ভোট ডাকাতি দেখতেই শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকবে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০৯:১৫ এএম, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭

রংপুর সিটি কর্পোরেশন (রসিক) নির্বাচনের জন্য এখনো সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি হয়নি অভিযোগ করে বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু বলেছেন, বিএনপির প্রার্থীকে হয়রানি করতে ঋণ খেলাপির মিথ্যে অভিযাগ এনে সরকার তাকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে চেয়েছিল। কিন্তু সেটা পারেনি।

রোববার দুপুরে শহরের গ্রান্ড হোটেল মোড়স্থ বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, যে সরকার নির্বাচনের দশদিন আগে প্রার্থিতা নিয়ে খেলা করে এবং সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত যায় সেখানে বোঝাই যায় এ সরকার চায় না বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক। তারা এককভাবে নির্বাচন করতে চায়। তবুও সরকারের ভোট ডাকাতি দেখতেই শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবে বিএনপি।

ইতোমধ্যে বিএনপি প্রার্থীর পোলিং এজেন্টদের বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়া শুরু হয়েছে জানিয়ে বিএনপির শীর্ষ এ নেতা বলেন, বিএনপি প্রার্থী চায়ের দোকানে চা খেতে গিয়েছিলেন। স্বভাবতই একজন প্রার্থী চা খেতে গেলে সেখানে বিভিন্ন লোকজন এগিয়ে আসতেই পারে। সেটা নাকি বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন। অথচ নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিভিন্ন জায়গায় আলোকসজ্জাসহ রাত ১০-১১টা পর্যন্ত প্রচার-প্রচারণা চালালেও প্রশাসন হস্তক্ষেপ করছে না।

তিনি বলেন, বিভিন্ন ওয়ার্ডে গিয়ে তাদের পোলিং এজেন্টদের হুমকি-ধামকি দেয়া হচ্ছে। বলা হচ্ছে যে ভোট দিয়ে লাভ হবে না। এমনকি তাদের নির্ধারিত পথসভার জায়গায় আওয়ামী লীগ পাল্টা কর্মসূচি দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

তাদের এসব অভিযোগ নির্বাচন কমিশনকে জানানোর কথা উল্লেখ করে ২১ ডিসেম্বর ভোটের দিন যেন কেন্দ্র, বুথ দখল না হয় সেজন্য গণমাধ্যমের সহযোগিতা কামনা করেন ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

এসময় বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও জাতীয় সংসদের সাবেক চীফ হুইপ জয়নাল আবেদিন ফারুক, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হাবীব দুলুসহ স্থানীয় বিএনপির নেতৃরা উপস্থিত ছিলেন।

জিতু কবীর/এফএ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :