ছাত্র ইউনিয়ন নেতাকে মারধর ছাত্রলীগের

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৫৯ পিএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ছাত্র ইউনিয়নের বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক রাজীব দাসসহ দু’জনকে মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে হলের সন্তোষচন্দ্র ভট্টাচার্য ভবনে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ রয়েছে, জগন্নাথ হল ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী অতনু ও তার সমর্থকরা রাজীবসহ দু’জনকে মারধর করেন। রাজীব দাস ছাড়া ভুক্তভোগী অন্যজন হলেন অনিন্দ্য মণ্ডল। তিনি দর্শন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। এ ঘটনায় রাতে হলে বিক্ষোভ করে ছাত্র ইউনিয়ন।

এ বিষয়ে ছাত্র ইউনিয়নের বিশ্ববিদ্যালয় সংসদেরর সাধারণ সম্পাদক রাজীব দাস সাংবাদিকদের বলেন, ‘অনিন্দ্য আগে ছাত্রলীগ করতেন। কিন্তু সম্প্রতি সে ছাত্র ইউনিয়নের মিছিলে যায়। পরে ছাত্রলীগের ছেলেরা তার জিনিসপত্র নিয়ে যায়। সেগুলো আনতে গেলে তাকে মারধর করে রুমের মধ্যে আটকে রাখা হয়। তাকে আনতে গেলে তারা আমাকেও মারধর করে।’

জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. অসীম কুমার সরকার সাংবাদিকদের বলেন, ‘ছাত্র ইউনিয়ন থেকে ছাত্রলীগ করতে চাওয়ায় এক ছাত্রকে মারধর করা হয়েছে। এ ঘটনা কোনোভাবেই কাম্য নয়। আমরা খতিয়ে দেখছি। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

জানা গেছে, অনিন্দ্য প্রথম বর্ষে ছাত্রলীগের মাধ্যমে হলে ওঠেন। কয়েক দিন আগে তিনি ছাত্রলীগের কর্মসূচিতে যোগ না দিয়ে ছাত্র ইউনিয়নের কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছিলেন। বিষয়টি হল ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জানার পর অনিন্দ্যের জিনিসপত্র সন্তোষচন্দ্র ভট্টাচার্য ভবনের ৫০০৫ নম্বর কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে সেখান থেকে নিজের জিনিসপত্র আনতে গেলে অনিন্দ্যকে মারধর করা হয় এবং আটকে রাখা হয়। এ খবর পেয়ে ছাত্র ইউনিয়নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ সম্পাদক রাজীব দাস সেখানে যান। তাঁকেও মারধর করা হয় বলে তিনি অভিযোগ করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস বলেন, ‘মারধর করা ঠিক হয়নি। এ ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িতদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এমএইচ/এনএফ/এমএস

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :