অস্ট্রেলিয়ায় নিহত দুইজনকে সোনারগাঁওয়ে দাফন

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি নারায়ণগঞ্জ
প্রকাশিত: ০৮:০১ পিএম, ১৭ এপ্রিল ২০১৮

অস্ট্রেলিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত তিন বাংলাদেশির মধ্যে দুইজনের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে। তাদের দুইজনের মরদেহ দেশে আনার পর সোনারগাঁওয়ের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

তবে অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশ সরকারের কোনো সহযোগিতা না পাওয়ায় তাদের মরদেহ দেশে আসতে বিলম্ব হয়েছে। নিজ খরচে মরদেহ দেশে আনতে হয়েছে বলে নিহতের স্বজনদের অভিযোগ।

মঙ্গলবার সকালে নিহত সাইফুল ইসলাম দিনার ও সাদেকা কামাল নিপার জানাজা শেষে মরদেহ দাফন করা হয়। সকাল ১০টায় সোনারগাঁওয়ের হাবিবপুর ঈদগা মাঠে সাইফুল ইসলাম দিনারের জানাজা শেষে হাবিবপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়। আর বেলা ১১টায় সোনারগাঁও বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অনার্স ভবন মাঠে সাদেকা কামাল নিপার জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

গতকাল সোমবার রাত ১০টায় অস্ট্রেলিয়ার একটি কার্গো বিমানযোগে তাদের মরদেহ দেশে আনা হয়। রাতেই তাদের মরদেহ সোনারগাঁওয়ে পৌঁছে।

নিহত সাইফুল ইসলাম দিনার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়ি মজলিস গ্রামের মাজহারুল ইসলামের ছেলে ও সাদেকা কামাল নিপা একই ইউনিয়নের বড়নগর গ্রামের মোস্তফা কামাল বাবুলের মেয়ে ও রহমতপুর গ্রামের অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী সোহানের স্ত্রী।

তাদের মরদেহ সোনারগাঁওয়ে আসলে দুইজনের বাড়িতেই স্বজনদের কান্নার আহাজারিতে আকাশ-বাতাস ভারি হয়ে উঠে। মরদেহ দেখতে অনেকই সোমবার রাতে ও মঙ্গলবার সকালে বড়নগর ও বাড়ি মসলিস গ্রামে নিহতদের বাড়িতে ভীড় করেন।

তাদের জানাজায় অংশ নেন- নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা, সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ আল কায়সার, সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহীনুর ইসলাম, সোনারগাঁও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ৩১ মার্চ অস্ট্রেলিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় ডারউইন শহরের কাকাডু ন্যাশনাল পার্কের কাছে সড়ক দুর্ঘটনায় তিনজন বাংলাদেশি নিহত হয়।

নিহত তিনজনের মধ্যে দুইজনের বাড়ি নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে। অস্ট্রেলিয়ার বাংলাদেশ স্টুডেন্ট অ্যাসোসিয়েশন নামের একটি সংগঠন থেকে ১২ জনের একটি দল স্টার হলিডের ছুটি কাটাতে ভ্রমণে গিয়েছিলেন। তারা সবাই চার্লস ডারউইন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও তাদের পরিবারের সদস্য ছিলেন। ভাড়ায়চালিত দুটি গাড়ি করে যাত্রা করেছিলেন তারা।

শাহাদাত/এএম/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :