বড়াইগ্রামে ফাদার রোজারিওকে উদ্ধারে অগ্রগতি নেই

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি নাটোর
প্রকাশিত: ০১:১৯ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৭

নাটোরের বড়াইগ্রামে বোর্ণী মারিয়াবাদ ক্যাথলিক ধর্মপল্লীর সহকারী পাল-পুরোহিত ফাদার ওয়াল্টার উইলিয়াম রোজারিওকে এখনও খুঁজে বের করতে পারেনি প্রশাসন। তবে মঙ্গলবার রাতে ওয়াল্টার উইলিয়াম রোজারিওর মোবাইল ফোন ব্যবহার করে পরিবারের কাছে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করার কথা বলেছেন পরিবারের লোকজন। তারা দ্রুত ওয়াল্টার উইলিয়াম রোজারিওকে ফিরিয়ে দেয়ার দাবি জানিয়েছেন।

নিখোঁজ ফাদারের বড় ভাই বিমল রোজারিও বলেন, গত মঙ্গলবার রাতে ওয়াল্টার উইলিয়াম রোজারিওর মোবাইল ফোন থেকে একটি কল আসে। পরে তারা ওয়াল্টারের মুক্তিপণ হিসেবে তিন লাখ টাকা দাবি করে। পরিবারের লোকজন কিছুটা সময় চেয়ে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে বিষয়টি জানিয়েছেন।

অপরদিকে ওয়াল্টার রোজারিওর বৃদ্ধা মা তার সন্তানের মঙ্গলের জন্য অবিরাম প্রার্থনা করে চলেছেন। উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠার মধ্যে সময় কাটাচ্ছেন রোজারিও ওয়াল্টনের পরিবার। তারা ওয়াল্টার উইলিয়াম রোজারিওকে দ্রুত খুঁজে বের করার দাবি জানিয়েছেন।

natore

বড়াইগ্রাম সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হারুন-অর রশিদ বলেন, তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে একটি চক্র ভুয়া কলের মাধ্যমে মুক্তিপণ চেয়েছে। বিষয়টি আসলে পুরোপুরি ভিত্তিহীন। তবে ফাদার ওয়াল্টারকে উদ্ধারের জন্য পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার অনেকগুলো টিম দিন-রাত অভিযান অব্যাহত রেখেছে। বিভিন্ন সূত্র থেকে প্রাপ্ত তথ্য যাচাই করা হচ্ছে। খুব দ্রুতই তাকে উদ্ধার করতে সক্ষম হব।

উল্লেখ্য, গত সোমবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ফাদার ওয়াল্টার উপজেলার জোনাইলে তার কর্মস্থলে ফেরার উদ্দেশ্যে নিজের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল যোগে রওনা দেয়ার পর থেকে নিখোঁজ রয়েছেন। তিনি বনপাড়া পৌর শহরের মিশন পাড়া এলাকার মৃত সিলভেস্টার রোজারিওর ছেলে। তার বাড়ি আলোচিত জঙ্গি হামলায় নিহত সুনীল গোমেজের বাড়ি থেকে মাত্র ৫০/৬০ গজ দূরে।

রেজাউল করিম রেজা/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :