পুলিশের লাঠিচার্জ, তবুও অনড় বিএনপি নেতা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি মৌলভীবাজার
প্রকাশিত: ০৬:৩৬ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৬:৪০ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শামীম মুসার অপসারণের দাবিতে একাই আমরণ অনশন পালন করছেন মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আবেদ রাজা।

সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে কুলাউড়া পৌর শহরের স্বাধীনতা সৌধে অবস্থান করে তিনি এ অনশন শুরু করেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত আমরণ অনশনে আছেন তিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুপুর দেড়টায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কুলাউড়া বিএনপির নেতাকর্মীরা মানববন্ধনের চেষ্টা করলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

এ সময় ৫ বিএনপি কর্মীকে আটক করে পুলিশ। আটকরা হলেন আবু সুফিয়ান (৩২), মুহিবুর রহমান (৪৮), মোহাম্মদ আলী শামীম (৩০), গৌরাঙ্গ দে (২২) ও মওদুদ (৩২)।

পুলিশের লাঠিচার্জে মানববন্ধন থেকে সবাই সরে পড়লেও একাই দাঁড়িয়েছিলেন বিএনপি নেতা আবেদ রাজা। তিনি তার অবস্থানে অনড় থাকেন। উপায় না পেয়ে একপর্যায়ে কয়েকজন পুলিশ তাকে ধাওয়া দেয়। অবশেষে থানার সামনে অবস্থিত স্বাধীনতা সৌধে গিয়ে অবস্থান নেন আবেদ রাজা।

এ বিষয়ে বিএনপি নেতা আবেদ রাজা বলেন, পুলিশ অহেতুক বিএনপির নেতাকর্মীর ওপর হামলা চালায়। আটক করে পাঁচজন কর্মীকে। আমাদের কোনো মিছিল-মিটিং করতে দেয়া হচ্ছে না। তাই উপায় না পেয়ে অনশনে বসেছি। নেতাকর্মীদের মুক্তিসহ গণতান্ত্রিক তৎপরতায় বাধা দেয়ায় এ থানার ওসির অপসারণের দাবিতে আমরণ অনশন পালন করে যাব আমি।

কুলাউড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শামীম মুসা পাঁচজনকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে আমাদের দায়িত্ব আমরা পালন করছি।

অপসারণের দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, গণতন্ত্র না থাকলে উনি এমন কথা বলতে পারতেন না। উনি এভাবে বসে থাকতে পারতেন না। নিশ্চয়ই গণতন্ত্র আছে।

এএম/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :