬০ বছর। একদিন এক পেত্নী এসে তাদের বলল—
পেত্নী: আমি তোদের দু’জনের একটা করে ইচ্ছা পূরণ করতে পারি, বল কে কি চাস?
স্ত্রী: আমি আমার স্বামীর সঙ্গে সারা পৃথিবী ঘুরতে চাই।

পেত্নী তুড়ি বাজিয়ে দু’টি প্লেনের টিকিট বউকে দিয়ে দিল। তারপর লোকটিকে বলল—
পেত্নী: এবার তুই বল কি চাস?
স্বামী: আমি আমার থেকে ৩০ বছরের ছোট বউ চাই।

পেত্নী এবারও তুড়ি বাজালো, আর লোকটিকে ৯০ বছরের করে দিল।

কেএসকে/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]