রিকশাচালকদের রেইনকোট দিলো জাবি শিক্ষার্থীরা

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৯:৫৩ পিএম, ১৬ মে ২০১৮ | আপডেট: ০৫:১১ পিএম, ১৭ মে ২০১৮
রিকশাচালকদের রেইনকোট দিলো জাবি শিক্ষার্থীরা

একটি মানবিক উদ্যোগ বাস্তবায়ন করেই সবার মন জয় করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৭তম আবর্তনের শিক্ষার্থীরা।

বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩৫ জন রিকশাচালকের মাঝে রেইনকোট বিতরণ করে ৪৭তম আবর্তনের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের রিকশাচালকদের জন্য অন্যরকম একটি আনন্দের দিনে পরিণত হয়।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিচালিত কয়েকটি ফেসবুক গ্রুপ ৪৭তম আবর্তনের প্রতি ভালোবাসা, ভালোলাগা ও প্রশংসায় মুখর হয়ে উঠেছে। প্রথমবর্ষের এমন ব্যতিক্রম ও নতুন উদ্যোগকে প্রশংসার দৃষ্টিতে দেখছে পুরো জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার।

ju-rain-coat3

রেইনকোট বিতরণকালে ৪৭ব্যাচের শিক্ষার্থী মাহফুজুর রহমান বলেন, আমরা কয়েকজন প্রথমে আলোচনা করে আইডিয়াটা ঠিক করি। আমরা ব্যাচের অফিসিয়াল গ্রুপে আলোচনা করে ক্লাস প্রতিনিধিদের মাধ্যমে টাকা সংগ্রহ করি। পরে ঢাকার বঙ্গবাজার থেকে রেইনকোট কিনে আজ রিকশাচালকদের হাতে তুলে দিই। এটা করতে কয়েক দিন ধরে আমাদের খাটতে হয়েছে। কিন্তু রেইনকোট পেয়ে রিকশাচালকদের মুখে হাসি দেখে আমরা যে আনন্দ পেয়েছি তা আসলে বর্ণনা করা সম্ভব নয়।

ju-rain-coat3

তিনি আরও বলেন, আরও টাকা থাকলে আমরা হয়তো ক্যাম্পাসের সব রিকশাওয়ালাকে রেইনকোট তুলে দিতে পারতাম।

এ বিষয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী অনুপ কুমার পাল ফেসবুক পোস্টে লিখেন, ‘শরীরে বেশি জোর থাকলে টাকা দিয়ে কনসার্ট হয়। কয়দিন পর ভুলে যায় সবাই। ছবি ছাড়া মনে পড়ে না। আর মনের জোরে এসব হয়। অনেক কাল মনে থাকে এমনিতেই। রেইনকোটগুলো একেকটা ভালো বাসা, ছিঁড়ে যাওয়ার পর ফেলে দিলেও রিকশাওয়ালা মামাদের আশীর্বাদ ফুরাবে না। অনেক অনেক ভালোবাসা আর আশীর্বাদ রইলো ছোট ভাই-বোনদের জন্য। তোদের অনুজরা যেন তোদের এভাবেই অনুসরণ করে।’

ju-rain-coat3

এ বিষয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জোবায়ের সামী বলেন, অনেক দিন পর একটা ব্যতিক্রমধর্মী এবং অত্যন্ত ভালো উদ্যোগ দেখলাম। ধন্যবাদ আপনাদের। আশা করি ক্যাম্পাসের দীর্ঘজীবনে এরকম আরও অনেক কিছু আপনারা এই জাবি পরিবারের অংশকে দিয়ে যাবেন। আপনারা অবশ্যই এরকম ব্যতিক্রমী উদ্যোগের পথ প্রদর্শক হয়ে থাকবেন।

এ বিষয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রাহুল মন্ডল বলেন, আইডিয়াটা জাবিকে একটি অনন্য স্থানে উন্নীত করেছে বলে আমি বিশ্বাস করি।

হাফিজুর রহমান/এএম/এমএস

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com