পিটিয়ে টেনে-হিঁচড়ে নির্যাতন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি লক্ষ্মীপুর
প্রকাশিত: ০৪:২২ এএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৪:২৩ এএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৮
পিটিয়ে টেনে-হিঁচড়ে নির্যাতন

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে খোরশেদ আলম নামের এক ব্যবসায়ীকে মধ্যযুগীয় কায়দায় অস্ত্রের মুখে বেদম পিটিয়ে তুলে নেয়ার ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। আহত খোরশেদ রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। গত দুইদিন থেকে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গত বুধবার বেলা ১১টার দিকে রামগঞ্জের ভোলাকোট ইউনিয়নের অথাকরা বাজারে স্থানীয় মোহাম্মদ লেদা, কিরণ, নুর হোসেন, সোহেল, মিল্লাদ, মিলন ও নুরু কিছু বুঝে ওঠার আগেই মাটি ব্যবসায়ী খোরশেদকে মারধর শুরু করে। পূর্বশক্রতার জের ধরে তাকে প্রকাশ্যে অস্ত্র ঠেকিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় পিটিয়ে মাটিতে হাত-পা টানা-হেঁচড়া করা হয়।

lakshmipurএসময় তার মোটরসাইকেল, মোবাইল ফোন সেট ও টাকা লুটে নেয়া হয়। গোপনে স্থানীয় এক ব্যক্তি মোবাইল ফোনে নির্যাতনের ভিডিও ধারণ করেন।

খোরশেদকে পিটিয়ে তার হাত, পা, মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে জখম করা হয়। পরে তাকে রিকশা ও সিএনজিতে তুলে টিওরী গ্রামে নিয়ে আটকে রাখা হয়। খবর পেয়ে রামগঞ্জ থানার এসআই হাসান ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন।

স্থানীয়রা জানায়, ভোলাকোট ইউনিয়নের দেওলা ও দেবনগরসহ আশপাশ এলাকায় মোহাম্মদ লেদা, কিরণ ও নুর হোসন সহযোগীদের নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় সন্ত্রাসী তৎপরতা চালিয়ে আসছেন। তাদের ভয়ে এলাকাবাসী মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না।

এ ব্যাপারে রামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তোতা মিয়া মিয়া বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে সমাধানের চেষ্টা চলছে।

জেডএ