ফেসবুকে ভিডিও দেখে স্বামীকে ধরলো পুলিশ

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি খাগড়াছড়ি
প্রকাশিত: ০৬:২৬ পিএম, ০২ মে ২০১৮

খাগড়াছড়িতে স্ত্রীকে বাড়ির উঠানে ফেলে নির্মমভাবে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। নির্যাতনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে বুধবার দুপুরে স্বামী মাসুদকে আটক করে পুলিশ।

খাগড়াছড়ি জেলা শহরের দ্বিতীয় চেঙ্গী ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। স্বামী মাসুদ এ ঘটনাকে পারিবারিক ঝগড়া বলে দাবি করলেও নির্যাতনের শিকার স্ত্রী রোকেয়া বেগম ও এলাকাবাসী বলছেন, এ ধরনের নির্যাতন নিত্যদিনের ঘটনা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পাঁচ বছর আগে খাগড়াছড়ি শহরের দ্বিতীয় চেঙ্গী ব্রিজ এলাকার বাসিন্দা ফয়েজ আহমেদের ছেলে অটোরিকশাচালক মাসুদের সঙ্গে রোকেয়া বেগমের বিয়ে হয়।

বিয়ের কিছু দিন যেতে না যেতেই যৌতুকের দাবিতে রোকেয়ার ওপর নেমে আসে নির্যাতন। পাঁচ বছরের সংসারে রোকেয়া বেগম দুই সন্তানের জননী। সন্তানের কথা ভেবে স্বামীর সব নির্যাতন সহ্য করে যাচ্ছে স্ত্রী রোকেয়া।

Khagrachari-Wife-Tourter-2

স্থানীয়রা জানায়, দ্বিতীয় চেঙ্গী ব্রিজ এলাকার বাসিন্দা ফয়েজ মাঝির ছেলে অটোরিকশাচালক মাসুদ প্রায়ই তার স্ত্রীকে মারধর করে। বুধবার সকালে মারধর করার সময় রোকেয়ার চিৎকার শুনতে পায় স্থানীয়রা।

কিন্তু মাসুদের দুর্ব্যবহারের ভয়ে কেউ রোকেয়াকে উদ্ধারে এগিয়ে আসেনি। তবে স্থানীয় এক যুবক নির্যাতনের ভিডিও ধারণ করে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়। ফেসবুকে ওই ভিডিও ভাইরাল হলে স্বামী মাসুদকে আটক করে পুলিশ।

খাগড়াছড়ি সদর থানা পুলিশের ওসি মো. সাহাদাত হোসেন টিটো বলেন, ওই নারীর ওপর বর্বর নির্যাতনের ভিডিও ফেসবুকে দেখার পর স্থানীয়দের তথ্যের ভিত্তিতে স্বামী মাসুদকে আটক করা হয়। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

মুজিবুর রহমান ভুইয়া/এএম/জেআইএম