‘চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় পুলিশের সক্ষমতা বাড়াতে হবে’


প্রকাশিত: ০৩:১৪ পিএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭

দেশে জঙ্গি তৎপরতা রোধে পুলিশের উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে। দিন দিন চ্যালেঞ্জ বাড়ছে, চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় পুলিশের সক্ষমতা বাড়ানোর বিকল্প নেই বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক।

শনিবার খাগড়াছড়িতে দেশের প্রথম এপিবিএন স্পেশালাইজড ট্রেনিং সেন্টারের উদ্বোধন শেষে এ কথা জানান তিনি।

জঙ্গিবাদসহ দেশে যে কোনো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড দমনে সরকার বিশেষায়িত পুলিশ বাহিনী ‘পুলিশ কমান্ডো কোর্স’ চালুর উদ্যোগ নিয়েছে উল্লেখ করে এ কে এম শহীদুল হক বলেন, সে উদ্যোগের অংশ হিসেবে বিশ্বমানের পুলিশ কমান্ডো কোর্স শুরু হয়েছে। জঙ্গিদের কৌশল পরিবর্তনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সরকারের ইচ্ছায় এ বাহিনী গঠন করা হয়েছে।

আইজিপি আরও বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী থেকে এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উন্নত প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তারা কমান্ডো ট্রেনিংয়ে প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের এফবিআইসহ বিভিন্ন দেশ থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ডিএমপির বিশেষায়িত কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট, সোয়াতসহ সেনাবাহিনীতে বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ১৭ জন প্রশিক্ষক এ কমান্ডো প্রশিক্ষণ দেবেন।

প্রসঙ্গত, এটিই হচ্ছে বাংলাদেশ পুলিশে কমান্ডো ফোর্স তৈরির প্রথম কার্যক্রম। এর আগে কঠোর প্রশিক্ষণ ও অনুশীলনের মাধ্যমে সাধারণত সশস্ত্র বাহিনীতে কমান্ডো বা প্যারা কমান্ডো তৈরি করা হতো। প্রথম দফায় ৮ সপ্তাহব্যাপী এ প্রশিক্ষণে কনস্টেবল থেকে এএসপি পদমর্যাদার মোট ৪৪ জন পুলিশ সদস্য অংশ নিচ্ছেন।

এসময় চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি সফিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত ডিআইজি (ট্রেনিং অ্যান্ড স্পোর্টস) খন্দকার মহিদ উদ্দিন, খাগড়াছড়ি এপিবিএন বিশেষায়িত ট্রেনিং সেন্টারের অধিনায়ক আওরঙ্গজেব মাহবুব, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হ্লাচিংপ্রু, খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মজিদ আলীসহ ঊর্ধ্বতন সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/এআরএ/আরআইপি